বুধবার, নভেম্বর ১৩, ২০১৯

side1
side1

চিকিৎসা দিতে হলো পুতুলকেও!

নিউজ ডেস্ক : সহজাতভাবেই শিশুরা ছোটাছুটি করতে ভালোবাসে। এগারো মাসের ছোট্ট শিশু জিকরাও তার ব্যতিক্রম নয়। সারাদিন ব্যস্ত পায়ে খেলনা পুতুল পরিকে নিয়ে সে ঘরময় ছুটে বেড়ায়। কখনোই পরিকে কাছছাড়া করে না সে। তাদের বন্ধুত্ব এতটাই দৃঢ় যে দুর্ঘটনায় আহত হওয়ায় জিকরার সঙ্গে সঙ্গে পরিকেও চিকিৎসা দিতে হয়েছে চিকিৎসকদের।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের নয়াদিল্লির লোক নায়ক হাসপাতালে। জানা গেছে, কয়েকদিন আগে খাট থেকে পড়ে পা ভেঙে যায় জিকরার। তার পরিবারের সদস্যরা যখন তাকে নিয়ে হাসপাতালে ছুটে যান তখন শিশুটি ভয় পেয়ে কান্না জুড়ে দেয়। চিকিৎসকরা কিছুতেই তার পায়ের চিকিৎসা দিতে পারছিলেন না।

চিকিৎসকরা জানান, পায়ের হাড় ভেঙে গেছে জিকরার। সেটা সারাতে গেলে ট্রাকশন দিতে হবে। এ জন্য বেড়ে শুইয়ে তার পা উঁচু করে ঝুলাতে হবে।

জিকরার মা ফারিন জানান, বাড়িতে পাঁচ সেকেন্ডও চুপ করে বসে না জিকরা। এদিকে চিকিৎসক বলেছেন পা সোজা না রাখলে কোনোদিন পা ঠিক হবে না। জিকরাকে কোনোভাবেই চিকিৎসা দিতে পারছিলেন না চিকিৎসকরা। এ কারণে দুশ্চিন্তায় পড়ে গেছেন তিনি। তখনই তার মাথায় আসে পরির কথা। চিকিৎসকদের তিনি জানান, যদি পরিকে শুইয়ে চিকিৎসা দেওয়া হয় তাহলে জিকরাও রাজি হবে পরির মতো শুয়ে থাকতে।

জিকরার মায়ের প্রস্তাব শুনে চিকিৎসকরা বিস্মিত হলেও রাজী হন ওই পদ্ধতিতে চিকিৎসা দিতে।

হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. গুপ্তা বলেন, ‘ শিশুটির মায়ের প্রস্তাব অনুযায়ী আমরা প্রথমে পুতুলের চিকিৎসা দেই। তারপর শিশুটির চিকিৎসা দিই। শিশুটির কাছে পুতুলটা তার বন্ধুর মতো। আমরা দুই বন্ধুকে একইভাবে শুইয়ে চিকিৎসা দিই। এতে দারুণ কাজ হয়।’ তিনি জানান, জিকরা আর তার পরি বন্ধু এরই মধ্যে সবার মন কেড়েছে। এমন অবাক কাণ্ড ঘটিয়ে হাসপাতালে বিখ্যাত হয়ে গেছে জিকরা।

Related posts