মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:৫৭ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম
ক্রীড়াবিদরা দেশের জন্য সম্মান বয়ে আনছে- ধর্মমন্ত্রী উজিরপুরে সৎসঙ্গ ফাউন্ডেশনের সেমিনার অনুষ্ঠিত শিবালয়ে গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্যবাহী লাঠিবাড়ি খেলা অনুষ্ঠিত লঞ্চের দড়ি ছিঁড়ে ৫ জনের মৃত্যু : আসামিদের তিন দিনের রিমান্ড ঈদের দিনে সদরঘাটে দুর্ঘটনায় ঝরল ৫ প্রাণ সৌদির সাথে মিল রেখে নোয়াখালীর ৪ গ্রামে ঈদ উদযাপন নোয়াখালীতে দুর্বৃত্তরা ঘর আগুনে পুড়ে দিয়েছে, ১০ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি সুবর্ণচরে মানব কল্যাণ সংস্থার উদ্যোগে হতদরিদ্র ও অসহায়দের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরণ  ঢাকা আরিচা মহাসড়কের মসুরিয়ায় নামে এক অজ্ঞাত ব্যাক্তি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত চাটখিলে ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ

আইয়ুব রানার বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে সমাবেশ

প্রেস বিজ্ঞপ্তি :: অনলাইন প্রেস ইউনিটির ভাইস চেয়ারম্যান ও অর্ধসাপ্তাহিক সুবাণী’র সম্পাদক আইয়ুব রানার বিরুদ্ধে মিথ্যে মামলা প্রত্যাহার ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবীতে সমাবেশ ও গণস্বাক্ষর কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়েছে। বেলা ১১ টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন অনলাইন প্রেস ইউনিটির প্রতিষ্ঠাতা মোমিন মেহেদী। বক্তব্য রাখেন অনলাইন প্রেস ইউনিটির ভাইস চেয়ারম্যান শান্তা ফারজানা, ডেইলী গাজীপুর-এর সম্পাদক নাসির উদ্দীন বুলবুল, দৈনিক বাঙলার জাগরণ-এর বিশেষ প্রতিনিধি সামসুল আলম জুলফিকার, দৈনিক সময়ের আলো’র বরিশাল প্রতিনিধি হাসিবুর রহমান, অনলাইন প্রেস ইউনিটি নারায়ণগঞ্জের সমন্বয়ক সাজ্জাদ হোসেন খোকন, এ আর রনি, সোহেল খন্দকার, চম্পাবতী এন মারাক, অনন্ত কুমার রায় প্রমুখ।

এসময় বক্তারা বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশ ও মানুষের অভিভাবক, তাঁর কাছে সংবাদযোদ্ধাদের পক্ষ থেকে বিনয়ী অনুরোধ দয়া করে একজন নিবেদিত সংবাদযোদ্ধাকে মিথ্যে মামলা থেকে অব্যহতি দেয়ার ব্যবস্থা করুন।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ১৪ নভেম্বর কালিকৈর প্রেসক্লাব-এর সভাপতি ও অনলাইন প্রেস ইউনিটির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান সংবাদযোদ্ধা আইয়ুব রানাকে বিনা অপরাধে কেবল সন্দেহ বশবতী হয়ে গ্রেফতার করেছিলো। কারণ হিসেবে অবশ্য বলা হয়েছে- আদিবাসী নেতা বীরমুক্তিযোদ্ধা উসিট ম্রং এবং তাঁর স্ত্রী রাখাইন রাজ্যের নারী নেত্রী ম্রারাজা লেইন ওরফে ম্যাম্যা’র সাথে আইয়ুব রানার ফোনে যোগাযোগ ছিলো। যেখানে তিনি নিরলস স্বাধীনতার পক্ষে থেকে বর্তমান মাননীয় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ. ক. ম মোজাম্মেল হক-এর এলাকা কালিয়াকৈর-এর একটি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগেরও সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন দীর্ঘদিন, সেখানে তাকে বারবার সইতে হয়েছে হামলা এবং মামলার আঘাত।

১৯৯৩ সালে তিনি যেমন সয়েছেন বিএনপি সরকারের নির্যাতন, ২০০১ সালেও সইতে হয়েছে শারিরিকভাবে হামলার আঘাত। আর বর্তমান সরকারের সময়ও তা অব্যহত রেখেছে স্বাধীনতা বিরোধী-ষড়যন্ত্রকারীচক্র। তিনি এই মামলা থেকে অব্যহতি প্রদানের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে স্মারকলিপিও প্রদান করেছেন।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগিতায়: