বৃহস্পতিবার, ১৮ অগাস্ট ২০২২, ১০:৫৮ অপরাহ্ন

শিরোনাম
গাজীপুর প্রেসক্লাবে মাসুদুল হক সভাপতি, মাহতাব সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত রেল লাইনে পাথর নেই, মারাত্নক ঝুকি নিয়ে চলাচল করছে ট্রেন ২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে বিহ্মোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয় দেশে পরিবেশ বান্ধব কৃষি ও শিল্প প্রতিষ্ঠান স্থাপনের আহবান বোপমা সভাপতির হাতীবান্ধায় প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণ মামলার মূল আসামী শাহিন গ্রেফতার সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে বরিশালে আ.লীগের বিক্ষোভ মিছিল খেলাপি বৃদ্ধির শীর্ষে ২০ ব্যাংক বিমানবন্দরে ভক্তদের উদ্দেশ্যে যা বললেন শাকিব খান বরিশাল শেবাচিমে অধ্যক্ষের কার্যালয় ঘেরাও করে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ তেলের দাম বাড়ায় ব্যবসায়ীরা সুযোগ নিচ্ছেন: বাণিজ্যমন্ত্রী

হাসিমুখে কথা বলা সওয়াবের কাজ

সুন্দর আচরণ ও সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক ইসলামের শিক্ষা। কথা বলার সময় ভদ্রতা বজায় রাখা জরুরি। ভ্রু কুঁচকে কথা বলা, বিরক্তিভাব দেখানো এবং ক্ষোভ প্রকাশ কাম্য নয়। বরং হাসিমুখে কথা বলা-ই ইসলামের নির্দেশনা।

রাসুল (সা.) বলেন, ‘প্রতিটি ভালো কাজ সদকা। আর গুরুত্বপূর্ণ একটি ভালো কাজ হলো অন্য ভাইয়ের সঙ্গে হাসিমুখে সাক্ষাৎ করা।’ (তিরমিজি, হাদিস : ১৯৭০)

অন্য হাদিসে প্রিয় নবী (সা.) বলেন, ‘তোমার ভাইয়ের সঙ্গে সাক্ষাতের সময় মুখে মুচকি হাসি নিয়ে আসাও একটি সদকা।’ (তিরমিজি, হাদিস : ১৯৫৬)

রাসুল (সা.) বলেন, ‘যে ব্যক্তি নিজের কোনো মুসলিম ভাইকে খুশি করার জন্য এমনভাবে সাক্ষাৎ করে, যেমনটি সে নিজের জন্য পছন্দ করে। কেয়ামতের দিন (বিনিময়ে) আল্লাহ তাআলা তাকে খুশি করবেন।’ (তাবারানি, হাদিস : ১১৭৮)

তাই মানুষের সাথে আমাদের তেমনভাবে কথা বলা উচিত, যেমনভাবে আমরা প্রত্যাশা করি। এমন কোনো আচরণ কাম্য নয়, যা আমরাও অন্যদের থেকে আশা করি না। সাক্ষাৎ ও কথাবার্তায় মার্জিত হলে আল্লাহ পুরস্কৃত করবেন। মানুষের সঙ্গেও সুসম্পর্ক বাড়বে। সমাজে অবদান রাখার সুযোগ সৃষ্টি হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি