রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১:১৯ অপরাহ্ন

শিরোনাম
উজিরপুরে সৎসঙ্গ ফাউন্ডেশনের সেমিনার অনুষ্ঠিত শিবালয়ে গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্যবাহী লাঠিবাড়ি খেলা অনুষ্ঠিত লঞ্চের দড়ি ছিঁড়ে ৫ জনের মৃত্যু : আসামিদের তিন দিনের রিমান্ড ঈদের দিনে সদরঘাটে দুর্ঘটনায় ঝরল ৫ প্রাণ সৌদির সাথে মিল রেখে নোয়াখালীর ৪ গ্রামে ঈদ উদযাপন নোয়াখালীতে দুর্বৃত্তরা ঘর আগুনে পুড়ে দিয়েছে, ১০ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি সুবর্ণচরে মানব কল্যাণ সংস্থার উদ্যোগে হতদরিদ্র ও অসহায়দের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ  ঢাকা আরিচা মহাসড়কের মসুরিয়ায় নামে এক অজ্ঞাত ব্যাক্তি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত চাটখিলে ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ সংবাদপত্রে ছুটি ৯-১৪ এপ্রিল : নোয়াব

বঙ্গমাতার নামে পদক দেবে সরকার

নিউজ ডেস্ক :: জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহধর্মিণী বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের নামে পদক দেবে সরকার। বঙ্গমাতার অবদান চিরস্মরণীয় করার লক্ষ্যে রাষ্ট্রীয় এই পদক চালু করা হচ্ছে। বিভিন্ন ক্ষেত্রে নারীদের গুরুত্বপূর্ণ অবদান ও গৌরবোজ্জ্বল ভূমিকার স্বীকৃতি দিতে এ পদক দেওয়া হবে।

রাজনীতি, অর্থনীতি, শিক্ষা ও সংস্কৃতি, সমাজসেবা, স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধ, স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক গবেষণা এবং সরকার কর্তৃক নির্ধারিত অন্য যে কোনো ক্ষেত্রে প্রতি বছর পাঁচ জনকে এ পদক দেয়া হবে। তবে সরকার প্রযোজ্য ক্ষেত্রে কোনো বছর উপযুক্ত প্রার্থী না পেলে পদক সংখ্যা কমে আসতে পারে।

পদকপ্রাপ্ত নারীদের ১৮ ক্যারেট মানের ৪০ গ্রাম স্বর্ণ দিয়ে নির্মিত পদক, পদকের একটি রেপ্লিকা, ক্রসড চেকের মাধ্যমে চার লাখ টাকা এবং সম্মাননা সনদ দেওয়া হবে। মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী/প্রতিমন্ত্রীর নেতৃত্বাধীন এ-সংক্রান্ত বাছাই কমিটিতে ছয়জন সচিব ও একজন অতিরিক্ত সচিব থাকবেন। কমিটি যাচাই-বাছাই করে উপযুক্ত প্রার্থী নির্বাচিত করবে। এ লক্ষ্যে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব পদক নীতিমালা-২০২০ প্রণয়ন করেছে মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়। প্রণীত নীতিমালা আগামীকাল বৃহস্পতিবার প্রশাসনিক উন্নয়ন-সংক্রান্ত সচিব কমিটির সভায় অনুমোদনের জন্য মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে পাঠোনো হয়েছে।

উল্লেখ্য, বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণী এবং তার রাজনৈতিক, সামাজিক ও পারিবারিক জীবনে সর্বক্ষণের সহযোগী, অনুপ্রেরণাদানকারী মহীয়সী নারী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ১৯৩০ সালের ৮ আগস্ট গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জন্ম নেন। বঙ্গমাতা সমাজে অন্যায়, অবিচারের বিরুদ্ধে প্রতিনিয়ত রুখে দাঁড়িয়েছেন। মানুষের অজ্ঞতা, যুক্তিহীনতা, কুসংস্কার ইত্যাদি দূর করতে সোচ্চার ছিলেন তিনি।
এসএ/


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগিতায়: