শুক্রবার, ২৫ Jun ২০২১, ০৪:১৪ অপরাহ্ন

শিরোনাম
লকডাউন শেষে এখন শাটডাউন খেলা শুরু করছে সরকার : মান্না ভূমধ্যসাগরে ভাসমান ২৬৪ বাংলাদেশি উদ্ধার হাতীবান্ধায় মধ্যরাতে গোয়াল ঘরে আগুন, গরু বাঁচাতে গিয়ে ২জন অগ্নিদগ্ধ গ্রাম হচ্ছে শহর প্রাণভোমরা ডিজিটাল সেন্টার – পরীক্ষিৎ চৌধূরী সুইজারল্যান্ডে এমপি হয়ে ইতিহাস গড়লেন বাংলাদেশি নারী জেনারেল র‌্যাংক ব্যাজ পরানো হলো নতুন সেনাপ্রধানকে ‘ওভারনাইট বান্দরবান পাঠিয়ে দেব’ বিজ্ঞাপন বন্ধের নির্দেশ করোনা চিকিৎসার ব্যবস্থাপনা ও প্রস্তুতি জানতে ঢাকা মেডিকেলে জাসদ নেতৃবৃন্দ ব্যাটারি চালিত রিক্সা-ভ্যান বন্ধের প্রতিবাদে সিরাজগঞ্জে মানববন্ধন যোগচর্চার উৎপত্তি ভারত না নেপাল

প্রশংসা পাচ্ছে ‘ক্যাম্পাস ক্লাইম্যাক্স

সম্প্রতি ইউটিউবে মুক্তি পেয়েছে ক্যাম্পাস জীবন নিয়ে নির্মিত পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘ক্যাম্পাস ক্লাইম্যাক্স’। ভাল কোনো প্লাটফর্ম না পাওয়ায় নিজেই একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলে মুক্তি দিয়েছিলেন তরুণ নির্মাতা জিৎ দে। কিন্তু ছবিটি মুক্তির পর তুমুল প্রশংসা পাচ্ছেন বলে জানান তিনি।

জিৎ দে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র। তার ছবির গল্প ও চরিত্রগুলো তিনি বেছে নিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় থেকেই। ছবিটি মুক্তির পর এতো সাড়া পাবেন, নিজেও ভাবেননি এই তরুণ।

জানালেন, ইনবক্স-বক্স ভেসে যাচ্ছে প্রশংসায়। বেশীর ভাগই ছবিটি দেখে ইতিবাচক মন্তব্য করেছেন। অনেক প্রাক্তনরা এই ছবি দেখে নাকি স্মৃতিকাতর হয়ে পড়েছেন। এমনটাই জানালেন জিৎ।

তিনি বলেন, ‘ক্যাম্পাস ক্লাইম্যাক্স’ দেখে কেউ প্রশংসা করছেন নির্মাণের, কেউ অভিনয়ের, কেউ চিত্রনাট্যের, কেউ গানের, কেউ সংলাপের। শুধু ঢাবি থেকেই নয়, দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ছাত্র ছাত্রীরা শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন। কেউ নাকি আবার পরিচালকের কাছে দাবী করছেন ‘ক্যাম্পাস ক্লাইম্যাক্স ২’ নির্মাণের!

‘ঢাকাইয়া গাল্লি বয়’ খ্যাত মাহমুদ হাসান তবীব ছবিটি নিয়ে তার ফেসবুকে লিখেছেন, ক্যাম্পাসের বর্তমান অবস্থার এতো সুন্দর উপস্থাপন ইতিহাসের পাতায় লেখা থাকবে। এই মুভিটি ঢাবির একবিংশ ইতিহাসের প্রধান ডকুমেন্টারি। প্রতিটি ঘটনা সত্য।

রাসা অঙ্কন নামের একজন কমেন্ট করেছেন, মনে হচ্ছে নিজের জীবনটাকেই ফুটিয়ে তুলেছে ‘ক্যাম্পাস ক্লাইম্যাক্স’ ছবিতে। সায়মা জান্নাত নামের একজনের মন্তব্য, ‘ভাল করেছেন। মন খারাপ হয়ে গেল। আজ বর্তমানে আছি। একদিন অতীত হয়ে যাব।’

পরিচালনার পাশাপাশি চলচ্চিত্রটির গল্প ও চিত্রনাট্য তৈরী করেছেন জিৎ দে। চিত্রগ্রহণে ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আকাশ হক।

চলচ্চিত্রটিতে অভিনয় করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী খায়রুল বাশার, আফসানা আশা, মীর লোকমান, মৃত্যুঞ্জয় মজুমদার, রানা নাসির, অনন্যা পাখি, সাফওয়ান মাহমুদ, মৌসুমি মৌ প্রমুখ। ছবিতে মোট গান রয়েছে তিনটি। গানগুলো গেয়েছেন রুদ্র, লাবণ্য ও শুভ্র।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি