শুক্রবার, ১৮ Jun ২০২১, ০৮:০৩ পূর্বাহ্ন

ভারতের লকডাউন আরও দু সপ্তাহ বাড়ল

ভারতে লকডাউনের মেয়াদ আরও দু’সপ্তাহ বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

আগামী কাল রবিবার ৩মে লকডাউন শেষ হওয়ার কথা ছিল, কিন্তু তার আগেই শুক্রবার সন্ধ্যায় বিজ্ঞপ্তি জারি করে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক এর মেয়াদ বৃদ্ধি করে আগামী ১৭ মে পর্যন্ত লকডাউন জারি রাখার কথা বলেছে।

সারা দেশেই গণপরিবহন, স্কুল-কলেজ-শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। হোটেল-রেস্তোরাঁ, সিনেমা হল, শপিং মলও খোলা যাবে না।

কোনও ধরনের সামাজিক, রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক বা ধর্মীয় সমাবেশ করা যাবে না। বন্ধ থাকবে ধর্মীয় স্থানগুলিও।

জরুরি প্রয়োজন ছাড়া অন্য কোনও কাজে সন্ধ্যা ৭টা থেকে পরের দিন সকাল ৭টা পর্যন্ত বাড়ির বাইরে বেরনো যাবে না।

মেয়াদ বাড়ানো হলেও অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড শুরু করতে লকডাউনের এই তৃতীয় পর্যায়ে কড়াকড়ি অনেকটা শিথিলও করা হয়েছে।

সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার ওপরে ভিত্তি করে যে তিনটি জোন বা ক্ষেত্রে ভাগ করা হয়েছে, শিথিলতাও সেই এলাকাভিত্তিকই হবে।

যে এলাকা কনটেইনমেন্ট জোন হিসাবে ঘোষিত হয়েছে, সেগুলি চারদিক দিয়ে সিল করতে হবে। শুধুমাত্র চিকিৎসা আর অত্যাবশ্যকীয় পণ্য সরবরাহের জন্য সিল করা এলাকা থেকে বেরনো বা প্রবেশ করা যাবে। বাকি সবধরণের কর্মকাণ্ড বন্ধই থাকবে ওই এলাকায়।

সিল হওয়া এলাকার বাইরে যে রেড জোন বা সংক্রমিত এলাকা পড়ছে, তার মধ্যে গ্রামীণ অঞ্চলে সবধরনের কলকারখানা, নির্মাণকাজ চালু হবে।

আর শহরাঞ্চলের রেড জোনে শুধু বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল, রফতানি পণ্য উৎপাদন, অত্যাবশ্যকীয় পণ্য সরবরাহ, আইটি হার্ডওয়্যার কারখানা, চটকল চালু করা যাবে। ওই এলাকায় ছোট পাড়ার দোকানগুলোও খোলা যাবে।

বেসরকারি অফিসের মোট কর্মীসংখ্যার ৩৩% কর্মী নিয়ে চালু করা যাবে, বাকিদের বাড়ি থেকে কাজ করতে হবে।

অরেঞ্জ জোনে ট্যাক্সি আর গাড়ি যাতায়াতে শর্তসাপেক্ষে ছাড় দেওয়া হবে। চালক ছাড়া আর দুজন যাত্রী থাকতে পারবেন একটি গাড়িতে। এক জেলা থেকে অন্য জেলায় যাতায়াতও করা যাবে।

গ্রিন জোনে অবশ্য ৫০% যাত্রী নিয়ে বাস চলতে পারবে। শপিং মল, সিনেমা হল, স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়, রেস্তোঁরা ছাড়া সব কাজকর্মই স্বাভাবিকভাবে করা যাবে এই এলাকায়।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি