শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৭:৪৬ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম
পটুয়াখালীতে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এর জন্মদিন পালিত লাঠির সঙ্গে পতাকা নিয়ে এলে খবর আছে: বিএনপিকে কাদের গাজীপুর সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রীর ৭৬ তম জন্মদিন উপলক্ষে দোয়া অনুষ্ঠিত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন আজ দুমকিতে বাল্য বিয়ে প্রতিরোধ বিষয়ক সমন্বয় সভা সুন্দরগঞ্জে বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার ৭৬ তম জন্মবার্ষিকী পালিত বাধ্য না হলে র‌্যাব গুলি ছোড়ে না: বিদায়ী ডিজি ময়মনসিংহের ভালুকায় সুতার কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, ২৫ লাখ টাকার ক্ষয়-ক্ষতি কল ড্রপ হলেই ক্ষতিপূরণ পাবেন গ্রাহক সাকিব-মোস্তাফিজ-সোহানের পর দল পেলেন তাসকিন

সমর্থনহীন সরকার ভারতের সঙ্গে সমস্যা সমাধানে ব্যর্থ: ফখরুল

নিউজ ডেস্ক :: বর্তমান সরকার জনগণের ‘সমর্থনহীন’ বলেই ভারতের সঙ্গে অভিন্ন সমস্যাগুলোর সমাধান করতে পারছে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘ভারতের সঙ্গে আমাদের যে অভিন্ন সমস্যাগুলো আছে, অভিন্ন নদীর পানিবণ্টন সমস্যা, সীমান্তে বাংলাদেশের নাগরিকদের হত্যা ও অন্যান্য যে সমস্যা তা সমাধানে বাংলাদেশ সরকার এখন পর্যন্ত কিছুই করতে পারেনি।’

ফখরুল বলেন, ‘পারেনি এ কারণ যে, তাদের পেছনের জনগণের সমর্থন নেই। এটাই হচ্ছে বড় কারণ। সেজন্য এখন পর্যন্ত সেই শক্তি নিয়ে এ সরকার কোনো কাজ করতে পারেনি। ’মঙ্গলবার (৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে শেরেবাংলা নগরে দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের কবরে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বিএনপি মহাসচিব এসব কথা বলেন।

জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের নতুন সভাপতি এস এম জিলানী ও সাধারণ সম্পাদক রাজীব আহসানের নেতৃত্বে শেরেবাংলা নগরে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরের প্রসঙ্গ টেনে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আমি গতকালও বলেছি, উনি (শেখ হাসিনা) তো প্রত্যেকবার গেছেন। আমাদের অনেক আশা দিয়ে গেছেন। তিস্তা চুক্তি সই হবে, ওমুক হবে, তমুক হবে- সেটা এখন পর্যন্ত কোনোটাই হয়নি।’

তিনি বলেন, ‘আপনারা নিশ্চয়ই লক্ষ্য করেছেন যে, ১০০ বিলিয়ন ডলার সাহায্য দিয়েছিল। সেটারও মাত্র ৩০ শতাংশ কাজ হয়েছে। আর কোনো কাজ হয়নি। এ বিষয়গুলো নির্ভর করে জনগণের শক্তির ওপরে। জনগণ যদি এ সরকারকে সমর্থন দিতো, তাহলে সব কাজই এরইমধ্যে হয়ে যেতো। আমি আবারও বলছি, ওনি ফিরে আসুন। কী কী আনছেন বাংলাদেশের মানুষের জন্য, সেটাই হবে এ সফরের সাফল্য।’

ফখরুল বলেন, ‘আমরা বিশ্বাস করি, গোটা গণতান্ত্রিক বিশ্বে বাংলাদেশের জনগণের যেটা মূল চাহিদা, তা হলো গণতান্ত্রিক সরকার। সুষ্ঠু অবাধ নির্বাচন। সেই ব্যাপারে বিশ্বের গণতান্ত্রিক দেশের সরকারগুলো তাদের ভূমিকা পালন করবে।’

মিয়ানমার ইস্যু প্রসঙ্গে বিএনপি মহাসচিব বলেন, দীর্ঘ ১৫ বছরের অভিজ্ঞতায় আমরা দেখেছি, এ সরকার যেহেতু জনগণের দ্বারা নির্বাচিত নয়, জনগণের ম্যান্ডেট নিয়ে আসেনি। ফলে তাদের পক্ষে বহির্বিশ্বে কোনো চুক্তি করা, স্বার্থ রক্ষা করা অত্যন্ত দুরূহ কাজ। এটা আমরা লক্ষ্য করেছি মিয়ানমারেরও ক্ষেত্রে। এখন পর্যন্ত মিয়ানমারে এ সরকার কোনো ব্রেক থ্রো করতে পারেনি।’

তিনি আরও বলেন, ভয়াবহ কাণ্ড হচ্ছে মিয়ানমার বার বার বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বকে বিনষ্ট করে মর্টার ছুড়ছে, গোলা মারছে। কিন্তু সরকারের নতজানু পররাষ্ট্রনীতির কারণে একটি প্রতিক্রিয়া ছাড়া কোনো কিছু করার সাধ্য তাদের নেই।’

এসময় বিএনপি ভাইস চেয়ারম্যান ও চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, যুবদলের সভাপতি সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু, স্বেচ্ছাসেবক দলের নতুন কমিটির সহ-সভাপতি ইয়াছিন আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক নাজমুল হাসান, সাবেক সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান প্রমুখ।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি