বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:৫৪ অপরাহ্ন

অভিবাসী করোনা যোদ্ধাদের নাগরিকত্ব দিচ্ছে ফ্রান্স

নিউজ ডেস্ক :: ফ্রান্সের যেসব অভিবাসী করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে সামনে থেকে লড়াই করেছেন দ্রুততম সময়ে তাদের নাগরিকত্ব দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশটির সরকার। এর আগে কাজের স্বীকৃতি হিসেবে ফ্রান্সের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় করোনা মোকাবেলায় সহায়তাকারী অভিবাসীদের নাগরিকত্বের আবেদন করার আহ্বান জানান।

এরই মধ্যে সাতশ’র বেশি অভিবাসী নাগরিকত্ব নেওয়ার চূড়ান্ত পর্যায়ে আছেন। যাদের মধ্যে পেশাদার স্বাস্থ্যসেবা কর্মী, পরিচ্ছন্নতাকর্মী ও দোকান মালিকরা অগ্রাধিকার পাচ্ছেন। বিশ্বের শীর্ষ দশ করোনা আক্রান্ত দেশের একটি ফ্রান্স দ্রুত নাগরিকত্ব দেওয়ার এই ঘোষণা প্রথম দেয় সেপ্টেম্বরে।

ফ্রান্সের এই নাগরিকত্ব পেতে এখন পর্যন্ত ২ হাজার ৮৯০ জন অভিবাসী আবেদন করেছেন। মঙ্গলবার নাগরিকত্ব বিষয়ক জুনিয়র মিনিস্টার মারলিন শিয়াপ্পার দপ্তর জানিয়েছে, ‘স্বাস্থ্যকর্মী, নারী পরিচ্ছন্নকর্মী, শিশু পরিচর্যা কর্মী ও চেকআউট কর্মীরা সবাই ফ্রান্সের প্রতি প্রতিশ্রুতির প্রমাণ দিয়েছেন, এখন ফ্রান্সের দায়িত্ব তাদের জন্য কিছু করা।’

নিয়ম অনুযায়ী, ফ্রান্সের নাগরিকত্ব পেতে দেশটিতে টানা ৫ বছর বসবাস করতে হয়। সঙ্গে স্থিতিশীল আয় ও ফরাসি সংস্কৃতির প্রতি শ্রদ্ধাশীল থাকতে হয়। কিন্তু ‘কোভিড কর্মীরা’ দুই বছর বসবাস করলেই নাগরিকত্ব পাবেন বলে জানিয়েছে দেশটির সরকার।

২০১৭ সাল পর্যন্ত ফ্রান্সের অভিবাসী ছিল ৬৪ লাখ। দেশটিকে নাগরিকত্ব পাওয়ার বেশ জটিল ও দীর্ঘ প্রক্রিয়া। এছাড়া ২০১৮’র তুলনায় ২০১৯ সালে নাগরিকত্ব দেওয়ার হার কমেছে ১০ শতাংশ। তবে এর আগেও দেশটির প্রতি কৃতজ্ঞতা দেখিয়ে নাগরিকত্ব পওয়ার ঘটনা আছে। ফ্রান্সে এ পর্যন্ত ২৫ লাখেরও বেশি করোনা শনাক্ত হয়েছে। মারা গেছেন প্রায় ৬২ হাজার মানুষ।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি