বৃহস্পতিবার, ১৮ অগাস্ট ২০২২, ১০:২৬ অপরাহ্ন

শিরোনাম
গাজীপুর প্রেসক্লাবে মাসুদুল হক সভাপতি, মাহতাব সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত রেল লাইনে পাথর নেই, মারাত্নক ঝুকি নিয়ে চলাচল করছে ট্রেন ২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে বিহ্মোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয় দেশে পরিবেশ বান্ধব কৃষি ও শিল্প প্রতিষ্ঠান স্থাপনের আহবান বোপমা সভাপতির হাতীবান্ধায় প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণ মামলার মূল আসামী শাহিন গ্রেফতার সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে বরিশালে আ.লীগের বিক্ষোভ মিছিল খেলাপি বৃদ্ধির শীর্ষে ২০ ব্যাংক বিমানবন্দরে ভক্তদের উদ্দেশ্যে যা বললেন শাকিব খান বরিশাল শেবাচিমে অধ্যক্ষের কার্যালয় ঘেরাও করে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ তেলের দাম বাড়ায় ব্যবসায়ীরা সুযোগ নিচ্ছেন: বাণিজ্যমন্ত্রী

প্রতিবেশী দেশগুলোতে অবাধে চলাচলের স্বপ্ন দেখি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক :: ভারতের সঙ্গে আমাদের যে রক্তের সম্পর্ক তা আরও গভীরভাবে উদযাপন করতে চাই উল্লেখ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, ‘আমি তো সেই দিনের আশায় আছি, যেদিন ভারতসহ প্রতিবেশী দেশে চলাফেরা করতে কোনো ভিসা লাগবে না। তাদের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক গভীর। তাদের সঙ্গে আমাদের মাঝে কোনো বেরিয়ার (বাধা) থাকবে না।’

সোমবার (৬ ডিসেম্বর) জাতীয় প্রেস ক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী মিলনায়তনে বাংলাদেশের ঐতিহাসিক প্রথম রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতির ৫০ বছরপূর্তিতে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। সেক্টর কমান্ডারস ফোরাম-মুক্তিযুদ্ধ ‘৭১ এই আলোচনা সভার আয়োজন করে।

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ‘ভারত-পাকিস্তানের লড়াই নয়’ বলে মন্তব্য করেন মন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘এটা ইন্ডিয়া-পাকিস্তানের লড়াই নয়। এটি মুক্তিবাহিনী-মৈত্রীবাহিনী ও বাংলাদেশের স্বাধীনতার যুদ্ধ। এই যুদ্ধে স্বাধীন বাংলাদেশকে সাহায্য করেছে ভারত।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০ বছর উদযাপনের সঙ্গে সঙ্গে ভারতের সঙ্গেও ডিপ্লোম্যাটিক ৫০ বছরপূর্তি উদযাপন করছি। এজন্য দেশবাসীকেও ধন্যবাদ জানাই। যে দল এদেশে স্বাধীনতা নিয়ে এসেছিল তাদের ভোট দিয়ে নির্বাচিত করে আমাদের এই উদযাপনগুলো করার সুযোগ দিয়েছেন।’

ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শুধু বাংলাদেশের উন্নয়ন চান এমন না, তিনি এই এরিয়াগুলোর উন্নয়ন চান। মানুষের উন্নয়ন চান। ভারতের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক যেহেতু সলিড, সোনালী অধ্যায়ে পৌঁছে গেছে। আমাদের যে ছোটখাটো সমস্যাগুলো আছে তা আলোচনার মধ্য দিয়ে সমাধান করা যাবে।’

সভায় ফোরামের আন্তর্জাতিক-বিষয়ক সম্পাদক কামালউদ্দিনের সঞ্চালনায় আরও উপস্থিত ছিলেন, ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী ও ভুটানের রাষ্ট্রদূত রিনচেন কুইনসেল। সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আপন।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি