শনিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৮:২৩ অপরাহ্ন

সিরাজগঞ্জ-৪ আসনের এমপি তানভীর ইমাম’র ব্যাতিক্রমী আয়োজন

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি :: সিরাজগঞ্জ-৪ (উল্লাপাড়া-সলঙ্গা) আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য তানভীর ইমাম এমপি’র জনসম্পৃক্ততা বৃদ্ধির মাধ্যমে ত’নমূলে উন্নয়ন কর্মকান্ড ত্বরান্বিত করন ও সাংগঠনিক শক্তি বৃদ্ধির সৃজনশীল আয়োজন চা-চক্র বা চা-আড্ডা। ব্যাতিক্রমী এই আয়োজনের মাধ্যমে প্রান্তিক পর্যায়ের নেতা-কর্মি ও জনসাধারন সরাসরি তাদের ভোটে নির্বাচিত সাংসদের সাথে ব্যাক্তিগত ও সমষ্ঠিগত সমস্যা, সম্ভাবনা বিষয়ে মতবিনিময়ের সুযোগ পাচ্ছে। ইতিমধ্যেই উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নে চা-চক্র অনুষ্ঠিত হওয়ায় গতি ফিরেছে উন্নয়ন ও সাংগঠনিক কর্মকান্ডে। চা-আড্ডা’র ফল মিলেছে ইউপি নির্বাচনেও। ব্যাতিক্রমী এই আয়োজন অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন সাংসদ ও উপজেলা আওয়ামীলীগ।

গত শুক্রবার (১৭ ডিসেম্বর) বিকেলে উপজেলার বাঙ্গালা ইউনিয়নের প্রত্যান্ত কুচিয়ামাড়া এলাকায় কুচিয়ামাড়া ডিগ্রি কলেজ মাঠ প্রাঙ্গনে চা-আড্ডা অনুষ্ঠিত হয়। হাজারো মানুষের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত চা-আড্ডায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিরাজগঞ্জ-৪ (উল্লাপাড়া-সলঙ্গা) আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য তানভীর ইমাম এমপি।

বাঙ্গালা ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি সোহেল রানা সোহেলের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ফয়সাল কাদের রুমি, সাধারন সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফা, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান পান্না, রিবলী ইসলাম কবিতা, জেলা পরিষদ সদস্য হাফিজুর রহমান হাফিজ, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক, সাবেক ভিপি মীর আরিফুল ইসলাম উজ্জল প্রমূখ। চা-চক্রে এলাকার সার্বিক উন্নয়ন ও আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক শক্তি বৃদ্ধি বিষয়ে নানা দিক তুলে ধরেন তৃনমূলের কর্মি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক, রওশন আলম ও ওমর আলী।

তৃণমূল নেতা-কর্মি ও জনসাধারনের দাবি এবং মতামত শুনে বাঙ্গালা ইউনিয়নের সার্বিক উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে বাকি থাকা রাস্তা-ঘাট পাকা করন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান উন্নয়ন ও ওয়ামীলীগকে শক্তিশালি করার দায়িত্ব গ্রহন করেন সাংসদ তানভীর ইমাম। নেতা-কর্মিরা বলেন, চা-আড্ডার ফল মিলেছে গত মাসে অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনেও। উল্লাপাড়া উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নে চা-আড্ডার মাধ্যমে তৈরি হওয়া জনমত ও শক্তিশালি গঠনিক ভিত নৌকা প্রতিকের আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থীদের বিজয়ী করতে ভ’মিকা রেখেছে। চা-আড্ডায় স্থানীয় জনসাধারনের মতামত নিয়ে কাঙ্খিত উন্নয়ন করা ও তৃনমূল পর্যায়ের নেতা-কর্মিদের সমস্যা সমাধান করায় জনসাধারন ও নেতা-কর্মিরা ঐক্যবদ্ধ থেকেছে আওয়ামীলীগ প্রার্থীর পক্ষে। ফলে শত প্রতিক’লতা ও ষড়যন্ত্র সত্বেও ১২টি ইউনিয়নে নৌকা প্রতিকের আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থীরা নিরুঙ্কুশ বিজয় অর্জন করেছে।

চা-চক্রে মতামত তুলে ধরা স্থানীয় ওমর আলী বলেন, আমরা আবেগাপ্লুত, আমাদের সাংসদ আমাদের সাথে চা খেয়েছেন, আমাদের কথা মনোযোগ সহকারে শুনেছেন স্বাধীনতার পর এমন কোন নজির নেই যে, কোন সাংসদ এত প্রান্তিক পর্যায়ে চা-চক্রে এসে জনসাধারনের মতামত গ্রহন করেছেন।

বাঙ্গালা ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি সোহেল রানা সোহেল বলেন, অতীতের যে কোন সময়ের চেয়ে বাঙ্গালায় আওয়ামীলীগ আজ অনেক বেশি শক্তিশালি, স্থানীয় সাংসদ জননেতা তানভীর ইমামের নেতৃত্ব ও ব্যাতিক্রমী সাংগঠনিক কর্মকান্ডে এই অবস্থান তৈরি হয়েছে। কুচিয়ামারায় চা-চক্রে স্থানীয়দের মতামত শুনে তিনি বাঙ্গালা ইউনিয়নের সার্বিক উন্নয়নের দায়িত্ব নিজ কাধে নিয়েছেন।

উল্লাপাড়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান পান্না বলেন, উল্লাপাড়ার সার্বিক উন্নয়নের যে গতি তা তানভীর ইমাম এমপি মহোদয়ের চা-আড্ডার সাথে সাথে আরো বেগবান হচ্ছে। কারন জনগনের ভোটে নির্বাচিত সাংসদ সরাসরি জনসাধারনের কাছে যাচ্ছেন, তাদের সমস্যা সম্ভাবনার কথা শুনছেন, সেই অনুযায়ি উন্নয়ন কর্মকান্ড পরিচালনা করার নির্দেশনা দিচ্ছেন সংশ্লিষ্ঠ দপ্তরগুলোকে।

উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফা বলেন, তানভীর ইমাম এমপি’র চা-আড্ডা’র মাধ্যমে তৃনমূলের কর্মিরা সাংগঠনিক বিভিন্ন দিক এমপি মহোদয়ের সামনে তুলে ধরছেন। কোন নেতা কি ভ’মিকা রাখছেন নির্ভয়ে সেই কথাগুলো জানাচ্ছেন। এতে এমপি মহোদয় সাংগঠনিক শক্তি ও দুর্বলতার কথা জানতে পারছেন, সে অনুযায়ি উপজেলা আওয়ামীলীগকে নির্দেশনা দিচ্ছেন। আসলে ব্যাতিক্রমী এ ধরনের কর্মকান্ড উল্লাপাড়া উপজেলা আওয়ামীলীগকে একটি শক্তিশালি ভিত্তির উপর দার করিয়েছে।

সিরাজগঞ্জ-৪ (উল্লাপাড়া-সলঙ্গা) আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য তানভীর ইমাম এমপি বলেন, সিরাজগঞ্জ-৪ সংসদীয় আসনটি জনসংখ্যার দিক থেকে দেশের অন্যতম বৃহৎ একটি সংসদীয় আসন। এত বিপুল জনসংখ্যার সমস্যা-সম্ভাবনা জানতে সরাসরি তাদের কাছে যাওয়ার বিকল্প নেই। যার ফলে শত ব্যাস্ততার মাঝেও আওয়ামীলীগের তৃনমূল নেতা-কর্মি ও জনসাধারনের সাথে চা-আড্ডায় মিলিত হচ্ছি। তাদের কথা শুনছি, এতে সার্বিক উন্নয়ন পরিচালনায় সুবিধা হচ্ছে।

জনপ্রিয় এই সাংসদ আরো বলেন, উল্লাপাড়া আওয়ামীলীগ আজ অতীতের যে কোন সময়ের চেয়ে অনেক বেশি শক্তিশালি, গতীশীল। তৃনমূল কর্মি ও জনসাধারনের সাথে সরাসরি মতবিনিময়ের মাধ্যমে রাজনীতি ও উন্নয়নে স্থানীয়দের মতামতের প্রতিফলন ঘটছে। আগামী দিনেও এই ধারাবাহিকতা বজায় থাকবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি