শুক্রবার, ২৫ Jun ২০২১, ০৩:১০ অপরাহ্ন

শিরোনাম
হাতীবান্ধায় মধ্যরাতে গোয়াল ঘরে আগুন, গরু বাঁচাতে গিয়ে ২জন অগ্নিদগ্ধ গ্রাম হচ্ছে শহর প্রাণভোমরা ডিজিটাল সেন্টার – পরীক্ষিৎ চৌধূরী সুইজারল্যান্ডে এমপি হয়ে ইতিহাস গড়লেন বাংলাদেশি নারী জেনারেল র‌্যাংক ব্যাজ পরানো হলো নতুন সেনাপ্রধানকে ‘ওভারনাইট বান্দরবান পাঠিয়ে দেব’ বিজ্ঞাপন বন্ধের নির্দেশ করোনা চিকিৎসার ব্যবস্থাপনা ও প্রস্তুতি জানতে ঢাকা মেডিকেলে জাসদ নেতৃবৃন্দ ব্যাটারি চালিত রিক্সা-ভ্যান বন্ধের প্রতিবাদে সিরাজগঞ্জে মানববন্ধন যোগচর্চার উৎপত্তি ভারত না নেপাল নৌপরিবহন অধিদফতরে এইচএসসি পাসে চাকরি গায়েবি মামলায় হয়রানি ঠেকাতে হাইকোর্টের ৫ দফা নির্দেশনা

নাঈম ও শান্ত-ঝড়ে জয়ের লক্ষ্যে আবাহনী

নিউজ ডেস্ক :: ডিপিএলের ১৯তম ম্যাচে ইমতিয়াজ হোসেন ও মেহেদী হাসান মিরাজের ব্যাটে চড়ে আবাহনীকে ১৬৫ রানের চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছে খেলাঘর সমাজ কল্যাণ সমিতি। তবে নাঈম ও শান্তের ব্যাটিং ঝড়ে চ্যালেঞ্জের জবাবটা ভালোভাবেই দিচ্ছে আবাহনী।

শেষ খবর পর্যন্ত ১১ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ৮৩ রান তুলেছে আবাহনী লিমিটেড। মোহাম্মাদ নাঈম ৩০ বলে ৩০ রানে এবং ঝড় তোলা নাজমুল হোসাইন শান্ত ২৮ বলে ৪২ রান নিয়ে ক্রিজে আছেন।

তবে শুরুটা মোটেও ভালো হয়নি আবাহনীর। শূন্য রান প্রথম উইকেট হারানোর পর মাত্র ১২ রানেই দুই উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়ে জবাব দিতে নামা মুশফিক বাহিনী। যে অবস্থা থেকে দলকে টেনে তোলার পাশাপাশি ব্যাটে ঝড় তুলে এখন জয়ের লক্ষ্যেই ছুটছেন শান্ত ও নাঈম।

এর আগে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৬৪ রান সংগ্রহ করে জহুরুল ইসলামের খেলাঘর। এ বড় স্কোরের নেপথ্যে ছিলেন ওপেনার ইমতিয়াজ হোসেন ও তিনে নামা মেহেদী হাসান মিরাজ।

বিকেএসপির তিন নং মাঠ টস জিতে ব্যাট করতে নামে খেলাঘর সমাজ কল্যাণ সমিতি। ইমতিয়াজ হোসেন ও রাফসান আল মাহমুদ মিলে দলকে দারুণ সূচনা এনে দেন। চতুর্থ ওভারে ৪২ রানের ওপেনিং জুটি ভাঙেন আরাফাত সানি। ১২ বলে ১৮ রান করে রাফসান আল মাহমুদ ফিরে যান নাঈম শেখের হাতে ক্যাচ দিয়ে।

এরপর মেহেদী হাসান মিরাজের সঙ্গে ৬২ রানের জুটি গড়েন ইমতিয়াজ। তাদের সাবলীল ব্যাটিংয়ে সচল থাকে খেলাঘরের রানের চাকা। মোসাদ্দেক হোসেনের বলে ডাউন দ্য উইকেটে এসে খেলতে গিয়ে স্ট্যাম্পিং হন মিরাজ। ৪টি চার ও এক ছক্কায় ২৫ বলে ৩৩ রান করে ফেরেন তিনি। বড় স্কোর গড়তে পারেননি জহুরুল ইসলাম অমিও। ৫ রান করে আরাফাত সানির দ্বিতীয় শিকার হন ক্যাপ্টেন। তবে এক প্রান্ত আগলে রাখেন ইমতিয়াজ। তুলে নেন অর্ধশতকও।

ইনিংসের ১৬তম ওভারে বিদায় নেন ইমতিয়াজ। মোসাদ্দকের বলে বোল্ড হওয়ার আগে খেলা ৪৫ বলে ৬৬ রানের ইনিংসে ছিল ৬টি চার ও ৩টি ছক্কার মার। স্লগ ওভারে ৯ বলে ১৩ রানের ইনিংস খেলেন সাদ্দাম হোসেন। যাতে ওই সংগ্রহ পায় খেলাঘর। আবাহনীর পক্ষে মোসাদ্দেক ও সানি দুটি করে উইকেট লাভ করেন।

এনএস/

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি