মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩:১৭ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম
ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদের প্রভাব, হাতিয়াতে বৃষ্টি, নৌ চলাচল বন্ধ ঘোষণা প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসানকে পদত্যাগের নির্দেশ নওগাঁয় ১৬ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক গণ শপথ অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি মুলক সভা অনুষ্ঠত কারিকুলামে বাল্যবিবাহ রোধ অন্তর্ভূক্ত করা হবে-প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী তথ্য প্রতিমন্ত্রীর বক্তব্য ব্যক্তিগত, দল বা সরকারের নয়: কাদের প্রতিবেশী দেশগুলোতে অবাধে চলাচলের স্বপ্ন দেখি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী সু চির ৪ বছরের কারাদণ্ড শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে রানীশংকৈলে প্রস্তুতি সভা সিনহা হত্যা মামলা : ৩৪২ ধারায় আসামিদের বক্তব্য গ্রহণ শুরু ক্যাটরিনার বিয়েতে যেতে লাগবে কোভিড পরীক্ষার রিপোর্ট

করোনার ভয়াবহতা এখনও বাকি: ডব্লিউএইচও

নিউজ ডেস্ক : সারাবিশ্বে মহামারি করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে ছয় মাস পেরিয়ে গেল। এ মহামারিতে আক্রান্ত হয়েছে এক কোটির বেশি মানুষ, কেড়ে নিয়ে পাঁচ লাখেরও বেশি প্রাণ। এরই মধ্যে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) প্রধান টেটেড্রোস আধানম গেব্রেয়েসুস হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, করোনা সংক্রমণের ভয়াবহ পরিস্থিতি দেখা এখনো বাকি।

সোমবার জেনেভা থেকে এক ভার্চ্যুয়াল ব্রিফিংয়ে তিনি বলেন, ‘সরকারগুলো সঠিক পদক্ষেপ না নিলে বিশ্বের আরও অনেক মানুষ করোনাভাইরাসের শিকার হবে।’ খবর বিবিসির।

ডব্লিউএইচওর মহাপরিচালক আরও বলেন, ‘আমরা চাই এ মহামারির অবসান হোক। আমরা সবাই বেঁচে থাকতে চাই। তবে কঠিন বাস্তবতা হচ্ছে পরিস্থিতি কাটছে না। করোনা মোকাবেলায় অনেক দেশ কিছু কিছু উন্নতি করেছে, কিন্তু প্রকৃতপক্ষে বিশ্বজুড়ে ভাইরাসটি দ্রুতগতিতে ছড়াচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘করোনায় মারা যাওয়া ব্যক্তিদের অর্ধেকের বেশি যুক্তরাষ্ট্রে ও ইউরোপের। বর্তমানে আমেরিকান অঞ্চলগুলোতে ভাইরাসটি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে। এছাড়া দক্ষিণ এশিয়া এবং আফ্রিকাও ছড়িয়ে পড়েছে, যেসব দেশে জুলাই মাসের শেষের আগে সংক্রমণের চূড়ায় পৌঁছানোর আশা করা যায় না।’

টেড্রোস বলেন, ‘এক কোটি আক্রান্ত আর পাঁচ লাখ মানুষের মৃত্যু সত্ত্বেও ডব্লিউএইচও একটি সমস্যা দেখতে পাচ্ছে, সেটি হচ্ছে, জাতীয় ঐক্য ও বৈশ্বিক সংহতির অভাব। একইসঙ্গে করোনার বিস্তার রোধে সহায়তা না করে বিশ্ব বিভক্ত হয়ে পড়েছে। দুঃখের সঙ্গে বলতে হচ্ছে এমন অবস্থায়, আমরা আরও ভয়াবহতার ভয় পাচ্ছি।

ব্রিফিংয়ে তিনি করোনা মোকাবেলায় সফল হিসেবে জার্মানি, দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানের নাম উল্লেখ করেন। অন্যান্য দেশকে তাদের নীতি অনুসরণ করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ”সব দেশের সরকারকে সঠিক পদক্ষেপ বাস্তবায়ন শুরু করতে হবে। করোনা ঠেকাতে সেই আগের বার্তাই উপযুক্ত, সেটি হচ্ছে, ‘পরীক্ষা, শনাক্ত, আইসোলেশন ও কোয়ারেন্টাইন।’ পরীক্ষা ও শনাক্ত কঠিন বলে অনেক দেশ খোড়া অজুহাত দেখাচ্ছে।”

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি