শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২, ০৪:১২ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম
গাজীপুর প্রেসক্লাবে মাসুদুল হক সভাপতি, মাহতাব সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত রেল লাইনে পাথর নেই, মারাত্নক ঝুকি নিয়ে চলাচল করছে ট্রেন ২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে বিহ্মোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয় দেশে পরিবেশ বান্ধব কৃষি ও শিল্প প্রতিষ্ঠান স্থাপনের আহবান বোপমা সভাপতির হাতীবান্ধায় প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণ মামলার মূল আসামী শাহিন গ্রেফতার সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে বরিশালে আ.লীগের বিক্ষোভ মিছিল খেলাপি বৃদ্ধির শীর্ষে ২০ ব্যাংক বিমানবন্দরে ভক্তদের উদ্দেশ্যে যা বললেন শাকিব খান বরিশাল শেবাচিমে অধ্যক্ষের কার্যালয় ঘেরাও করে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ তেলের দাম বাড়ায় ব্যবসায়ীরা সুযোগ নিচ্ছেন: বাণিজ্যমন্ত্রী

বরগুনার আমতলীতে ফের ভয়াবহ অগ্নিকান্ড, ৯টি দোকান ভস্মীভূত

বরগুনা প্রতিনিধি :: বরগুনার আমতলীতে ফের ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে ঘর সহ ৯টি দোকান ভস্মীভূত হয়ে গেছে। গতকাল সকালে উপজেলার কুকুয়া ইউনিয়নের আমড়াগাছিয়া বাজারে এ ঘটনা ঘটেছে। অগ্নিকান্ডে প্রায় সাড়ে তিন কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ক্ষতিগ্রস্থরা দাবী করেছেন।

স্থানীয়রা জানান, সকাল নয়টার দিকে আমড়াগাছিয়া বাজারে একটি তেলের দোকান থেকে আগুনের সুত্রপাত হয়। মূহুর্তেই পাশ্ববর্তী চালের গুদামে ছড়িয়ে পরে। এতে তেল ও চালের গুদামের মালামালসহ ৯টি দোকান পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

খবর পেয়ে আমতলী, পটুয়াখালী ও কলাপাড়ার ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশনের ৪টি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে স্থানীয়দের সহায়তায় প্রায় দুই ঘন্টাব্যাপী চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে।

ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ী সান্টু বলেন, অগ্নিকান্ডে আমি সর্বস্বান্ত হয়ে গেছি। আমার তেলের গুদামের সব পুরে ছাই হয়ে গেছে। আমার প্রায় এক কোটি টাকার মতো ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে।

ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ী রাজীব হোসেন বলেন, আমার সব পুরে নিস্ব হয়ে গেছি। আমার লক্ষ লক্ষ টাকার কিস্তি কিভাবে দিমু। আমার সংসার আমি কিভাবে চালামু।

ক্ষতিগ্রস্থ চালের দোকানদার লিটন হোসেন বলেন, আমার সব পুঁজি দিয়ে আমি দোকান দিয়েছি। এখন কি খামু, কিভাবে চলমু?

আমতলী ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ইনচার্জ গোলাম মোস্তফা জানান, খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে ফায়ার সার্ভিস পৌঁছায়। প্রায় দুই ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। তদন্ত সাপেক্ষে জানা যাবে কেন আগুন লেগেছে।

আমতলী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) একেএম আবদুল্লাহ বিন রশিদ ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান বোরহান উদ্দিন আহমেদ মাসুম তালুকদার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ক্ষতিগ্রস্থদের সহযোগিতা করা হবে বলে আশ্বাস দেন।

উল্লেখ্য, এবছরের ৩ ফেব্রুয়ারি রাতে আমতলী বাঁধঘাট চৌরাস্তায় অগ্নিকাণ্ডে ৮টি দোকান, ২৯ এপ্রিল দুপুরে নতুন বাজার বটতলায় ৫টি দোকান এবং ২৯ মে রাতে কুকুয়া বাজারে ২টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান অগ্নিকাণ্ডে পুরে ছাই হয়ে যায়।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি