রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১:২২ অপরাহ্ন

শিরোনাম
উজিরপুরে সৎসঙ্গ ফাউন্ডেশনের সেমিনার অনুষ্ঠিত শিবালয়ে গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্যবাহী লাঠিবাড়ি খেলা অনুষ্ঠিত লঞ্চের দড়ি ছিঁড়ে ৫ জনের মৃত্যু : আসামিদের তিন দিনের রিমান্ড ঈদের দিনে সদরঘাটে দুর্ঘটনায় ঝরল ৫ প্রাণ সৌদির সাথে মিল রেখে নোয়াখালীর ৪ গ্রামে ঈদ উদযাপন নোয়াখালীতে দুর্বৃত্তরা ঘর আগুনে পুড়ে দিয়েছে, ১০ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি সুবর্ণচরে মানব কল্যাণ সংস্থার উদ্যোগে হতদরিদ্র ও অসহায়দের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ  ঢাকা আরিচা মহাসড়কের মসুরিয়ায় নামে এক অজ্ঞাত ব্যাক্তি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত চাটখিলে ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ সংবাদপত্রে ছুটি ৯-১৪ এপ্রিল : নোয়াব

যেসব লক্ষণে বুঝবেন আপনার হার্ট অ্যাটাক হতে পারে

নিউজ ডেস্ক :: যখন তখন হৃদরোগ হতে পারে। বয়স হলে এই আশঙ্কাই ঘিরে ধরে মানুষকে। বুকে হালকা চিন চিন ভাব ও নিঃশ্বাস নিতে সমস্যা হলেই মনে প্রশ্ন জাগে। কিন্তু ঠিক কোন লক্ষণ হার্ট অ্যাটাকের সংকেত বহন করে তা আমরা অনেকেই জানি না।

হার্ট অ্যাটাক পূর্বে শুধুমাত্র বয়স্কদের ক্ষেত্রেই দেখা যেত। কিন্তু যত দিন যাচ্ছে, অল্প বয়সীদের মধ্যেও বেড়ে গিয়েছে হার্ট অ্যাটাকের প্রবণতা। মনে রাখবেন, জাঙ্কফুড, কাজের নির্দিষ্ট সময় না থাকা ও ওয়ার্ক ফর্ম হোম হার্ট অ্যাটাকের অন্যতম কারণ।

পুরুষদের চেয়ে মহিলাদের হার্ট অ্যাটাক কম হয়। তবে মহিলাদের মেনোপজের পর হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা বেড়ে যায়। তাই, মেনোপজের পর মহিলাদের সতর্ক থাকার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

এবার জেনে নিন হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ সম্পর্কে…

* বুকের মাঝ থেকে ব্যাথা শুরু হয়ে চারদিকে ছড়িয়ে যাচ্ছে। এমন হলে বুঝবেন হার্ট অ্যাটাকের সমূহ সম্ভাবনা রয়েছে। দেরি না করে শীঘ্র চিকিত্‍সকের পরামর্শ নিন।

* আগে যে কাজ অবলীলায় করতেন, তা করতেই ভীষণ হাঁপ ধরে যাচ্ছে। আপনার হার্ট যে দুর্বল হয়ে পড়েছে এটি তার অন্যতম লক্ষণ।

* অনিয়মিত হার্টবিট হলে নিজেই ভালো বুঝতে পারবেন। মাঝে মাঝে বাড়বে বা কমবে। তেমন ভয়ানক না হলেও ভয়ের কারণ রয়েছে। এরকম হলে চিকিত্‍সা নেয়া উচিত।

* হাত-পা-গোড়ালি ফুলে যাওয়া এটা সংকেত যে, আপনার হার্ট ঠিক মতো রক্ত পাম্প করতে পারছে না। দেরি না করে ডাক্তারের কাছে যান।

* হঠাৎ করে বুকে ব্যথা হলে সেটি হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ। যাকে বলা হয় মাওকার্ডিয়াল ইনফ্রাকশান। এই সময় শিরার মধ্যে রক্তের গতি বন্ধ হয়ে যায়। আবার কিছু ক্ষেত্রে গতি কমে যায়, কিন্তু বন্ধ হয় না। অনেক সময় দৌড় ঝাঁপ করার সময় শিরা ধমনী দিয়ে যতটা রক্ত যাতায়াত করে ততটা জোরে হার্ট পাম্প করতে পারে না। তখন ব্যাথা হয়। এরকম মানুষদের হার্ট অ্যাটাকের আশঙ্কা থাকে। সূত্র: জি নিউজ

এএইচ/


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগিতায়: