মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩:০৭ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম
ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদের প্রভাব, হাতিয়াতে বৃষ্টি, নৌ চলাচল বন্ধ ঘোষণা প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসানকে পদত্যাগের নির্দেশ নওগাঁয় ১৬ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক গণ শপথ অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি মুলক সভা অনুষ্ঠত কারিকুলামে বাল্যবিবাহ রোধ অন্তর্ভূক্ত করা হবে-প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী তথ্য প্রতিমন্ত্রীর বক্তব্য ব্যক্তিগত, দল বা সরকারের নয়: কাদের প্রতিবেশী দেশগুলোতে অবাধে চলাচলের স্বপ্ন দেখি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী সু চির ৪ বছরের কারাদণ্ড শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে রানীশংকৈলে প্রস্তুতি সভা সিনহা হত্যা মামলা : ৩৪২ ধারায় আসামিদের বক্তব্য গ্রহণ শুরু ক্যাটরিনার বিয়েতে যেতে লাগবে কোভিড পরীক্ষার রিপোর্ট

কালিয়াকৈরে স্বামীকে তালাক দেয়ায় স্ত্রীকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা

শাহ আলম সরকার, কালিয়াকৈর প্রতিনিধি :: গাজীপুরের কালিয়াকৈরে বখাটে স্বামীকে তালাক দেয়ায় আগুনে পুড়িয়ে তার স্ত্রীকে হত্যার চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনার পর থেকে তালাকপ্রাপ্ত স্বামী পলাতক রয়েছে। এ ঘটনায় বুধবার বিকেলে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

দগ্ধ হলেন, বগুড়ার শিবগঞ্জ থানার চন্দ্রহাটা গ্রামের মফিজুল ইসলামের স্ত্রী আজেদা বেগম (২৫)। তিনি স্থানীয় মাহমুদ জিমন্স নামে পোশাক কারখানায় কাজ করেন।

এলাকাবাসী, ফায়ার সার্ভিস ও দগ্ধ নারীর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গত ৬-৭ বছর আগে মফিজুলের সঙ্গে পারিবারিকভাবে জয়পুরহাটের কালাই থানার জামুরা এলাকার আনসার শেখের মেয়ে আজেদা বেগমের বিয়ে হয়। এরপর স্বামী-স্ত্রী দুজনে জীবিকার খোঁজে গাজীপুরের কালিয়াকৈরে আসে। পরে তারা দুজনে কালিয়াকৈর পৌরসভার হরতকিতলা এলাকার কদ্দুসের বাড়িতে বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস শুরু করে।

সেখানে ভাড়া থেকে আজেদা স্থানীয় মাহমুদ জিমন্স নামে একটি পোশাক কারখানায় কাজ করে এবং স্বামী মফিজুল রিকশাভ্যান চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতেন। তাদের বৈবাহিক জীবনে আশিক নামে ৫ বছরের এক ছেলে সন্তান রয়েছে। কিন্তু গত ৯-১০ মাস আগে মফিজুল পাশের এক কারখানার নারী শ্রমিককে নিয়ে পালিয়ে যায়। এরপর গত ২০-২২ দিন আগে তিনি আবার আজেদা বেগমের কাছে ফিরে আসে। কিন্তু আজেদা ও তার বাবার বাড়ির লোকজন তাকে মেনে নেননি।

এ নিয়ে তাদের স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিরোধ চলে আসছে। গত কয়েকদিন আগে আজেদা তার স্বামীকে তালাক দেন। এতে তার স্বামী মফিজুল ক্ষিপ্ত হন। এর জেরে স্বামী মফিজুল গত মঙ্গলবার দিবাগত গভীর রাতে তার ঘরসহ তিনটি কক্ষে বাইরে থেকে তালাবদ্ধ করে এবং ঘরে আগুন ধরিয়ে দেয়। পরে মফিজুল ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। এ সময় তালাবদ্ধ ঘরের ভেতর আজেদার ডাকচিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে গিয়ে আগুন নেভাতে ব্যর্থ হয়ে ফায়ার সার্ভিসে খবর দেয়।

খবর পেয়ে কালিয়াকৈর ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন এবং ওই নারীকে দগ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করেন। পরে তার উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় বুধবার বিকেলে দগ্ধ নারীর ভাই আতাউর রহমান বাদী হয়ে কালিয়াকৈর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

কালিয়াকৈর ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন কর্মকর্তা কবিরুল আলম জানান, খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন এবং ওই নারীকে উদ্ধার করেন। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে পাঠিয়েছে। এছাড়া আগুনে ঘরের টিন, কাথা-বালিসসহ বিভিন্ন মূল্যবান মালামাল পুড়ে গেছে।

কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনোয়ার হোসেন চৌধুরী জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, স্ত্রী কর্তৃক তালাকপ্রাপ্ত হলে রাগে বসবত হয়ে রাতের কোনো এক সময় তরল পদার্থ দিয়ে আগুনে পুড়িয়ে তাকে হত্যার চেষ্টা করে থাকতে পারে। তবে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি