বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ০২:৩৮ পূর্বাহ্ন

২১ বছরের অবসান ঘটাতে চায় উইন্ডিজ

নিউজ ডেস্ক :: পাকিস্তানের বিপক্ষে সর্বশেষ ২০০০ সালে টেস্ট সিরিজ জিতেছিলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এরপর আর পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ জয়ের স্বাদ নিতে পারেনি ক্যারিবীয়রা। দীর্ঘ ২১ বছর পর উইন্ডিজের সামনে এখন সেই পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ জয়ের সুযোগ।

কিংস্টনে নাটকীয়ভাবে প্রথম টেস্ট জিতে দুই ম্যাচের সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে আছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। শুক্রবার (২০ আগস্ট) থেকে শুরু হওয়া দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট জিতলে বা ড্র করলেই পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজ জয়ের স্বাদ পাবে ক্যারিবীয়রা। অপরদিকে, শেষ টেস্ট জিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দীর্ঘদিন যাবৎ সিরিজ জয়ের রেকর্ড অব্যাহত রাখতে চায় পাকিস্তান।

জ্যামাইকার কিংস্টনে সাবিনা পার্কে বাংলাদেশ সময় রাত ৯টায় শুরু হবে সিরিজের প্রথম টেস্টের প্রথম দিনের খেলা।

গত ১৪ আগস্ট একই মাঠে অনুষ্ঠিত সিরিজের প্রথম টেস্টে ১ উইকেটের দুর্দান্ত এক জয়ের স্বাদ পায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ১৬৮ রানের জয়ের লক্ষ্যে ১৫১ রানের মধ্যে ৯ উইকেট হারিয়ে বসেছিলো ক্যারিবীয়রা। ম্যাচ জিততে তাই ১ উইকেট হাতে নিয়ে ১৭ রানের প্রয়োজন ছিলো উইন্ডিজের। শেষ উইকেট জুটিতে কেমার রোচ ও জেইডেন সিলসের ১৭ রানের সেই অবিচ্ছিন্ন জুটিতে অবিস্মরণীয় জয়ই রচিত করে ব্রাথওয়েট বাহিনী।

এমন জয়ে আত্মবিশ্বাসের তুঙ্গে ক্যারিবীয় দল। তাই দ্বিতীয় টেস্টেও জয় ছাড়া অন্য কিছু ভাবছেন না স্বাগতিক পেসার কেমার রোচ। তবে সিরিজ জয়ই মূল লক্ষ্য তাদের, ‘প্রথম টেস্টে দারুণ জয় পেয়েছি আমরা। এখন দল হিসেবে আমরা অনেক বেশি আত্মবিশ্বাসী। দ্বিতীয় ম্যাচেও ভালো খেলে জয় তুলে নিতে চাই আমরা। আমাদের মূল লক্ষ্য সিরিজ জয়। পাকিস্তানের বিপক্ষে দীর্ঘদিন সিরিজ জিততে না পারার বন্ধ্যাত্ব এবার ঘোচাতে চাই।’

২০০০ সালের পর চারটি টেস্ট সিরিজ খেলেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও পাকিস্তান। দু’টিতে জিতেছে পাকিস্তান। অন্য দু’টি ড্র হয়। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তাই সিরিজ না হারার এই রেকর্ড ধরে রাখতে চায় পাকিস্তান।

দলটির অধিনায়ক বাবর আজম বলেন, ‘২১ বছর ধরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে টেস্ট সিরিজ হারিনি। এই রেকর্ডটি ধরে রাখতে হবে আমাদের। এজন্য শেষ টেস্টে জিততেই হবে। ব্যাটিং-বোলিংয়ে আরও ভালো করতে হবে আমাদের। আশা করি, শেষ টেস্টে আমরা জিততে পারবো।’

এখন পর্যন্ত টেস্টে পাকিস্তান-ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৫৩ বার মুখোমুখি হয়েছে। জয়ের পাল্লা ভারী পাকিস্তানের দিকেই। পাকিস্তানের জয় ২০টি, ওয়েস্ট ইন্ডিজের জয় ১৮টিতে। ড্র হয়েছে ১৫টি টেস্ট।

এনএস//

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি