মঙ্গলবার, ১৮ Jun ২০২৪, ০২:৩৪ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম
মানিকগঞ্জের দৌলতপুরে বঙ্গবন্ধু বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত শিক্ষার্থী নির্যাতন প্রতিরোধে মাদরাসা প্রধানদের সাথে পুলিশের মতবিনিময় সভা মালয়েশিয়ায় ১২৩ বাংলাদেশীসহ ২১৪ অবৈধ অভিবাসী গ্রেপ্তার বেনজিরের আরও সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ মডেল মির্জা মাহির প্রথম মিউজিক ভিডিও “কিশোরী রোদ” জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল এর সাংগঠনিক সম্পাদক আমান ডেঙ্গু জ্বর আক্রান্ত শিবালয়ে ভূমি সেবা সপ্তাহ শুরু উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা রাজশাহী নগরীতে পুলিশের অভিযানে গ্রেপ্তার ২৫ চৌদ্দগ্রামে ভূমি সেবা সপ্তাহ’র ২০২৪ উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন কবে, জানালেন ওবায়দুল কাদের

৫০ বছর আগের দুর্নীতির মামলাগুলো শুনানির উদ্যোগ

নিউজ ডেস্ক :: ৫০ বছর আগের দুর্নীতির মামলাগুলো শুনানির উদ্যোগ নিয়েছে উচ্চ আদালত। ১৯৭১ থেকে ১৯৯৩ পর্যন্ত প্রায় ২৫টি মামলা কার্যতালিকায় নিষ্পত্তির অপেক্ষায়। হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট বেঞ্চকে দ্রুত মামলাগুলো নিষ্পত্তির নির্দেশ দিয়েছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন। দুদকের আইনজীবী জানালেন, আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে শুনানি শুরু হতে পারে।

২০০৪ সালে দুর্নীতি দমন কমিশনের যাত্রা শুরু। তারও আগে দুর্নীতি দমন ব্যুরোর অধীনে বিচারিক আদালত ও সুপ্রীম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগ ও আপীল বিভাগে মামলার যাবতীয় কার্যক্রম পরিচালনা করতেন পরিচালক। কমিশন হওয়ার পর থেকেই বিলুপ্ত ব্যুরোর অনিষ্পত্তিকৃত মামলাগুলো নিয়ে কাজ শুরু হয়।

পুরোনো মামলা নিষ্পত্তির ধারাবাহিতায় ১৯৭১ সাল থেকে প্রায় ৫০ বছর আগের দুর্নীতির মামলাগুলো শুনানির উদ্যোগ নিয়েছেন উচ্চআদালত। এর মধ্যে ৭১ থেকে ১৯৯৩ পর্যন্ত প্রায় ২৫টি মামলা কার্যতালিকায় নিষ্পত্তির অপেক্ষায়।

দুদকের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান বলেন, যেহেতু ব্যুরো আমলের সমস্ত দায়দায়িত্ব আইন অনুযায়ী আমাদের, এখন আমাদের কর্তব্য এগুলো দ্রুত নিষ্পত্তি করার। এ জন্য পদক্ষেপ নিচ্ছি, আশা করি খুব তাড়াতাড়ি এগুলো নিষ্পন্ন হবে।

দুদকের আইনজীবী জানান, পুরোনো মামলাগুলোর মধ্যে সরকারি কর্মচারীদের অসদাচরণ, অর্থ আত্মসাৎসহ বেশ কিছু মামলা রয়েছে। মামলাগুলো অনেক পুরোনো হওয়ায় নথিপত্রের জন্য দুদকে আবেদন করা হয়েছে।

দুদকের আইনজীবী আরও জানান, সরকারি কর্মচারীদের অসদাচরণ হতে পারে, জ্ঞাত আয়ের বর্হিভূত সম্পদ হতে পারে, মিউচুয়াল ট্রাস্ট অর্থ আত্মসাত হতে পারে। বিভিন্ন ধরনের মামলা আছে।

হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট বেঞ্চকে মামলাগুলো দ্রুত নিষ্পত্তির নির্দেশ দিয়েছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন।

আইনজীবী খুরশীদ আলম খান বলেন, কাগজ যদি কালকের মধ্যে পেয়ে যাই, আশা করি রোববার থেকে শুনানি শুরু করতে পারবো।

সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগে দুদকের ২ হাজার ৫৩টি মামলা বিচারধীন। আর আপিল বিভাগে রয়েছে ৪২২টি মামলা। দুদকের বিচারাধীন মামলার সংখ্যা এখন ২ হাজার ৪৭৫টি।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগিতায়: