সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১, ০৬:১১ অপরাহ্ন

সিলেটে তিন বছরের শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা, লাপাত্তা সুমন

সিলেট প্রতিনিধি :: শাহপরাণ থানাধীন সৈয়দপুর এলাকায় সাড়ে ৩ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে। এ ঘটনায় শিশুটির পিতা বাদী হয়ে শাহপরাণ থানায় ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে গত বুধবার মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর থেকেই মূল হোতা সুমন লাপাত্তা রয়েছেন। শুক্রবার বিকেলে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই অন্নপূর্ণা তালুকদার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সত্যতা পেয়েছেন বলে পুলিশের একটি সূত্র নিশ্চিত করেন।

মামলায় আসামী করা হয়েছে ওসমানীনগর গ্রামের মানিক মিয়ার মিয়ার ছেলে খায়রুল আলম সুমন (৪০) আসামী করা হয়েছে। বর্তমানে সুমন শাহপরাণ থানাধীন সৈয়দপুরের সবুজ ভিলার ২য় তলায় বসবাস করে আসছে।

জানা যায়, গত ৯ মার্চ দুপুরে সাড়ে ৩বছরের শিশুটি খায়রুল আলম সুমনের বাসায় গিয়ে তার মেয়ের সাথে খেলাধুলা করছিল। এসময় সুমন শিশুটিকে মজা দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ডেকে নিয়ে একাধিকবার যৌনপীড়ন করে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। শিশুটি তখন কান্নাকাটি করলে সুমন তখন এ বিষয়টি কাউকে না বলার জন্য হুমকি দেয়। পরবর্তীতে শিশুটির মা শিশুটিকে গোসল করাতে নিয়ে গেলে বিষয়টি ধরা পড়ে। তখন শিশুটি তার মাকে সার্বিক বিষয় খুলে বলে। পরে শিশুটিকে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টার (ওসিসি)-তে ভর্তি করেন।

মামলার বাদী শিশুটির পিতা জানান, আমার সাড়ে ৩বছরের মেয়ে শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা করে সুমন। পুলিশ এখন পর্যন্ত সুমনকে গ্রেফতার করতে পারেনি। ইতোমধ্যে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সত্যতা পেয়েছে।

সিলেট শাহপরাণ থানার ওসি সৈয়দ আনিসুর রহমান বলেন, সাড়ে ৩বছরের শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টার দায়ে খায়রুল আলম সুমন নামের এক যুবকের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন শিশুটির পিতা। ইতোমধ্যে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। শিশুটি ওসিসি’তে চিকিৎসা নিয়েছে। পুলিশ আসামীকে ধরার জন্য অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই অন্নপূর্ণা তালুকদার জানান, শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে থানায় খায়রুল আলম সুমন নামের এক যুবকের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। পুলিশ প্রাথমিক তদন্তে সত্যতা পেয়েছে। সেই সাথে আসামীকে ধরার জন্য পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি