রবিবার, ১৬ Jun ২০২৪, ০২:১৭ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম
মানিকগঞ্জের দৌলতপুরে বঙ্গবন্ধু বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত শিক্ষার্থী নির্যাতন প্রতিরোধে মাদরাসা প্রধানদের সাথে পুলিশের মতবিনিময় সভা মালয়েশিয়ায় ১২৩ বাংলাদেশীসহ ২১৪ অবৈধ অভিবাসী গ্রেপ্তার বেনজিরের আরও সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ মডেল মির্জা মাহির প্রথম মিউজিক ভিডিও “কিশোরী রোদ” জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল এর সাংগঠনিক সম্পাদক আমান ডেঙ্গু জ্বর আক্রান্ত শিবালয়ে ভূমি সেবা সপ্তাহ শুরু উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা রাজশাহী নগরীতে পুলিশের অভিযানে গ্রেপ্তার ২৫ চৌদ্দগ্রামে ভূমি সেবা সপ্তাহ’র ২০২৪ উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন কবে, জানালেন ওবায়দুল কাদের

অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনের বন্ধ করে দেয় নোয়াখালী সদর উপজেলা এসিল্যান্ড

বিশেষ প্রতিনিধি (নোয়াখালী) : অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দুইটি মেশিন জব্দ করেন নোয়াখালী সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ জাকারিয়া।তিনি নোয়াখালী সদর উপজেলা ১নং চরমটুয়া ইউনিয়ন খলিশাটোলা গ্রামে সরেজমিনে গিয়ে বালু উত্তোলন বন্ধ করে মেশিন গুলো জব্দ করেন।

স্থানীয় তথ্যের ভিত্তিতে জানা যায় তোতা মাঝি নামে পরিচিত ব্যক্তি গত কয়েকদিন যাবত অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন করে আসছে। সেই গত বছরও বর্ষার মৌসুমে একই স্থান থেকে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন করে প্রায় দুই একর ভূমি ভরাট করে। এই বছরও বর্ষা শুরু হওয়ার সাথে সাথে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনের কাজ শুরু করে।

তার অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনের কারণে সওদাগর বাড়ি এবং আবু কালাম এর বসত ঘর সহ আশে পাশের লোকজনের প্রায় কোটি টাকা ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানা যায়। ১নং চরমটুয়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান কামাল উদ্দিন বাবলু জানান, গত বছরেও অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন করার কারণে আমি তার মেশিন গুলো নিয়ে আসি। এই বছরেও সেই একই বালু উত্তোলন বন্ধ করেনি। এই ভাবে বালু উত্তোলন সম্পূর্ণ অবৈধ।

নোয়াখালী সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ জাকারিয়া বলেন, তোতা মাঝি নামে জৈনিক ব্যক্তি অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন করায় তার মেশিন পত্র জব্দ করে নিয়ে আসা হয়েছে এবং এই ক্ষেত্রে থানায় চলমান মামলা করে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

অন্যদিকে, নোয়াখালীতে ফের দ্বিতীয় ধাপে লকডাউন অব্যাহত আছে। নোয়াখালী সদর উপজেলা এসিল্যান্ড মোহাম্মদ জাকারিয়া লকডাউন কার্যকর করার লক্ষ্যে একপ্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে ছুটে চলেছে অবিরাম। নিজের নিরাপত্তার কথা চিন্তা না করে জনগনকে নিরাপত্তা দেওয়ার জন্য সে সর্বদায় কাজ করে চলেছে।

গতকাল ২০ জুন ২০২০ লকডাউন কার্যকর করার জন্য মোবাইল কোর্ট আইন অমান্য কারী ব্যক্তিদের মামলা দিয়ে ১২,২০০ (বার হাজার দুই শত) টাকা অর্থদন্ড প্রদান করেন। নোয়াখালী জেলা আনসার ব্যাটালিয়ন টিমকে সাথে নিয়ে উদয় সাধুর হাট (ওদার হাট), খলিফার হাট, বাঁধের হাট, ইসলামগঞ্জ বাজার সহ বিভিন্ন স্থানে লকডাউন কার্যকর করার জন্য অভিযান পরিচালনা করেন এসিল্যান্ড মোহাম্মদ জাকারিয়া।

তিনি সকলকে অসচেতন ব্যক্তিদের হ্যান্ড মাইক দিয়ে সচেতন হওয়ার ঘোষণা দেন এবং মাস্ক ব্যবহার করা সহ সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখার জন্য তাগিদ দেয়।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগিতায়: