বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ০৩:২৮ অপরাহ্ন

লঞ্চে আগুন: নদীর পাড়ে ২১ কবরে ২৩ জনের দাফন

বরগুনা প্রতিনিধি :: বরগুনার পোটকাখালী গ্রামে খাকদোন নদীর পাড়ে ২৩ জনের দাফন ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে এমভি অভিযান-১০ লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ২৩ জনের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। শনিবার (২৫ ডিসেম্বর) দুপুর ১টায় বরগুনার পোটকাখালী গ্রামে খাকদোন নদীর পাড়ে তাদেরকে দাফন করা হয়।

এর আগে বেলা সাড়ে ১১টায় বরগুনার সার্কিট হাউজ মাঠে ৩০ জনের জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এতে ইমামতি করেন কালেক্টরেট মসজিদের ইমাম মাওলানা জাহিদুল ইসলাম। এরপর পাঁচ জনকে শনাক্ত করেন স্বজনরা। দাফনের জন্য ২৫ লাশ কবরস্থানে নিয়ে আসা হয়। পরে আরও দুই জনকে শনাক্ত করেন স্বজনরা।

দুপুর ১টার দিকে খাকদোন নদী তীরবর্তী এলাকায় ২১টি কবরে ২৩ জনের দাফন সম্পন্ন হয়। চার জনের মরদেহ আলাদা করা না যাওয়ায় দুই কবরে দাফন করা হয়েছে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বরগুনার জেলা প্রশাসক হাবিবুর রহমান, পৌর মেয়র কামরুল আহসান মহারাজসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা।

২১টি কবরে ২৩ জনের দাফন বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে নলছিটির সুগন্ধা নদীর পোনাবালীয়া ইউনিয়নের দেউরী এলাকায় বরগুনাগামী এমভি অভিযান-১০ লঞ্চের ইঞ্জিন রুম থেকে আগুন লাগে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৪১ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। অগ্নিদগ্ধ হয়ে শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৭০ জন। ঢাকায় পাঠানো হয়েছে ১৬ জনকে। আহত হয়েছেন শতাধিক।

মৃত ৪১ জনের মধ্যে চার জনের লাশ নিয়ে গেছেন স্বজনরা। পরে আরও পাঁচ জনের লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে। বাকি ৩২ লাশ বরগুনা জেলা প্রশাসনের কাছে হস্তান্তর করে ঝালকাঠি জেলা প্রশাসন। এর মধ্যে দুই জনের লাশ শনাক্ত করেন স্বজনরা। বাকি ৩০ জনের ডিএনএ সংরক্ষণ করা হয়েছে। দাফনের আগে আরও সাত জনের পরিচয় শনাক্ত করেন স্বজনরা।

লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে ঝালকাঠি জেলা প্রশাসন। শুক্রবার (২৪ ডিসেম্বর) দুপুরে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক নাজমুল আলমকে প্রধান করে এ কমিটি গঠন করা হয়।

অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার পরের দিন শনিবার সকাল থেকে ফের উদ্ধার অভিযান শুরু করেছে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের পাশাপাশি নিখোঁজ যাত্রীদের স্বজনরা নদী ও নদী তীরবর্তী এলাকায় তল্লাশি অভিযান চালাচ্ছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি