বুধবার, ০৪ অগাস্ট ২০২১, ০২:৫৬ পূর্বাহ্ন

বাটলারের ঝরে উড়ে গেল ভারত

নিউজ ডেস্ক :: জস বাটলারের ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসে ভারতকে হেসেখেলে হারিয়েছে ইংল্যান্ড। তাতে পাঁচ ম্যাচের সিরিজ ২-১ এগিয়ে গেল ইংলিশরা। বাটলারের ব্যাটিং তাণ্ডব ছাপিয়ে গেছে বিরাট কোহলিকে। ভারতীয় অধিনায়কের ৭৭ রানের জবাব ভালোভাবেই দিয়েছে বাটলার, এই ইংলিশ ব্যাটসম্যান ৫২ বলে ৮৩ রানের ইনিংস খেলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন।

মঙ্গলবার (১৬ মার্চ) আহমেদাবাদে তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে ভারতের দেয়া ১৫৭ রানের লক্ষ্য ইংলিশরা পেরিয়ে যায় ১০ বল বাকি থাকতেই। মাত্র ২টি উইকেট হারিয়ে টার্গেটে পৌঁছায় সফরকারীরা।

প্রথম ম্যাচের মতোই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল ভারতের ইনিংসের। ২২ রানে হারিয়েছিল ৩ উইকেট। এবার ২৪ রানে ৩টি। এমন বাজে শুরুর পর ভারতকে দারুণ দক্ষতায় এগিয়ে নেন কোহলি। টানা দ্বিতীয় ফিফটিতে ভারতীয় অধিনায়ক করেন ৪৬ বলে অপরাজিত ৭৭। ভারতের আর কেউ ছাড়াতে পারেননি ২৫।

টস হেরে ব্যাটিং করতে নেমেই মার্ক উডের প্রথম দুই ওভারে ওপেনার লোকেশ রাহুল (০) ও রোহিত শর্মা (১৫) সাজঘরে ফেরেন। আগের ম্যাচে দারুণ ফিফটি হাঁকিয়ে প্রশংসা কুড়ানো কিষান এদিন ৯ বল খেলে মাত্র ৪ রানে বিদায় হন। ক্রিস জর্ডানের বলে জস বাটলারের গ্লাভসবন্দি হন কিষান।

এই ধাক্কা কিছুটা হলেও সামাল দেন কোহলি ও রিশভ পান্ত। দুজনের ব্যাটে বাড়ছিল রান। তবে দারুণ তিনটি চার মারলেও ইনিংস টেনে নিতে পারেননি পান্ত। ২০ বলে ২৫ রান করে রান আউট হয়ে ফেরেন এই তরুণ কিপার ব্যাটসম্যান। দুই অঙ্কে যেতে পারেননি শ্রেয়াস আইয়ার।

কিন্তু ভারত অধিনায়ক এক প্রান্তে ছিলেন অনড়। ২৩ বলে পঞ্চাশ ছোঁয়ার পর আগ্রাসন বাড়ান। শেষ পর্যন্ত ৪৬ বলে ৮ চার ও ৪ ছক্কায় ৭৭ রানে থাকেন অপরাজিত। পান্ডিয়ার ব্যাট থেকে আসে ১৭ রান।

ইংল্যান্ডের হয়ে উড ৩টি ও জর্ডান নেন ২ উইকেট।

লক্ষ্য তাড়ায় দুই চারে ভালো শুরু করলেও জেসন রয়কে ৯ রানে সাজঘরে ফেরান চাহাল। দ্বিতীয় উইকেটে জয়ের ভিত পেয়ে যায় অতিথিরা। জস বাটলার ও ডেভিড মালান ৩৯ বলে ৫৮ রানের জুটি গড়েন। যেখানে মালানের অবদান ১৮ রান। বাটলার ভারতের পেসার ও স্পিনারদের সামলেছেন সিদ্ধহস্তে। উইকেটের চারিপাশে বাউন্ডারি ও ওভার বাউন্ডারিতে রানের গতি সচল রাখেন। কখনো ৬ এর ওপরে উঠতে দেননি আসকিং রান রেট।

চতুর্থ ওভারে আক্রমণে আসা লেগ স্পিনার যুজবেন্দ্র চেহালকে পেয়ে বসেন বাটলার। প্রথম বলেই ছক্কা! তৃতীয় বলে যদিও জেসন রয়ের উইকেট পেয়ে যান এই লেগ স্পিনার, কিন্তু পঞ্চম বলে আবার ছক্কা হাঁকান বাটলার।

এরপর আর বাটলারকে থামানো যায়নি। ২৬ বলে ৪টি চার ও ৩ ছক্কায় ফিফটি স্পর্শ করার পর গতি আরও বাড়ান। জনি বেয়ারস্টোর সঙ্গে ৭৭ রানের জুটিতে বাকিটা সহজেই সারেন বাটলার। মাঝে মালানকে ১৮ রানে ফেরান ওয়াসিংটন সুন্দর।

শার্দুলকে পরপর দুই চারে ম্যাচের ইতি টানা বেয়ারস্টো অপরাজিত থাকেন ২৮ বলে ৪০ রান করে। বাটলারের ৫২ বলে ৮৩ রানের ইনিংস সাজানো ৫ চার ও ৪ ছক্কায়।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
ভারত : ২০ ওভারে ১৫৬/৬ (রোহিত ১৫, রাহুল ০, কিষান ৪, কোহলি ৭৭*, পান্ত ২৫, শ্রেয়াস ৯, পান্ডিয়া ১৭; রশিদ ৪-০-২৬-০, আর্চার ৪-০-৩২-০, উড ৪-০-৩১-৩, জর্ডান ৪-১-৩৫-২, স্টোকস ২-০-১২-০, স্যাম কারান ২-০-১৪-০)

ইংল্যান্ড :

১৮.২ ওভারে ১৫৮/২ (রয় ৯, বাটলার ৮৩*, মালান ১৮, বেয়ারস্টো ৪০* ; ভুবনেশ্বর ৪-০-২৭-০, শার্দুল ৩.২-০-৩৬-০, চেহেল ৪-০-৪১-১, পান্ডিয়া ৩-০-২২-০, সুন্দর ৪-০-২৬-১)

ম্যাচ সেরার পুরস্কার পেয়েছেন বাটলার। ১৮ মার্চ একই মাঠে সিরিজের চতুর্থ ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।
এএইচ/এসএ/

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি