বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:১৩ অপরাহ্ন

বাংলাদেশসহ চার দেশে পুনরায় টিকা রপ্তানি শুরু ভারতের

নিউজ ডেস্ক :: প্রায় আট মাস পর বাংলাদেশসহ চার দেশে পুনরায় টিকা রপ্তানি শুরু করেছে ভারত। অন্য তিনটি দেশ হলো মিয়ানমার, নেপাল ও ইরান। গত এপ্রিল-মে’তে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে বিপর্যস্ত হয়ে টিকা রপ্তানি বন্ধ করে দিয়েছিল ভারত।

নিজ দেশের নাগরিকদের প্রায় এক বিলিয়ন ডোজ টিকা দেওয়ার পর ভারত সরকার বিধিনিষেধ শিথিল করে এবং টিকা রপ্তানি শুরু করে। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের সময় টিকার স্থানীয় চাহিদা মেটাতে বাণিজ্যিক চুক্তিগুলোর কার্যকারিতা বন্ধ রাখে দেশটি। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

কোভ্যাক্সের আওতায় প্রথমে আফ্রিকার দেশগুলোতে পাঠানো টিকার মাধ্যমে রপ্তানি পুনরায় শুরু হয়। চলতি সপ্তাহের শুরুতে অ্যাক্সিওস ওয়েবসাইটকে ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটের প্রধান আধার পুনাওয়ালা জানান, তিনি আশা করছেন কোভিশিল্ড নামের টিকার ডোজ শিগগিরই আফ্রিকার দেশগুলোতে পৌঁছে যাবে।

তিনি বলেন, আশা করি ১০ নভেম্বরের মধ্যে টিকার প্রথম ডোজ আফ্রিকায় পৌঁছে যাবে।একবার শিপমেন্ট শুরু হলে কোভ্যাক্সের আওতায় প্রতি মাসে প্রায় ৩০ মিলিয়ন টিকা সরবরাহ করা হবে।

ভারতে এখন কোভাভ্যাক্স, কোরবেভ্যাক্স, জাইকোভডি ও জেনোভা’স এমআরএনএ-এর মতো বেশকিছু টিকা অনুমোদনের অপেক্ষায় আছে। চলতি সপ্তাহেই সেরাম ইনস্টিটিউটের তৈরিকৃত টিকার প্রথম ৫০ মিলিয়ন ডোজ ইন্দোনেশিয়ায় যাওয়ার কথা। যদিও সেগুলো এখনো ভারতের ডিসিজিআই, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা যুক্তরাষ্ট্রের এফডিএ-এর পক্ষ থেকে সবুজ সঙ্কেত পায়নি। আর ভারত সরকার তার বেশি সংখ্যক নাগরিককে দ্বিতীয় ডোজের আওতায় আনতে জোর চেষ্টা চালাচ্ছে। তাই রপ্তানি পুনরায় শুরু হলেও তা বাধার মুখে পড়বে বলে মনে করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নেতৃত্বে গ্লোবাল অ্যালায়েন্স ফর ভ্যাকসিনস অ্যান্ড ইমিউনাইজেশনস (গাভি) এবং কোয়ালিশন ফর এপিডেমিক প্রিপেয়ার্ডনেস ইনোভেশনস কোভ্যাক্স গঠন করে। বিশ্বের সব মানুষের সংক্রামক রোগের প্রতিষেধক পাওয়া নিশ্চিত করতে এটি গঠন করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি