মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ০২:৫৭ অপরাহ্ন

শিরোনাম
চাটখিলে ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকনকে অব্যাহতি দেয়ায় আনন্দ মিছিল  চৌদ্দগ্রামে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে গৃহবধূর মৃত্যু ট্রেনে পায়ের আঙুল কাটা পড়েছে অধ্যাপক আনু মুহাম্মদের ঈদে ১৪ টি মিউজিক ভিডিও মুক্তি পেয়েছে প্রিন্স খানের চাটখিলে পৈত্রিক সম্পত্তি জবরদখলে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তপ্তদেহ শীতল করতো গাছের নিচে বসেই, গাছ না থাকায় এত গরম সরকার হজযাত্রীদের সর্বোত্তম সেবা দিতে বদ্ধপরিকর-ধর্মমন্ত্রী দেশের স্বার্থ বিরোধী কাজের সাথে যারাই জড়িত, তারাই মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী – আনু মুহাম্মদ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে  প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে হবে- সুবর্ণচর উপজেলা আ.লীগ হাতিয়ার উন্নয়নে সরকারের স্মার্ট বাংলাদেশ কর্মসূচিকে কাজে লাগানো হবে – মোহাম্মদ আলী এমপি

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে খোকন বাহিনীর প্রধান খোকন ডাকাত আটক

নোয়াখালী প্রতিনিধি :: নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার চর হাসান গ্রামের ভূঁইয়ারহাট থেকে হাতিয়ার মেঘনা ও গাসিয়াস চরাঞ্চলের ত্রাস এবং অস্ত্র মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী খোকন বাহিনীর প্রধান ওরফে খোকন ডাকাত (৫০) কে আটক করেছে চর জব্বর থানা পুলিশ। আটককৃত খোকন লক্ষীপুর জেলার রামগতি উপজেলার চর আবদুল্যা ইউনিয়নের চর গজারিয়া এলাকার ইসলাম মাঝির ছেলে।

চর জব্বর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. ইব্রাহিম খলিল বলেন, বুধবার রাত সাড়ে আটটার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সুবর্ণচরের চর হাসান গ্রামের ভূঞারহাট থেকে তাকে আটক করা হয়। সে চরজব্বর থানার একটি অস্ত্র মামলায় আদালত কর্তৃক ওয়ারেন্টভূক্ত আসামী।

তিনি আরও জানান, বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় আটককৃত খোকন ডাকাতকে আদালতে হাজির করলে, বিজ্ঞ বিচারক তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করে।

উল্লেখ্য, বিগত কয়েক বছর ধরে খোকন লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি উপজেলার চর আবদুল্লাহ ইউনিয়নের দুর্গম চর গজারিয়া-তেলিরচরে ঘাঁটি গড়ে। এখান থেকেই লক্ষ্মীপুরের রামগতি, নোয়াখালীর হাতিয়া ও সুবর্ণচর, ভোলার মনপুরা ও তজুমদ্দিন উপজেলার মেঘনা নদীর মোহনা এলাকায় অনেকটা নির্বিঘে চলছে তার ডাকাতি, চাঁদাবাজি, অপহরণ, বন উজাড়, চরের জমি দখল ও বিক্রি। তিন জেলায় তার অপকর্মের সঙ্গী তিন ভাইসহ ৪০ অনুসারী। তারা হলো ভাই খসরু, জমির, ফখরুল ইসলাম ফখরা, অনুসারী শেখ ফরিদ ওরফে শেকু, ওয়াজ উদ্দিন, ফখরুল, মফিজ, জমির, শেখ ফরিদ, নজরুল ইসলাম, আজিম, আবদুর রব, ইউছুফ, মুরাদ, মিরাজ, ফেরদাউস, সাদ্দাম, মো. শহিদ, রিয়াজ, আবু তাহের, মতিন, মহিউদ্দিন, আজাদ, আরজু ওরফে আরজুন্নাহ, মনির, বেলাল, মাকসুদ, ছোট রিয়াজ, আবুল খায়ের, ভুট্টু, নাছির, সেলিম, মিজান, জাকের, জসিম, আলমগীর, ইব্রাহিম, হুমায়ুন প্রমুখ। তাদের দিয়েই চাঁদাবাজি, অপহরণ, নারী নির্যাতন, ডাকাতি, জমি দখল ও বিক্রি করা হয়। তাদের প্রায় প্রত্যেকের বিরুদ্ধে লক্ষ্মীপুর, নোয়াখালী ও ভোলার বিভিন্ন থানায় হত্যা, চাঁদাবাজি, ডাকাতিসহ একাধিক মামলা রয়েছে।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগিতায়: