মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ০৯:১৭ অপরাহ্ন

বর্তমান সরকার সবচেয়ে বেশি বরাদ্দ দিয়েছে শিক্ষা খাতে – মুজিবুল হক এমপি

আবদুল মান্নান, চৌদ্দগ্রাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধি : সারা দেশের বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের সাথে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের ৩টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৩টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও ২ টি মাদ্রসা ভবনের নির্মাণ প্রকল্প ভার্চুয়ালী উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ উপলক্ষে চৌদ্দগ্রাম উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে গতকাল মঙ্গলবার সকাল সাড়ে নয়টায় ভিডিও কনফারেন্সে অংশগ্রহণ করেন, কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সাবেক রেলপথ মন্ত্রী, বীর মুক্তিযোদ্ধা মুজিবুল হক এমপি। চৌদ্দগ্রাম উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মুজিবুল হক এমপি বলেন, আওয়ামী লীগ শিক্ষা বান্ধব সরকার।

এ দেশে শিক্ষক ও শিক্ষাঙ্গনের ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে । আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসায় এবং আমি এমপি হওয়ার পরই কেবল চৌদ্দগ্রামবাসী উন্নয়ন কর্মকাণ্ড দেখেছেন। সারা চৌদ্দগ্রামে বেশীরভাগ সরকারি ভবন, স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসায় নতুন নতুন ভবন নির্মাণ করে দেওয়া হয়েছে। বর্তমান সরকার সবচেয়ে বেশি বরাদ্ধ দিয়েছে শিক্ষা খাতে। সেই বরাদ্ধ কাজে লাগিয়ে আমরা চৌদ্দগ্রামসহ সারাদেশে শিক্ষাখাতে ব্যাপক উন্নয়ন করেছি।

তিনি আরো বলেন, চৌদ্দগ্রামের সকল প্রশাসনিক কর্মকর্তা, সকল জনপ্রতিনিধির সাথে রয়েছে আমার সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক। আমি আপনাদের ভোটে এমপি নির্বাচিত হয়ে অবহেলিত বঞ্চিত চৌদ্দগ্রামের ব্যাপক উন্নয়ন করেছি যা আপনারা অবগত রয়েছেন। আমি চৌদ্দগ্রামের সর্বস্তরের মানুষের কল্যাণে কাজ করেছি। জীবনে কারও সাথে বেইমানি করিনি। আমার বিশ্বাস চৌদ্দগ্রামের সর্বস্তরের জনতা আমার পাশে আছেন। ইনশাআল্লাহ আগামী নির্বাচনে জনগণের ভোটে ও ভালোবাসায় আমি আবারও বিজয়ী হবো।

এসময় তিনি শিক্ষার উন্নয়ন ও সরকারের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষায় আওয়ামী লীগ তথা নৌকার পক্ষে কাজ করার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান। উপজেলা নির্বাহী অফিসার তানভীর হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন চৌদ্দগ্রাম উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি ও পৌর মেয়র জিএম মীর হোসেন মীরু, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) তমালিকা পাল, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ রহমত উল্লাহ বাবুল, চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ত্রিনাথ সাহা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এবিএম এ বাহার, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রাশেদা আখতার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আকতার হোসেন পাটোয়ারী, উপজেলা সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবুল হাশেম চেয়ারম্যান প্রমূখ।

অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, শিক্ষক, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ও উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। উপজেলা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অফিস ও শিক্ষা প্রকৌশল অফিস সূত্রে জানা গেছে, সাড়ে ১৬ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত নান্দনিক এসব ভবনের মধ্যে ২ কোটি ৯৭ লাখ ৩৫ হাজার টাকা ব্যয়ে পৌরসভাধিন চৌদ্দগ্রাম ফয়জুন্নেছা মহিলা মাদরাসার চারতলা একাডেমিক ভবন, ২ কোটি ৯৪ লাখ ৬৯ হাজার টাকা ব্যয়ে উপজেলার মুন্সীররহাট ইউনিয়নের বসন্তপুর ইসলামিয়া বালিকা দাখিল মাদরাসার চারতলা একাডেমিক ভবন, ২ কোটি ৮৮ লাখ ২১ হাজার টাকা ব্যয়ে উপজেলার উজিরপুর ইউনিয়নের ভাটবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের চারতলা একাডেমিক ভবন, ২ কোটি ৮৮ লাখ ২৯ হাজার টাকা ব্যয়ে উপজেলার শ্রীপুর ইউনিয়নের চৌমুহনী মুজিবুল হক উচ্চ বিদ্যালয়ের চারতলা একাডেমিক ভবন, ২ কোটি ৫১ লাখ ৪১ হাজার টাকা ব্যয়ে উপজেলার বাতিসা ইউনিয়নের বাতিসা উচ্চ বিদ্যালয়ের চারতলা একাডেমিক ভবন, ৭৩ লাখ ২৮ হাজার ২০২ টাকা ব্যয়ে শুভপুর ইউনিয়নের পদুয়া খামারপুষ্করণী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভবন, ৮৯ লাখ ৬৫ হাজার ৯৬৫ টাকা ব্যয়ে একই ইউনিয়নের হাজারীপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভবন ও ৬৪ লাখ ৪৩ হাজার ৫৩৪ টাকা ব্যয়ে কনকাপৈত ইউনিয়নের তারাশাইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভবন নির্মাণ করা হয়।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগিতায়: