বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:৪০ অপরাহ্ন

ব্রিটিশ মিডিয়ায় শীর্ষ তরুণ ব্যবসায়ীর তালিকায় বাংলাদেশী হারুন

নিউজ ডেস্ক :: হারুন দানিছ। একজন তরুণ বাংলাদেশী উদ্যেক্তা। জন্ম লন্ডনে। কিন্তু বেড়ে ওঠা ও স্কুল, কলেজ শেষ করেছেন ওয়েলসে। বর্তমানে তিনি বাস করছেন ম্যানচেস্টারে। চারটি দেশের সমন্বয়ে গঠিত যুক্তরাজ্যের একটি হচ্ছে ওয়েলস। যার রাজধানী কার্ডিফ।

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে পরিপূর্ণ ৩ দশমিক ১৫ মিলিয়ন জনসংখ্যার এই দেশটিতে বাংলাদেশী মাত্র হাজার দশেক। তবে এই ক্ষুদ্র কমিউনিটির মধ্যে বৃহৎ সাফল্য পেয়েছেন অনেকেই। হারুন দানিছ তাদের মধ্যে অন্যতম। যিনি অর্থনৈতিক মন্দাবস্থায় প্রসার ঘটিয়েছেন তার ব্যবসার। পেয়েছেন সাফল্যও।

২০২০ সালের ওয়েলসের তরুণ উদ্যোক্তা হিসেবে তিনি স্থান করে নিয়েছেন জাতীয় গণমাধ্যমে। সম্প্রতি জাতীয় পত্রিকা ওয়েলস অনলাইনে ৩৫ জন সফল তরুণ উদ্যোক্তাদের একটি তালিকা প্রকাশ করেছে। যাদের মধ্যে একমাত্র বাংলাদেশী হিসেবে ৭ম স্থানে রয়েছে হারুন।

নতুন প্রজন্মের উদ্যোক্তা হিসেবে বেশ সফল হয়েছেন ৩৪ বছর বয়সী হারুন দানিছ। শুরুতে হারুনের ব্যক্তিগত উদ্দেশ্য ছিল মানুষকে নিজের ত্বকের ব্যাপারে আনন্দিত করা। এই ধারণাই পরবর্তীতে তাকে অপারেশন বিহীন স্কিন কেয়ার মার্কেটে প্রবেশ করায় এবং সাশ্রয়ী মূল্যে ত্বকের চিকিৎসা মানুষের দোর গোড়ায় পৌঁছে দেবার প্রেরণা যোগায়। যার জন্য তিনি পুরো ভিন্ন আঙ্গিকে এই স্কিন কেয়ার ক্লিনিকের শাখা ছড়িয়েছেন। যেখানে জিম ষ্টাইল মেম্বারশীপের আদলে ভিন্ন বয়সী সাধারণ মানুষ স্কিনের যত্নে অত্যন্ত ভাল মানের সেবা পেতে পারেন।

ইউকে স্কেল আপ ইন্সটিটিউটের তথ্য মতে, মাত্র তিন বছরে হারুন তার প্রতিষ্ঠান স্কিন হেইচ কিউকে বৃটেনের টপ ১℅ ব্যবসায়িক প্রবৃদ্ধি অর্জনের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করেন। আন্তর্জাতিক ভোক্তা রিভিউ সংস্থা ট্রাস্ট পাইলট রেটিং (৪.৫ স্টার) সমৃদ্ব গুণগত মান ও লোকমূখে প্রচারিত সুনাম স্কিন হেইচ কিউ ক্লিনিকগুলোর সাফল্যে পরিপূর্ণতা এনে দিয়েছে।

তিনি বিশ্বাস করেন এই প্রাপ্তি তাকে সামনে এগিয়ে যেতে শুধু প্রেরণাই যোগায়নি বরং নতুন উদ্যোক্তাদেরকে ও অনুপ্রানিত করবে।
এসএ/

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি