শনিবার, ১৫ Jun ২০২৪, ০২:৪৭ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম
মানিকগঞ্জের দৌলতপুরে বঙ্গবন্ধু বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত শিক্ষার্থী নির্যাতন প্রতিরোধে মাদরাসা প্রধানদের সাথে পুলিশের মতবিনিময় সভা মালয়েশিয়ায় ১২৩ বাংলাদেশীসহ ২১৪ অবৈধ অভিবাসী গ্রেপ্তার বেনজিরের আরও সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ মডেল মির্জা মাহির প্রথম মিউজিক ভিডিও “কিশোরী রোদ” জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল এর সাংগঠনিক সম্পাদক আমান ডেঙ্গু জ্বর আক্রান্ত শিবালয়ে ভূমি সেবা সপ্তাহ শুরু উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা রাজশাহী নগরীতে পুলিশের অভিযানে গ্রেপ্তার ২৫ চৌদ্দগ্রামে ভূমি সেবা সপ্তাহ’র ২০২৪ উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন কবে, জানালেন ওবায়দুল কাদের

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে হত্যা মামলার সাক্ষ্য দেয়ায় হত্যার চেষ্টা

মুজাহিদুল ইসলাম সোহেল, নোয়াখালী প্রতিনিধি : নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চরএলাহি ইউনিয়নে ব্যবসায়ী মো. রাশেদ রানা হত্যার ঘটনায় দায়ের করা মামলার সাক্ষী রাজিব খান (৩২) কে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। এসময় হামলাকারীরা তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ভাঙচুর ও নগদ টাকাসহ মালামাল লুট করে নিয়ে গেছে বলে অভিযোগ করেন রাজিব খান।

সোমবার সন্ধ্যায় গাংচিল বাজারে এ হামলার ঘটনা ঘটে। আহত রাজিব খান চরএলাহী ৮নং ওয়ার্ডের জামাল উদ্দিনের ছেলে।

আহত রাজিব খান অভিযোগ করে বলেন, সোমবার সন্ধ্যায় তার চাচা শশুর হত্যা মামলার অন্যতম আসামী সিরাজ সরদার (৪৫) গাংচিল বাজারে আসলে স্থানীয় লোকজন তাকে আটক করার চেষ্টা করে। খবর পেয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য মোজাম্মেল মেম্বারের সন্ত্রাসী বাহিনীর সদস্য মেহরাজ, আলী মোহন, সাকিব, আইমন, তোফায়েল, দেলোয়ার ও বেলালের নেতৃত্বে ১০-১২জন বাজারে এসে লোকজনের ওপর অর্তকিত হামলা চালায়। হামলাকারীরা অন্তত ৭জনকে পিটিয়ে জখম করে। পরে ওই সন্ত্রাসীরা তার দোকানে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর, নগদ ১লাখ ২০হাজার টাকাসহ মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এসময় তাদের বাঁধা দিতে গেলে তারা তাকে (রাজিব) এলোপাতাড়ি পিটিয়ে ও কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করলে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। পরে বাজারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়।

কোম্পানীগঞ্জ থানার পুলিশ-পরিদর্শক (তদন্ত) মো. রবিউল হক জানান, খবর পেয়ে রাতে তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। মামলার সাক্ষী রাজিবকে কুপিয়ে জখম ও তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ভাঙচুর করেছে হত্যা মামলার আসামীরা। ঘটনায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

তিনি আরও বলেন, ব্যবসায়ী রাশেদ রানা হত্যার ঘটনায় তার স্ত্রী জান্নাতুল ফেরদাউস বাদী হয়ে ২১জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাতনামা আরও ২০-৩০জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। ঘটনায় এ পর্যন্ত ৩জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মামলার অপর আসামীদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে।

প্রসঙ্গত, গত ১০ মে শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে মোজাম্মেল মেম্বারের নেতৃত্বে স্থানীয় সন্ত্রাসী ইকবাল, মেহরাজ ও বেচু মাঝিসহ অন্তত ২৫-৩০ জন সন্ত্রাসী কিল্লার বাজার থেকে ব্যবসায়ী রাশেদকে তুলে নিয়ে যায়। পরে তারা হাসেম বাজারে নিয়ে প্রকাশ্যে রাশেদকে পিটিয়ে ও হাত-পায়ের রগ কেটে ফেলে যায়। মমূর্ষ অবস্থায় রাশেদকে উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে তার মুত্য হয়।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগিতায়: