শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ০৪:১৭ অপরাহ্ন

সামাজিক অবক্ষয় রোধে হোসেনের ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

বাঙলার জাগরণ ডেস্ক :: দেশে সামাজিক অস্থিরতা হঠাৎ করেই যেন বৃদ্ধি পেয়েছে। পারিবারিক-সামাজিক অবক্ষয়জনিত একের পর বীভৎস ঘটনার সাক্ষী হয়েছে দেশ। মাদক, হত্যা,ধর্ষণ, ইভটিজিং ও আত্মহননের মিছিলে বেরিয়ে পড়ছে সমাজের ও নৈতিকতার বিপর্যয় এবং অধঃপতনের ভয়ানক চিত্র। প্রতিদিনই ঘটছে নানা অঘটন। এসব বেশিরভাগ ঘটছে পারিবারিক ও সামাজিক পর্যায়ে। এতে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা ছড়িয়ে পড়ছে সচেতন নাগরিক এমনকি মা বাবা জনসাধারণের মাঝে।

রাজধানী ঢাকার কামরাঙ্গীরচর এলাকায় সুশীল সমাজের গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে সামাজিক অবক্ষয় রোধে পারিবারিক ভূমিকা নিশ্চিত করণে আমাদের করণীয় শীর্ষক আলোচনা সভা আয়োজন করেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ৫৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ হোসেন।

শনিবার(২৬ আক্টোবর)কামরাঙ্গীরচর সরকারী হাসপাতালে মাঠে এই আলোচনার সভা অনুষ্ঠিত হয় কাউন্সিলর মোহাম্মদ হোসেন সভাপতিত্বে। এলাকায় সুশীল সমাজের ব্যক্তিবর্গকে নিয়ে অনুষ্ঠানটির সার্বিকভাবে সহযোগিতা করেন কামরাঙ্গীরচর ও সাংস্কৃতিক উন্নয়ন পরিষদ।

প্রধান অতিথির হিসেবে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উপস্থিত ছিলেন, সাবেক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম এমপি। প্রধান অতিথির বক্তব্যে কামরুল ইসলাম এমপি বলেন, কামরাঙ্গীরচর এলাকায় ভিতরে প্রতিটি রাস্তা মোড়ে মোড়ে এবং বাড়ির সামনে সিসি ক্যামেরা লাগাবেন।

আজকে এই বিষয়েটি প্রতিটি মহল্লায় মহল্লায়
জানিয়ে দিতে হবে। প্রতি শুক্রবারে মসজিদের ইমাম সাহেবরা এবং স্কুলের শিক্ষকরা সামাজিক অবক্ষয় রোধে পারিবারিক ভূমিকা নিশ্চিত করণে আমাদের করণীয় বিষয়ের উপর যার যার অবস্থানে বার্তা দিতে থাকবেন। তাহলে সম্ভব আপনার সন্তানকে মাদকের ভয়াল থাবা এবং কিশোর গ্যাং,নারী নির্যাতনসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড রক্ষা করতে।

সভাপতির বক্তব্যে মোহাম্মদ হোসেন বলেন,সাবেক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম এমপি ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপসের নির্দেশক্রমে আজকে আলোচনা সভার আয়োজন করিছি।

কাউন্সিলর হোসেন বলেন,আমার ৫৬ নং ওয়ার্ডের সুশীল সমাজের গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ এই বিষয় নিয়ে অনুষ্ঠানটির আয়োজন করেছি।

তিনি আরও বলেন,প্রত্যেক অভিভাবক তার সন্তান কোথায় যাচ্ছে ।কার সাথে চলাফেরা করছে এই বিষয়গুলো গুরুত্ব দিলে। আমার মনে হয় আমাদের সন্তানেরা কোন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের সাথে জড়িত হতে পারবে না। এবং আজকের এই অনুষ্ঠানটি সারাদেশের জন্য একটি মাইলফলক হিসেবে দৃষ্টান্ত স্থাপন হবে আমি মনে করি। দেশের প্রতিটি পাড়া-মহল্লায় এ ধরনের কার্যক্রম অব্যাহত থাকলে যে কোন অপরাধ নির্মূল করা সম্ভব।

এ সময় আরোও উপস্থিত ছিলেন কামরাঙ্গীরচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান,৫৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাইদুল মাদবর এবং ৫৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ নুর আলম চৌধুরী সহ এলাকায় সুশীল সমাজের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি