মঙ্গলবার, ১৮ Jun ২০২৪, ০১:৩২ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম
মানিকগঞ্জের দৌলতপুরে বঙ্গবন্ধু বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত শিক্ষার্থী নির্যাতন প্রতিরোধে মাদরাসা প্রধানদের সাথে পুলিশের মতবিনিময় সভা মালয়েশিয়ায় ১২৩ বাংলাদেশীসহ ২১৪ অবৈধ অভিবাসী গ্রেপ্তার বেনজিরের আরও সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ মডেল মির্জা মাহির প্রথম মিউজিক ভিডিও “কিশোরী রোদ” জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল এর সাংগঠনিক সম্পাদক আমান ডেঙ্গু জ্বর আক্রান্ত শিবালয়ে ভূমি সেবা সপ্তাহ শুরু উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা রাজশাহী নগরীতে পুলিশের অভিযানে গ্রেপ্তার ২৫ চৌদ্দগ্রামে ভূমি সেবা সপ্তাহ’র ২০২৪ উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন কবে, জানালেন ওবায়দুল কাদের

নোয়াখালীতে হত্যার উদ্দেশ্য একই পরিবারের ৩জন আহত

নোয়াখালী থেকে নজরুল ইসলাম পাটওয়ারী : নোয়াখালী সদর উপজেলা চরমটুয়া ইউনিয়নে পশ্চিম ভ্রম্মপুর, স্থানীয় মোমিন উল্যার ৩ ছেলে মনির হোসেন, আনোয়ার হোসেন ও রাশেদকে হত্যার উদ্দেশ্য কুপিয়ে আহত করা হয়েছে।
পার্শ্ববর্তী বাড়ির আব্দুর রবি ওরপে লেদুর ছেলে জাকের ও তার ছেলে রহমানসহ কয়েকজন ভাড়া করা সন্ত্রাসী দিয়ে এই হামলা করে।

গতকাল শুক্রবার তারাবির নামাজ শেষ করে বাড়ি ফেরার পথে এই হামলা করা হয়। তারা চাপাতি, হাতুড়ি, লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত ভাবে আহত করে। এদের মধ্যে মনিরের অবস্থা আশঙ্কা জনক। তারা তিনজন নোয়াখালী সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দিন অবস্থায় আছে।

জানা যায় মোমিন উল্যার ভাই সায়েদুল হোক (১২৩) বৃদ্ধ লোকটি বাড়ির বাইরে থাকার সুবাধে জাকের সহ তার ছেলেরা মিলে বৃদ্ধার বসত ঘর লুটপাট করে নিয়ে যায় এবং তার ভিটে মাটি দখলে নেয়। এই ঘটনা মোমিন উল্যাহ বাদী হয়ে থানায় মামলা করার পরিপ্রেক্ষিতে জাকের ও তার পরিবার মোমিন উল্যার পরিবারকে প্রাণ নাশের হুমকি দিয়ে আসছে।

আর সুযোগ বুঝে গতকাল গভীর রাতে এমন ন্যক্কার জনক হামলা করে। ভূক্তভোগীর পরিবার ও এলাকাবাসী জানায় পূর্বের মামলা কোন আসামী গ্রেপ্তার না হওয়া তারা উশৃংখল হয়ে এমন ঘটনা ঘটায়।

নোয়াখালী সুধারাম থানার উপ পরিদর্শক আবদুস শুক্কুর ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন দুর্যোগ পরিস্থিতির কারনে পূর্বের মামলা তাদেরকে আইনের আওতায় আনা সম্ভব হয়নি। এখন এই ঘটনার জন্য নতুন করে অভিযোগ দেওয়ার জন্য বলেন।আসামীদের আইনের আওতায় আনার জন্য চেষ্টা চালাচ্ছি।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগিতায়: