বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ০১:৪৯ পূর্বাহ্ন

নরসিংদীতে পথশিশুদের মাঝে খাবার তুলে দিলেন – আশরাফ সরকার

নরসিংদী প্রতিনিধি :: নরসিংদীতে ২১ আগস্ট বর্বরোচিত গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্বরণে নরসিংদী জেলা,সদর ও শহর তাঁতীলীগের যৌথ উদ্যোগে দোয়া ও পথশিশুদের মাঝে খাবার বিতরণ করলেন নরসিংদী শহর আওয়ামী যুবলীগের সাবেক সভাপতি আশরাফ হোসেন সরকার। শনিবার (২১ আগস্ট) দুপুর ১২ টায় নরসিংদী শহরস্থ শেরেবাংলা ক্লাব মাঠে জেলা তাঁতী লীগের আহবায়ক কায়কোবাদ হোসেন কানু’র সভাপতিত্বে ও সদর থানা তাঁতী লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ মহিউদ্দিনের সঞ্চালনায় উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, নরসিংদী শহর যুবলীগের সাবেক সভাপতি ও আওয়ামী লীগ নেতা আলহাজ্ব আশরাফ হোসেন সরকার।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জেলা মুক্তিযোদ্ধা লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মনসুর আহম্মেদ, জেলা যুবলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সুভাষ সাহা, নজরপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ইসমাঈল হোসেন মাস্টার, সদর থানা তাঁতীলীগের সভাপতি আশিকুর রহমান, শহর তাঁতীলীগের আহবায়ক হিরু সরকার, নজরপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা বাবলু গাজী, বীর মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ সবুজ আলী, নজরপুর ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক বাহাউদ্দীন সরকার, আওয়ামী লীগ নেতা আক্তার হোসেন, মুরাদ হোসেন নিছার, শহর যুবলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রিপন মিয়া সহ আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

উল্লেখ্য ২০০৪ সালের ২১ শে আগস্ট বিএনপি-জামাত জোট সরকারের আমলে বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ততকালীন বিরোধীদলীয় নেতা শেখ হাসিনার সভাস্হলে গ্রেনেড হামলা চালিয়ে সাবেক রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের স্ত্রী আইভি রহমানসহ ২৪ জন নেতা-কর্মী নিহত হয়। এরই ধারাবাহিকতায় আজ নরসিংদী জেলা, সদর থানা ও শহর তাঁতীলীগের উদ্যোগে এবং আলহাজ্ব আশরাফ হোসেন সরকার এর নিজস্ব অর্থায়নে উক্ত গ্রেনেড হামলায় সকল শহীদদের স্বরণে ১,০০০ ( একহাজার) পথ শিশু ও এতিমদের মাঝে নিজ হাতে খাবার বিতরণ করেন। খাবার বিতরণ কালে আশরাফ হোসেন সরকার বলেন, আজ ভয়াল ২১ শে আগস্ট।

এদিনে বিএনপি- জামাতের প্রেত্মাতার ঐ সময়ের বিরোধীদলীয় নেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার উপর বর্বরোচিত গ্রেনেড হামলা করে। আইভি রহমানসহ ২৪ জন দলীয় নেতাকর্মী নিহত হয়। তারা কারা? তারা স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তি। সেদিন তারা চেয়েছিলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর মতন আমার মমতাময়ী মা জননেত্রী শেখ হাসিনা কে হত্যা করতে চেয়েছিল। কিন্তু আল্লাহর অশেষ রহমতে আমার নেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা প্রানে বেঁচে গিয়েছিল। আসুন আজকের এদিনে আমরা সবাই একসাথে মিলেমিশে ঐক্যের মাধ্যমে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করি। তিনি আরও বলেন, যদি আমরা ঐক্যে থাকি তাহলে ঐসব অপশক্তিকে দমন করা যাবে। আজকে আমি দাওয়াত করেছি শহরের সকল এতিম ও পথশিশুদের।

কারণ তাদের দোয়ার কল্যাণে আমার নেত্রীকে আল্লাহ হেফাজতে রাখবেন এবং তাদের দোয়ায় আল্লাহ যেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবার এবং ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের জান্নাতের সর্বোচ্চ মাকাম নসিব করেন ( আমিন)। আলোচনা শেষে স্হানীয় দারুল উলুম দত্তপাড়া মাদ্রাসার শিক্ষক মাওলানা আসাদুজ্জামান আসাদ দোয়া ও মিলাদ পরিচালনা করেন। পরে উপস্থিত এতিম ও পথশিশুদের মাঝে আলহাজ্ব আশরাফ হোসেন সরকার নিজ হাতে রান্না করা খাবার তুলে দেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি