মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ০৯:২২ অপরাহ্ন

উপহারসহ সুস্থ তিন করোনা রোগীকে বাড়ি দিয়ে আসলো চিকিৎসকরা

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি : লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে করোনা যুদ্ধে জয়ী নারীসহ তিনজনকে উপহারসহ বাড়ি দিয়ে এসেছে চিকিৎসকরা। সোমবার (৪ মে) বিকেলে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. রেজাউল করিম রাজিব নিজে তাদেরকে বাড়ি পৌঁছে দেন। হাসপাতাল থেকে ছাড় দেওয়ার সময় চিকিৎসক ও সেবিকারা করতালি দিয়ে তাদেরকে শুভেচ্ছা জানাই।

করোনামুক্তরা হলেন উপজেলার চর মার্টিন এলাকার নয়ন আক্তার, চর ফলকন গ্রামের মো. ইব্রাহিম ও চর লরেন্স এলাকার শিশু রিহান।

জানা গেছে, গত ১৬ এপ্রিল বৃহস্পতিবার কমলনগরে নারী ও শিশুসহ তিনজনের করোনা শনাক্ত হয়। এরপর থেকে এক সপ্তাহ তাদেরকে নিজ নিজ বাড়িতে হোম কোয়ারেন্টাইনে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

পরে তাদেরকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এসময় তাদেরকে চিকিৎসাসহ হাসপাতালের বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধার পাশিপাশি বাহির থেকে ওষুধ, ইফতারি, খাবার, শিশুখাদ্য ও বিশুদ্ধ পানি দিয়ে ব্যক্তিগতভাবে পাশে দাঁড়িয়েছেন হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার রেজাউল করিম রাজিব। করোনা থেকে সুস্থ্য হওয়ায় করতালির মাধ্যমে হাসপাতাল থেকে বিদায় জানাও হয়েছে। পরে চিকিৎসক রাজিব নিজেই তাদেরকে বাড়ি পৌঁছে দেয়।

চিকিৎসক রেজাউল করিম রাজিব বলেন, নারায়ণগঞ্জ থেকে আসা নয়ন আক্তারের নমুনা সংগ্রহ করতে তিন বার তার বাড়ি যেতে হয়েছে। তিনি পালিয়ে গেছেন। আত্মগোপন থেকে বের করে তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল। চিকিৎসা ওই নারীসহ তিনজন সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরছেন।

লক্ষ্মীপুর জেলা সিভিল সার্জন আবদুল গাফ্ফার বলেন, উপজেলায় করোনা আক্রান্ত পাঁচ জনের মধ্যে ৩ জন সুস্থ্য হয়েছেন। চিকিৎসাকালীন পরবর্তী দু’টি নমুনা পরীক্ষায় তাদের করোনা নেগেটিভ আসে। তারা এখন করোনা ভাইরাস মুক্ত ও শারিরিকভাবে সুস্থ্য হওয়ায় তাদেরকে বাড়িতে দিরিয়ে দেওয়া হয়েছে। এ উপজেলায় এখনো করোনা আক্রান্ত চিকিৎসক ও ১০ মাসের এক শিশুর চিকিৎসা চলছে।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি জেলার রামগঞ্জে প্রথম ও রামগতিতে দ্বিতীয় করোনা আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়েছে। এনিয়ে জেলায় ৫ জন করোনা মুক্ত হয়েছেন। এ জেলায় এখনো ৩৯ জন করোনা রোগীকে সদর হাসপাতাল ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইশোলেশন ওয়ার্ডে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগিতায়: