বুধবার, অক্টোবর ২৩, ২০১৯

side1
side1

খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে তৎপর দলের এমপিরা

নিউজ ডেস্ক :: দেড় বছরের বেশি সময় ধরে কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হঠাৎ তৎপর হয়ে উঠেছেন দলটির সংসদ সদস্যরা। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে মঙ্গলবার খালেদা জিয়ার সঙ্গে বিএনপির তিনজন এমপি দেখা করার পরদিন গতকাল বুধবার সাক্ষাত করেছেন দলটির অপর চার এমপি।

সাক্ষাতের পর তারা বলেছেন, বিএনপি প্রধানের শারীরিক অবস্থা ‘খুবই খারাপ’, এজন্য বিশেষায়িত হাসপাতালে তাঁর চিকিত্সা জরুরি। বিএনপির এমপিরা এ-ও বলেছেন, জামিনে মুক্তি পেলে খালেদা জিয়া দেশেই কিংবা বিদেশেও চিকিৎসা নিতে পারেন। দলগতভাবে এতদিন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি জানানো এবং মানববন্ধন ও অনশনসহ বিএনপি বিক্ষিপ্ত নানা কর্মসূচি পালন করলেও এবার দলীয় এমপিদের তৎপরতায় নতুন মাত্রা পেয়েছে।

বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হারুনুর রশীদ এমপি মঙ্গলবার হাসপাতালে খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাত শেষে সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘জামিন পেলে খালেদা জিয়া উন্নত চিকিত্সার জন্য বিদেশে যাবেন।’ হারুন গতকাল সচিবালয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে দেখা করেও খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা নিয়ে কথা বলেন।

পরে ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের বলেছেন, বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীকে জানানো হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী আদালতের বিষয় বলেছেন। তবে চিকিৎসারা যদি খালেদা জিয়াকে বিদেশে নেওয়ার পরামর্শ দেন, তখনই সরকার বিষয়টি দেখবে। এসময় তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার সঙ্গে সরকারের কোনো শত্রুতা নেই। বিএনপির এমপি হারুন নিজেও এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছেন বলে তিনি জানান ।

ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে বৈঠক শেষে বিএনপির এমপি হারুনও সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেছেন। খালেদা জিয়ার জামিন নিয়ে বিদেশে চিকিৎসা করাতে পাঠানোর মাধ্যমে তাকে কি বিএনপির রাজনীতি থেকে মাইনাস করতে চাচ্ছেন- একজন সাংবাদিক এই প্রশ্ন করলে হারুন বলেন, ‘এটি ঠিক নয়। তার ৭৬ বছর বয়স। তিনি নানা রোগে আক্রান্ত। তাঁর জরুরি চিকিৎসা প্রয়োজন। এরমধ্যে কোনও রাজনীতি নেই।’

আপনারা খালেদা জিয়ার জামিন নিয়ে বারবার সরকার ও প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলছেন, এটা রাজনৈতিক সমঝোতার ইঙ্গিত বহন করে কি-না, প্রশ্ন করা হলে হারুন বলেন- ‘না, এটি সমঝোতা হতে যাবে কেন? যে নির্বাচনের মাধ্যমে সরকার ক্ষমতায় এসেছে সেটি তো প্রশ্নবিদ্ধ।’

কারা হেফাজতে চিকিৎসার জন্য বিএসএমএমইউতে থাকা খালেদা জিয়ার সঙ্গে মঙ্গলবার হারুন ছাড়াও দেখা করেন বিএনপির এমপি উকিল আবদুস সাত্তার ও আমিনুল ইসলাম। এছাড়া গতকাল দেখা করেছেন বিএনপির এমপি মোশাররফ হোসেন, জাহিদুর রহমান, ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা ও জিএম সিরাজ। রুমিন ফারহানা সাংবাদিকদের জানান, সার্বিকভাবে খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা খুবই খারাপ। খালেদা জিয়া তাদেরকে জানিয়েছেন তিনি কোনো অপরাধ করেননি। যে মামলা, তাতে জামিন পাওয়া তাঁর অধিকার।

তবে বিএসএমএমইউ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল একেএম মাহবুবুল হক জানিয়েছেন, খালেদা জিয়া ভালো আছেন, তাঁর অবস্থার কোনও অবনতি হয়নি। পাঁচ সদস্যের মেডিক্যাল বোর্ড রয়েছে, তারা তাকে সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণ করছেন।

Related posts