শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৪:৫২ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম
আবারও ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে সিঙ্গাপুরে চিকিৎসাধীন সাবিনা ইয়াসমিন বিএনপির আন্দোলনে অবশ্যই সরকার পরিবর্তন হবে: নজরুল আগামীতে পেঁয়াজ আমদানি করতে হবে না: প্রধানমন্ত্রী বিশ্ব বাজারে জ্বালানি তেলের দাম কমেছে শিবালয়ে রাজ্জাক কে নতুন ঘর তুলে দিলেন শতরুপা ফাউন্ডেশন জামালপুরে দরিদ্র শিশুদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ নোয়াখালীতে দাখিল পরীক্ষায় দায়িত্বে অবহেলা ও নকলে সহযোগিতার অপরাধে ৮ শিক্ষককে অব্যাহতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রশিদ চেয়ারম্যান এর লাশ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন ছুটির দিনে জমজমাট বইমেলা, ক্রেতার চেয়ে বেশি দর্শনার্থী সীমান্ত হত্যা বন্ধে হানিফ বাংলাদেশীর প্রতীকী লাশের মিছিল এখন বকশীগঞ্জে

লক্ষ্মীপুরে অস্তিত্বহীণ প্রতিষ্ঠানে সমাপনী পরীক্ষার্থী ১৭ জন

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি : নেই ভবন, শিক্ষা কার্যক্রম কিংবা শিক্ষার্থী। তবুও এমপিওভুক্তির আবেদন তালিকায় নাম এসেছে ইবতেদায়ী মাদরাসার। অনিয়ম কে নিয়ম করে প্রস্তুতি নিচ্ছে নতুন করে কার্যক্রম চালানোর। তারই ধারাবাহিকতায় ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা ২০২০ এ প্রতিষ্ঠানের নামে রেজিষ্ট্রেশন করা হয়েছে ১৭জন শিক্ষার্থীর। বলছিলাম ল²ীপুর সদর উপজেলার তেওয়ারীগঞ্জ ইউনিয়নের অন্তর্গত হোসেনপুর গ্রামে হোসেনপুর হেদায়তিয়া স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদরাসার কথা।

স¤প্রতি সরকার দীর্ঘদিন চলমান স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদরাসা অনুমোদনের সিদ্ধান্ত নেয়। এ সুযোগে একটি চক্রি মহল ব্যক্তি স্বার্থ সিদ্ধির লক্ষ্যে ভুয়া কাগজপত্র দেখিয়ে হোসেনপুর হেদায়েতিয়া এবতেদায়ী মাদরাসা নামের একটি প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির জন্য আবেদন করে। কার্যত এ গ্রামে ২০১১সালে প্রতিষ্ঠিত হোসেনপুর আদর্শ নুরানী মাদরাসা ব্যতিত অন্য কোন মাদরাসার অস্তিত্ব নেই।

উক্ত স্বার্থান্বেষী মহল নুরানী মাদরাসাকে ইবতেদায়ী মাদরাসা হিসেবে দেখিয়ে নতুন মাদরাসা অনুমোদনের চেষ্টা করছে বলে এলাকাবাসীর দাবি। এদিকে নতুন করে মাদরাসার জন্য ঘর নির্মানে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে উক্ত স্বার্থান্বেষী মহল ।

গ্রাম এলাকায় মাত্র কয়েক গজ এর ব্যবধানে একই বয়সের শিশুদের জন্য দুইটি মাদরাসা কোন অবস্থাতেই সুন্দর চলতে পারবে না। এছাড়া শুরুতেই মিথ্যার আশ্রয়ে প্রতিষ্ঠিত মাদরাসা কতটুকু জাতির কল্যাণ বয়ে আনবে সে ব্যাপারে যথেষ্ট সংশয় প্রকাশ করেছেন সচেতন এলাকাবাসী।

উল্লেখ্য, যে ১৭জন ছাত্রকে ইবতেদায়ী সমাপনী পরীক্ষার্থী হিসেবে দেখানো হয়েছে তাদের একজন মাত্র হোসেনপুর গ্রামের এবং উক্ত কাগুজে মাদরাসায় যাকে প্রধান শিক্ষক হিসেবে দেখানো হয়েছে তিনি নতুন তেওয়ারীগঞ্জ ইসলামিয়া দাখিল মাদরাসার নিয়মিত শিক্ষক। ইতোপূর্বে বিষয়টি নিয়ে এলাকাবাসী যথাযথ কর্তৃপক্ষ বরাবর লিখত আবেদন করেছে বলে জানা যায়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে হোসেনপুর হেদায়েতিয়া ইবতেদায়ী মাদরাসার প্রধান শিক্ষক আবদুর রহিম এর মুঠোফোনে কথা বলার চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায় নি।

এ বিষয়ে সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আবু তালেব বলেন, এখনো কোন প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তি হয় নি। পুরাতন প্রতিষ্ঠান গুলোর তথ্য চাওয়া হয়েছে। কেউ যদি ভুল তথ্য দেয় তাহলে আমরা প্রয়োজনী ব্যবস্থা নেবো। এছাড়া শিক্ষার্থী রেজিষ্ট্রেশনের বিষয়ে প্রাথমিক শিক্ষা অফিস দেখেন।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগিতায়: