বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ০৮:৫৬ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম
আবারও শ্বাসরুদ্ধকর জয়, ৭ বছর পর ভারতের বিপক্ষে সিরিজ বাংলাদেশের নয়াপল্টনে সরব বিএনপি নেতাকর্মীরা, সতর্ক অবস্থানে পুলিশ নয়াপল্টনে সমাবেশ করলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে ধার প্রথম দিনই ৪ হাজার কোটি টাকা নিলো পাঁচ ইসলামী ব্যাংক সংঘাত নয়, আমরা সমঝোতায় বিশ্বাসী: প্রধানমন্ত্রী কর্মক্ষেত্রে মানসিক নির্যাতনের শিকার ৫৮ কোটি মানুষ আবারও ট্রোলের শিকার জ্যাকুলিন বেগমগঞ্জের দুর্গাপুর ইউনিয়ন ছাত্রদলের কমিটি গঠন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (কুবিসাস) এর এক দশকে পদার্পণ বিএনপির মনোনয়ন বাণিজ্যের কথা ‘ফাঁস করলেন’ প্রধানমন্ত্রী

টাঙ্গাইলে শিক্ষক সমিতির দ্বন্দ্বে ১০৪ এসএসসি পরীক্ষার্থীর ভোগান্তি

টাঙ্গাইলের বাসাইলে মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির দ্বন্দ্বে মিরিকপুর গঙ্গাচরণ তপশিলি উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০৪ পরীক্ষার্থীকে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

আগের কেন্দ্র থেকে প্রায় ১০ কিলোমিটার দূরে কাশিল ইউনিয়নের বাথুলীসাদী লাইলী বেগম উচ্চ বিদ্যালয়ে নতুন কেন্দ্রে তাদের এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হচ্ছে।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতি সম্প্রতি দুই ভাগে বিভক্ত হয়েছে। ফলে তাদের মধ্যে চরম দ্বন্দ্বের সৃষ্টি হয়েছে।

আর এই দ্বন্দ্ব এখন প্রকাশ্য রুপ নিয়েছে। ৩ ফেব্রুয়ারি থেকে এসএসসি পরীক্ষা শুরু হয়েছে। প্রতি বছর মিরিকপুর গঙ্গাচরণ তপশিলি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বাসাইল শহরের কেন্দ্রে পরীক্ষা দিয়ে আসছিল।

কিন্তু শিক্ষক সমিতির দ্বন্দ্বের কারণে এ বছর বাসাইল শহরের কেন্দ্র বাদ দিয়ে তাদের নতুন কেন্দ্রে পরীক্ষা দিতে হচ্ছে।

এতে করে তাদের অতিরিক্ত প্রায় ১০ কিলোমিটার রাস্তা পাড়ি দিতে হচ্ছে। এ কারণে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে তাদের।

এ ঘটনায় অভিভাবকরা চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তারা দ্রুত ওই বিদ্যালয়ের পরীক্ষার্থীদের বাসাইল শহরের কেন্দ্রে আনার জোর দাবি জানান।

মিরিকপুর গঙ্গাচরণ তপশিলি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির একাংশের সাধারণ সম্পাদক হায়দার আলী খান বলেন, প্রতি বছর আমাদের বিদ্যালয়ের পরীক্ষার্থীদের বাসাইল হাজী মালিক মাজেদা খাতুন উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে পরীক্ষা নেয়া হয়।

আমি গোবিন্দ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় অথবা বাসাইল পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে আমার বিদ্যালয়ের পরীক্ষার্থীদের কেন্দ্র করার প্রস্তাব দিয়েছিলাম। কিন্তু সংশ্লিষ্টরা তা মানেননি।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শামছুন নাহার স্বপ্না বলেন, সব বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকদের প্রত্যয়নের পরিপ্রেক্ষিতে নতুন কেন্দ্রটি করা হয়েছে।

আর মিরিকপুর গঙ্গাচরণ তপশিলি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তাদের বিদ্যালয়ের পরীক্ষার্থীদের ওই নতুন কেন্দ্রে পরীক্ষা নেয়ার জন্য আবেদন করেন।

তিনি আরও বলেন, এ বছর আর কেন্দ্র পরিবর্তনের সুযোগ না থাকায় আগামী বছর যাতায়াতের সুবিধার্থে ওই বিদ্যালয়ের পরীক্ষার্থীদের বাসাইল কেন্দ্রে রাখা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি