রবিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২২, ০৭:০১ অপরাহ্ন

ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজারবাইজানে উদযাপিত

বাঙলার জাগরণ ডেস্ক :: আজারবাইজানের মাটিতে প্রথমবারের মতো উদযাপিত হলো বাংলাদেশ ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী। করোনাকলে সীমিত আয়োজনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে আজারবাইজান টেকনোলোজিক্যাল ইউনিভার্সিটির বৈঠকখানায় শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের উপস্থিতিতে এক অনুষ্ঠানে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত হয়। আজারবাইজানে শিক্ষারত বাংলাদেশি ছাত্র শাশ্বত রায়কে আহবয়ক করে সেখানে ছাত্রলীগের একটি কমিটি গঠন করা হয়।

সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আজারবাইজান টেকনোলোজিক্যাল ইউনিভার্সিটির আন্তর্জাতিক সম্পর্ক দপ্তরের সাধারণ ব্যবস্থাপিকা ইলাহা কুরবানোভা। তিনি বলেন, “বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের এই আয়োজনে আমরা খুবই আনন্দিত। ২০২০ সালটা আমাদের জন্য একটা স্মরণীয় সাল। কারণ এই বছর আমরা আমাদের নাগোরনো-কারাবাখ প্রদেশটি ভিনদেশীদের দখলদারিত্ব থেকে মুক্ত করতে পেরেছি। আমরা আশা করি ধীরে ধীরে আজারবাইজান এবং বাংলাদেশের মাঝে সৌহার্দ্যপূর্ণ ক‚টনৈতিক সম্পর্ক গড়ে উঠবে।”

শাশ্বত রায় তার বক্তব্যে বলেন, ‘করোনাভাইরাস মহামারীতে আজারবাইজান সরকার জনসমাবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করায় সীমিত পরিসনে দিবসটি উদযাপন করতে হল। আমরা বৃহৎ কলেবরে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করবো।’
অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন অস্থায়ী কমিটির যুগ্ম আহŸায়ক মো: রাহুল হাসান। তিনি বলেন, ‘অন্তরে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণকারী অনেক শিক্ষার্থীই পড়াশোনা করছেন আজারবাইজানে। কিন্তু সাংগঠনিক কার্যক্রমের অভাবে এই পর্যন্ত তারা একতাবদ্ধ হতে পারেননি। আশা করি, অদূর ভবিষ্যতে বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সমর্থনে আমরা আজারবাইজান ছাত্রলীগ শাখা কমিটি গঠন পূর্বক এখানে অফিশিয়াল কার্যক্রম শুরু করতে পারবো।’ লকডাউনের কারণে যেসকল কর্মী সভায় উপস্থিত হতে পারেননি, তারা জুম অ্যাপের মাধ্যমে সভায় অংশ নেন।

বেলা বারোটায় কেক কাটার মাধ্যমে সভায় উপস্থিত শিক্ষকমÐলী ও ছাত্রছাত্রীদের বাংলাদেশ ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর শুভেচ্ছা জানানো হয়। অত:পর অস্থায়ী কমিটির অপর যুগ্ম আহবায়ক এবং বিশিষ্ট উপদেষ্টা মোঃ হেদায়েতুর রহমান লিমনের তত্ত্যবধানে গ্যানজা এবং বাকু শহরের বিভিন্ন এলাকায় পথচারীদের হাতে উপহার হিসেবে এন-৯৫ মাস্ক তুলে দেওয়া হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি