মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ০৫:৫৩ অপরাহ্ন

সেতু নয় যেন মরণ ফাঁদ

মোঃ মিজানুর রহমান পটুয়াখালী প্রতিনিধি :: জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দুমকিতে পারাপার হচ্ছে শিক্ষার্থী সহ এলাকাবাসী। পটুয়াখালীর দুমকি উপজেলার লেবুখালী সরকারি হাবিবুল্লাহ উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে ভারানি খালের উপর নির্মিত সেতুটি অতি পুরানো এবং জরাজীর্ণ হওয়ায় এর পিলার ভেঙ্গে মূল অবকাঠামো বেঁকে গিয়ে জনসাধারণ চলাচলে বিঘ্ন ঘটছে।

জীবনের ঝুঁকি নিয়ে লেবুখালী হাবিবুল্লাহ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রায় ১১ শতাধিক শিক্ষার্থী সহ এলাকাবাসীর প্রতিনিয়ত যাতায়াত করতে হচ্ছে এই সেতুটি দিয়ে। এ ছাড়াও ভারানি খালের দুপাশে রয়েছে ৪টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, দুটি নূরানী মাদ্রাসা, ইউনিয়ন ভূমি অফিস, রশি শিল্প এবং খালের পশ্চিম পাড়ে সেতু সংলগ্ন ঐতিহ্যবাহী একটি বাজার, যেটি সপ্তাহে দুই দিন সোম ও শুক্রবার হাট বসে। নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদিসহ কাঁচা বাজার বেচাকেনা করা হয়।

সেতুর ব্যাপারে দুমকি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখআব্দুল্লাহ সাদীদ বলেন, সেতুটি অতি পুরনো হওয়ায়ইতিপূর্বে পরিত্যক্ত ঘোষণা করে উভয় তীরে সাইনবোর্ড সাঁটানো হয়েছে এবং জনসাধারন চলাচলে নিষেধ করা হয়েছে।

লেবুখালী সরকারি হাবিবুল্লাহ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আতিকুল ইসলাম বলেন, উপজেলা প্রশাসনের নিষেধ থাকা সত্বে তার বিদ্যালয়সহ অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সময় বাঁচানোর জন্য এই সেতু দিয়ে পারাপার হচ্ছে। অতি দ্রুত সময়ের মধ্যে সেতুটি সংস্কার করে চলাচলের উপযোগী করার পাশাপাশি নতুন আরেকটি সেতু নির্মাণের জন্য এলাকাবাসীর দীর্ঘ দিনের দাবি করেন।

এব্যাপারে দুমকি উপজেলা প্রকৌশলী আজিজুর রহমান বলেন, ইতিমধ্যে আমরা সেতুটির ব্যাপারে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেছি এবং বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির আওতায় স্কীম পাঠানো হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি