রবিবার, ০৯ মে ২০২১, ০৮:০৫ পূর্বাহ্ন

বসুরহাট পৌরসভায় বিপুল ভোটে জয়ী হলেন আবদুল কাদের মির্জা

মুজাহিদুল ইসলাম সোহেল, নোয়াখালী প্রতিনিধি : বহুল আলোচিত নোয়াখালী বসুরহাট পৌরসভা নির্বাচনে ১০ হাজার ৭৩৮ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রার্থী ও দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই আবদুল কাদের মির্জা।

জেলা নির্বাচন ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. রবিউল আলম শনিবার বিকালে মোট ৯টি কেন্দ্রের ফলাফল ঘোষণা করেন ।

আবদুল কাদের মির্জার নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী বিএনপির প্রার্থী (ধানের শীষ) কামাল উদ্দিন চৌধুরী পেয়েছেন ১ হাজার ৭৭৮ ভোট। এছাড়া জামায়াত সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী (মোবাইল ফোন) মোশারফ হোসেন পেয়েছেন ১ হাজার ৪৫১ ভোট।

নির্বাচনে জয়ের পর আবদুল কাদের মির্জা ভোটের পরিবেশে সন্তোষ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, ভোটারদের দেয়া প্রতিশ্রুতি পূরণ না করা পর্যন্ত বিজয়ের মালা পরব না।

শনিবার সকাল ৮টা থেকে শুরু হওয়া এ ভোটগ্রহণ বিরতিহীনভাবে চলছে বিকাল ৪টা পর্যন্ত।

বসুরহাট পৌরসভায় প্রথম ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। সকাল থেকে প্রতিটি কেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি ছিল লক্ষণীয়। যার মধ্যে নারী ভোটার বেশি। আলোচিত এ পৌরসভায় বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এর ভাই আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী আবদুল কাদের মির্জা নৌকা, বিএনপি প্রার্থী কামাল উদ্দিন চৌধুরী ধানেরশীষ ও জামায়াত সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী মাওলানা মোশারফ হোসাইন মোবাইল প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্ব›িদ্বতা করছেন। এছাড়াও সাধারন কাউন্সিলর পদে ২৫ ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৭জনসহ মোট ৩৫জন ভোট যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছে।

এদিকে নির্বাচনে সকল ধরনের সহিংসতা রোধে ৯টি কেন্দ্রে ৯জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ১জন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্টেট, ৩টি টিমে ২৪জন র‌্যাব, ৮০জনের ৪ প্লাটুন বিজিবি এবং ২শ পুলিশ সদস্য মোতায়েন রয়েছে। এছাড়াও প্রতিটি কেন্দ্রে নিরাপত্তা ও আইন-শৃংঙ্খলার স্বাভাবিক রাকতে ৫জন পুলিশ ও ১৩ জন আনসার সদস্য ও ৩টি কেন্দ্রের জন্য একটি স্ট্রাইকিং ফোর্স ও ৭টি জরুরি টিম রাখা হয়েছে।

সকাল থেকে পৌরসভার উদয়ন প্রি-ক্যাডেট একাডেমি, বসুরহাট এএইচসি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, মওদুদ আহমদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ কয়েকটি কেন্দ্র ঘুরে ভোটারদের উপস্থিতি দেখা গেছে। প্রথমবার ইভিএম পদ্ধতিতে ভোটগ্রহণ হওয়ায় ভোটারদের আগ্রহও ছিল লক্ষণীয়। তবে প্রতিটি কেন্দ্রে পুরুষদের তুলনায় নারী ভোটারদের উপস্থিতি বেশি। এদিকে সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ১নং কেন্দ্র উদয়ন প্রিক্যাডেট একাডেমি কেন্দ্রে আওয়ামীলীগ প্রার্থী, সকাল ৯টার দিকে ৫নং বসুরহাট এএইচসি কেন্দ্রে বিএনপি প্রার্থী ও ৮নং বসুরহাট ইসলামিয়া সিনিয়র মাদ্রাসা কেন্দ্রে নিজেদের ভোট দিয়েছে স্বতন্ত্রপ্রার্থী। তবে সকাল থেকে কোন কেন্দ্রে বিশৃঙ্খলার ঘটনা ঘটেনি। তিনজন প্রার্থীই জানিয়েছেন প্রতিটি কেন্দ্রে শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ চলছে।

জেলা নির্বাচন ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. রবিউল আলম বলেন, ভোটগ্রহণে প্রায় ৭০ শতাংশ ভোট সম্পন্ন হয়েছে। প্রতিটি কেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি রয়েছে এবং শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ চলছে। পৌরসভাটিতে মোট ভোটার রয়েছে ২১হাজার ১শ ১৫জন। যার মধ্যে পুরুষ ১০হাজার ৬শ ২১ এবং মহিলা ভোটার রয়েছে ১০হাজার ৪শ ৯৪জন। ৯টি কেন্দ্রে মোট বুথ সংখ্যা রয়েছে ৬১টি।
১৯৯০ সালে প্রতিষ্ঠিত বসুরহাট পৌরসভার মোট জনসংখ্যা প্রায় ৪০ হাজার। ভোটার সংখ্যা ২১ হাজার ১১৫ জন। যার মধ্যে নারী ভোটার ১০ হাজার ৪৯৪ জন, পুরুষ ভোটার ১০ হাজার ৬২১ জন।বসুরহাট পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের মেয়র প্রার্থী আবদুল কাদের মির্জা, বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী কামাল উদ্দিন চৌধুরী, জামায়াত সমর্থিত স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী মোশাররফ হোসেনসহ তিনজন, কাউন্সিলর পদে ২৫ জন ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে সাতজনসহ মোট ৩৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্ব›িদ্বতা করছেন।

নোয়াখালীর পুলিশ সুপার মো. আলমগীর হোসেন জানান, ভোটগ্রহণে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখতে মাঠে রয়েছে পুলিশ, বিজিবি ও আনসারের ৪০০ সদস্য। বিজিবির ৪ প্লাটুন, পুলিশের মোবাইল টিম ৯টি, স্ট্রাইকিং টিম দুইটি, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্যাট ৯ জন ও জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাঠে রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি