মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ০১:৪৫ অপরাহ্ন

ঠাকুরগাঁওয়ে ৭ লক্ষাধিক টাকার ফসল নষ্ট করে ১৩ বিঘা জমি দখল

(ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধি :: ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার রুহিয়া থানার সেনিহাড়ি সরকার পাড়া গ্রামের রাজেকুল ইসলামের জমি জবর দখল নিতে ৭ লক্ষাধিক টাকার সরিষা, আলু, গম ক্ষেত ট্রাক্টরের হাল দিয়ে দিনে- দুপুরে নষ্ট করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

জানাযায়, সদর উপজেলার রুহিয়া থানার অন্তরগত সেনিহাড়ির সরকার পাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। রুহিয়া থানায় ৯ জনসহ অজ্ঞাত আরও ৬/৭ জনের নাম উল্লেখ করে একটি অভিযোগ দিয়েছেন বাদি রাজেকুল ইসলাম। আসামীরা হলেন- হুমায়ন কবির, সাদেকুল ইসলাম, মাজাহারুল ইসলাম, আশরাফুল ইসলাম, আবু সুফিয়ান, রুস্তম আলী, জয়নুল হক, সানি, আবির। এরা সকলেই একই গ্রামের বাসিন্দা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, রাজেকুল ইসলামের রোপিত ১৩ বিঘা জমিতে রোপন করা সরিষা, পেঁয়াজ, আলু, মরিচ, রসুন, ও গমক্ষেতে দিনে-দুপুরে ট্রাক্টরের হাল দিয়ে নষ্ট করা হয়েছে বলে জানান এলাকাবাসী।

মামলা সূত্রে জানাযায়, রাজেকুল ইসলামের সাথে ওয়াকফ সম্পত্তি নিয়ে তার চাচাতো ভাই ও প্রতিবেশীদের দীর্ঘ দিনের জমিসংক্রান্ত বিষয়ে একটা বিরোধ চলছিলো। এবং ওয়াকফ সম্পত্তির মোতওয়ালী হিসেবে নিযুক্ত হওয়ার পর থেকেই রাজেকুলকে বিবাদিরা বিভিন্ন ভাবে হয়রানীও প্রাণে মেরে ফেলার পরিকল্পনা করে আসছিলো। এই মধ্যে সোমবার (৭ ডিসেম্বর) সকালে ৯ জন লাঠি-শোঠা নিয়ে জমিতে প্রবেশ করে মাহিন্দ্র ড্রাইভার আশরাফুল ইসলাম ট্রাক্টর দিয়ে জমিতে রোপন করা পেঁয়াজ, রসুন, আলু, সরিষা, মরিচ ও গম ক্ষেতে হাল চাষ করে ৭ লক্ষাধিক টাকার ফসল নষ্ট করে দেয়। এবং রাজেকুল ও তার স্ত্রীকে মেরে ফেলার হুমকিও তাদের বাড়িঘর জ্বালিয়ে দেওয়াসহ বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখায়।

স্থানীয় নন্দলাল, মামুন, কমলসহ আরো অনেকেই জানান, দীর্ঘ দিন ধরে রাজেকুল ইসলাম ওয়াফক সম্পত্তির ১৩ বিঘা জমির ভোগ করে আসছিলো। কিন্তু কাল সকালে মাহিন্দ্র ড্রাইভার আশরাফুল ইসলামসহ ৯জন লাঠি-শোঠা নিয়ে জমিতে প্রবেশ করে তার রোপিত ফসল ট্রাক্টর দিয়ে হাল চাষ করে নষ্ট করে দেয়। এবং রাজেকুল ও তার স্ত্রীকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়।

বাদি রাজেকুল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন, আমি ওয়াফক সম্পত্তির মালিক হওয়ার সত্যেও একটি মহলের ইন্ধনে আমার ১৩ বিঘা জমির ৭ লক্ষাধিকটাকার ফসল নষ্ট করে দেয়। আমি সুবিচারের জন্য জেলা প্রশাসকসহ বিভিন্ন দফতরে অভিযোগ দায়ের করেছি।

এবিষয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য মো: আব্দুল জব্বার জানান, ওয়াফক সম্পত্তির মালিক রাজেকুল ইসলাম। দীর্ঘ দিন ধরে সে এই সম্পত্তির ভোগ করে আসছেন। একটি কুচক্রী মহল জমিগুলি দখলের পায়তারা করছে।

এব্যাপারে রুহিয়া থানার ওসি চিত্ররঞ্জন কুমার রায় জানান, জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে সদর ইউএনওর কাছে ১৩ বিঘা জমির ফসল নষ্ট করার অভিযোগ দিলে ইউএনওর নির্দেশে সরজমিনে গিয়ে ঘটনার সত্যতা পাওয়া যায়। উপরুক্ত অবস্থার পেরিপেক্ষিতে রাজেকুল ইসলামের নিকট একটি অভিযোগ পত্র নেওয়া হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি