বৃহস্পতিবার, ১৮ অগাস্ট ২০২২, ১০:৩৩ অপরাহ্ন

শিরোনাম
গাজীপুর প্রেসক্লাবে মাসুদুল হক সভাপতি, মাহতাব সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত রেল লাইনে পাথর নেই, মারাত্নক ঝুকি নিয়ে চলাচল করছে ট্রেন ২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে বিহ্মোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয় দেশে পরিবেশ বান্ধব কৃষি ও শিল্প প্রতিষ্ঠান স্থাপনের আহবান বোপমা সভাপতির হাতীবান্ধায় প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণ মামলার মূল আসামী শাহিন গ্রেফতার সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে বরিশালে আ.লীগের বিক্ষোভ মিছিল খেলাপি বৃদ্ধির শীর্ষে ২০ ব্যাংক বিমানবন্দরে ভক্তদের উদ্দেশ্যে যা বললেন শাকিব খান বরিশাল শেবাচিমে অধ্যক্ষের কার্যালয় ঘেরাও করে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ তেলের দাম বাড়ায় ব্যবসায়ীরা সুযোগ নিচ্ছেন: বাণিজ্যমন্ত্রী

শুটিং সেটে কাদা ছোড়াছুড়ি উৎসবে মাতলেন ফেরদৌস-পূর্ণিমা (ভিডিও)

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় আবারও শুরু হয়েছে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের গাঙচিল উপন্যাস অবলম্বনে ‘গাঙচিল’ ছবির শুটিং।

আজ সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে সেই শুটিং সেটের একটি ঘটনা। ঘটনাটি সিনেমার কোনো দৃশ্য নয় বলে জানিয়েছেন ছবিটির মেকআপম্যান মোহাম্মদ খলিল।

মোহাম্মদ খলিলের ফেসবুক আইডি থেকেই ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে পড়ে।

ভিডিওতে দেখা গেছে, কাদামাখা শরীর নিয়ে চিত্রনায়ক ফেরদৌস সহকারী পরিচালক আবুল কামাল আজাদকে জড়িয়ে ধরেছেন। তাকে কাদা মাখিয়ে দিচ্ছেন। এমন সময় চিত্রনায়িকা পূর্ণিমেও বসে থাকেননি। তিনিও সহকারী পরিচালকের শরীর কাদা মাখিয়ে দিতে এগিয়ে আসেন।

কাদা মাখামাখিতে ফেরদৌস, পূর্ণিমাকে যোগ দিতে দেখে এগিয়ে আসেন অভিনেতা আনিসুর রহমান মিলনও। এক পর্যায়ে মেকআপম্যান মোহাম্মদ খলিলকে জড়িয়ে ধরেন ফেরদৌস। তার শরীরেও কাদা মাখিয়ে দেন। ফেরদৌসকে সহযোগিতা করতে যোগ দেন পূর্ণিমাও। এভাবেই ছবির সব কলাকুশলীদের মধ্যে চলে কাদা মাখামাখি।

এমন ভিডিও ভাইরালের পর চিত্র তারকা ফেরদৌস বলেন, ‘শীতের মধ্যে কাদা মেখে শুট করাটা বেশ কষ্টকর। আমি, পূর্ণিমা আর মিলন কাদা মেখে শুটিং করেছিলাম। আমরা শীতে কাঁপছিলাম আর অনেকে তা দেখে মজা নিচ্ছিল। তাই ভাবলাম, তারাও আমাদের কষ্ট টের পাক। শট শেষ করে, সবার গায়ে কাদা মেখে দিই।’

ছবির পরিচালক নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামুল জানিয়েছেন, কোম্পানীগঞ্জে শুটিং চলবে আগামী সাত দিন। এ ছবিতে কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করছেন ফেরদৌস ও পূর্ণিমা। ছবিতে সাংবাদিকের চরিত্রে দেখা যাবে ফেরদৌসকে। এনজিও কর্মীর ভূমিকায় অভিনয় করছেন পূর্ণিমা। বিশেষ একটি চরিত্রে রয়েছেন কলকাতার অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তা। আরও রয়েছেন তারিক আনাম খান, আনিসুর রহমান মিলন, আহসানুল হক মিনু প্রমুখ।

১ ফেব্রুয়ারি থেকে গাঙচিল ছবির শেষ লটের কাজ শুরু হয়েছে বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে ছবির পরিচালক নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামুল বলেন, এবারের লটের শুটিংয়ে ছবির প্রায় সব অভিনেতা-অভিনেত্রীই অংশ নেবেন। কোম্পানীগঞ্জে শুটিং শেষে ঢাকায় অল্প কিছু কাজের পর ক্যামেরা ক্লোজ হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি