শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০২:৫১ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম
আবারও ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে সিঙ্গাপুরে চিকিৎসাধীন সাবিনা ইয়াসমিন বিএনপির আন্দোলনে অবশ্যই সরকার পরিবর্তন হবে: নজরুল আগামীতে পেঁয়াজ আমদানি করতে হবে না: প্রধানমন্ত্রী বিশ্ব বাজারে জ্বালানি তেলের দাম কমেছে শিবালয়ে রাজ্জাক কে নতুন ঘর তুলে দিলেন শতরুপা ফাউন্ডেশন জামালপুরে দরিদ্র শিশুদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ নোয়াখালীতে দাখিল পরীক্ষায় দায়িত্বে অবহেলা ও নকলে সহযোগিতার অপরাধে ৮ শিক্ষককে অব্যাহতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রশিদ চেয়ারম্যান এর লাশ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন ছুটির দিনে জমজমাট বইমেলা, ক্রেতার চেয়ে বেশি দর্শনার্থী সীমান্ত হত্যা বন্ধে হানিফ বাংলাদেশীর প্রতীকী লাশের মিছিল এখন বকশীগঞ্জে

কবিতার ভাষা

আজমাইন ফায়েক আবির

নিরবধি কাল পেরিয়ে আমি একটি কবিতা আঁকবার কারণ খুঁজে পাই

যে কারণ সম্পূর্ণ নিষ্কলুষ; এতটাই
যতটা তোমায় কেন্দ্র করে আমার প্রেম
সেই কবিতায় লিপিবদ্ধ থাকে তোমাকে ঘিরে আমার-

যন্ত্রণা, ক্ষোভ, আর না পাওয়ার রোষাবেশ যত

তুমি নিষ্পলক নির্বাক তাকিয়ে থাকো,
নচেত তুমি সেই কবিতার বাগিবধি বুঝতে পারো না

আমার কবিতারা কিছু বলতে চায়
তবে তারা ব্যর্থ;

আমায় এসে একে একে অভিযোগ পত্র লিখে যায়
তুমি নাকি তাদের ভাষা পড়তে জানো না
তোমারও প্রাণ ব্যাকুল হয়ে পড়ে-জন্ম নেয় তৃষ্ণা,
কবিতার ভাষা না পড়তে পারবার আক্ষেপ!
তোমায় ভীষণ মর্মাহত করে,
বিন্দু-বিন্দু ঘাম জমে ওঠে ভ্র-লেখায়
তবুও তুমি চাও তোমায় কেউ বুঝুক
তবে, তুমি কী আমার চোখ জোড়াও পড়তে জানো না?
কোনো এক দিবসে অথবা সন্ধ্যালগ্নে-

তোমার সম্মুখে বসে আমি লিখা কবিতাগুলো পাঠ করে শোনাবো

তুমি শুধু নিহারা করো আমার চোখের দিকে
ধৈর্য কুলাবে তো গো তোমার?

আমার বাদামি বর্ণের কনীনিক কৃষ্ণছায়া গহরে

তোমার দৃষ্টি বিদ্ধ থাকবে

সেই চোখের গভীরে দূর কোনো আলোকপাতে
হঠাৎ যখন তোমার বিভ্রম ভাঙবে
আমি তখন প্রশ্ন করবো-
কবিত্র চোখ জোড়া দেখেছো কভু?
আমার চোখই তো কবিতা বলে

 

শিক্ষার্থী, দর্শন বিভাগ
সরকারি তিতুমীর কলেজ
মহাখালী, ঢাকা


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগিতায়: