রবিবার, ০১ অগাস্ট ২০২১, ১১:০৮ পূর্বাহ্ন

কোন জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত

নিউজ ডেস্ক :: কিংবদন্তীর ইতিহাস-ঐতিহ্যের দেশ বাংলাদেশ। এদিক থেকে বেশ সমৃদ্ধশালী। দেশের বিভিন্ন জেলা আমাদের সংস্কৃতিকে করেছে আলোকিত। বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলা খাবার-দাবার, কৃষ্টি-সংস্কৃতি, পোশাক ও স্থান ইত্যাদির কারণে বিখ্যাত।

আমাদের ৮টি বিভাগের মধ্যে মোট ৬৪টি জেলা রয়েছে এবং প্রত্যেকটি জেলা-ই কোনও না কোনও কারণে বিখ্যাত। অথচ আমরা অনেকেই জানি না, আমাদের পাশের জেলাটিই কী কারণে বিখ্যাত। তাই, আজ আমরা দেখবো- আমাদের কোন জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত- সে সম্পর্কে।

বাংলাদেশের এক একটি জেলা বিভিন্ন প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য, স্থান, পুরাকীর্তি, ফল-ফলাদি প্রভৃতি খাদ্য সামগ্রীর জন্য বিখ্যাত। আসুন, আমরা জেনে নিই কোন জেলা কিসের জন্য বিখ্যাত।

১। কক্সবাজার – মিষ্টিপান।
২। কিশোরগঞ্জ – বালিশ মিষ্টি, নকশি, পিঠা।
৩। কুমিল্লা – রসমালাই, খদ্দর (খাদী)।
৪। কুষ্টিয়া – তিলের খাজা, কুলফি, আইসক্রিম।
৫। খাগড়াছড়ি – হলুদ।
৬। খুলনা – সন্দেশ, নারিকেল, গলদা, চিংড়ি।
৭। গাইবান্ধা – রসমঞ্জরী।
৮। গাজীপুর – কাঁঠাল, পেয়ারা।
৯। গোপালগঞ্জ – বাদাম।
১০। পিরোজপুর – পেয়ারা, ডাব, আমড়া।
১১। চট্টগ্রাম – মেজবান, শুটকি।
১২। চাঁদপুর – ইলিশ।
১৩। চাঁপাইনবাবগঞ্জ – আম, ১৪। শিবগঞ্জের – চমচম, কলাইয়ের রুটি।
১৫। চুয়াডাঙ্গা – পান, ভুট্টা।
১৬। জামালপুর – ছানার পোলাও, ছানার পায়েস।
১৭। ঝালকাঠী – লবন, আটা।
১৮। ঝিনাইদাহ – হরি ও ম্যানেজারের ধান।
১৯। টাঙ্গাইল – চমচম।
২০। ঠাকুরগাঁও – সূর্য্যপুরী আম।
২১। দিনাজপুর – লিচু, পাপড়, চিড়া, শীদল।
২২। ঢাকা – বাকরখানি, হাজীর/নান্নার, বিরিয়ানী।
২৩। নওগাঁ – প্যারা সন্দেশ, চাল।
২৪। নরসিংদী – সাগর কলা।
২৫। নড়াইল – পেড়ো সন্দেশ, খেজুর গুড়, খেজুর রস।
২৬। নাটোর – কাঁচাগোল্লা।
২৭। নেত্রকোনা – বালিশ মিষ্টি।
২৮। নীলফামারী – ডোমারের সন্দেশ।
২৯। নোয়াখালী – নারকেল নাড়ু়, ম্যাড়া পিঠা।
৩০। পাবনা – প্যারডাইসের প্যারা, সন্দেশ, ঘি।
৩১। ফরিদপুর – খেজুরের গুড়।
৩২। ফেনী – মহিশের দুধের ঘি, খন্ডলের মিষ্টি।
৩৩। বগুড়া – দই, কটকটি।
৩৪। বরিশাল – আমড়া।
৩৫। বাগেরহাট – চিংড়ি, সুপারি।
৩৬। বান্দরবন – হিল জুস।
৩৭। ব্রাহ্মণবাড়িয়া – তালের বড়া, ছানামুখী, রসমালাই।
৩৮। ভোলা – মহিষের দুধের দই, নারিকেল।
৩৯। ময়মনসিংহ – মুক্তা গাছার মণ্ডা।
৪০। মাগুরা – রসমালাই।
৪১। মাদারীপুর – খেজুর গুড়, রসগোল্লা।
৪২। মানিকগঞ্জ – খেজুর গুড়।
৪৩। মুন্সীগঞ্জ -ভাগ্যকুলের মিষ্টি।
৪৪। মেহেরপুর – মিষ্টি সাবিত্রি, রসকদম্ব।
৪৫। মৌলভীবাজার – ম্যানেজার স্টোরের চ্যাপ্টা রসগোল্লা।
৪৬। যশোর – খই, খেজুর গুড়, জামতলার মিষ্টি।
৪৭। রংপুর – আখ (ইক্ষু)।
৪৮। রাঙ্গামাটি – আনারস, কাঠাল, কলা, জুম, রেস্তোরার বাশেঁর তৈরি খাবার।
৪৯। রাজবাড়ী – চমচম, খেজুরের গুড়।
৫০। রাজশাহী – আম, তিলের খাজা, বিরেন দার সিংগারা,সিল্ক।
৫১। লক্ষ্মীপুর – সুপারি।
৫২। শেরপুর – ছানার পায়েস, ছানার চপ।
৫৩। সাতক্ষীরা – সন্দেশ।
৫৪। সিরাজগঞ্জ – পানিতোয়া, ধানসিড়িঁর দই।
৫৫| নারায়ণগঞ – আমের আচার।
৫৬। সিলেট – সাতকড়ার আচার, কমলালেবু, পাঁচ লেয়ার চা।

এনএস//

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি