শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৯:১৫ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম
হাতিয়ার উন্নয়নে সরকারের স্মার্ট বাংলাদেশ কর্মসূচিকে কাজে লাগানো হবে – মোহাম্মদ আলী এমপি সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে ৩৯ বছর পর জমি ফিরে পেলেন যদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা পরিবার শিবালয়ে ১৫তম  মাই টিভির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত  ক্রীড়াবিদরা দেশের জন্য সম্মান বয়ে আনছে- ধর্মমন্ত্রী উজিরপুরে সৎসঙ্গ ফাউন্ডেশনের সেমিনার অনুষ্ঠিত শিবালয়ে গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্যবাহী লাঠিবাড়ি খেলা অনুষ্ঠিত লঞ্চের দড়ি ছিঁড়ে ৫ জনের মৃত্যু : আসামিদের তিন দিনের রিমান্ড ঈদের দিনে সদরঘাটে দুর্ঘটনায় ঝরল ৫ প্রাণ সৌদির সাথে মিল রেখে নোয়াখালীর ৪ গ্রামে ঈদ উদযাপন নোয়াখালীতে দুর্বৃত্তরা ঘর আগুনে পুড়ে দিয়েছে, ১০ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি

করোনার ভয়াবহতা এখনও বাকি: ডব্লিউএইচও

নিউজ ডেস্ক : সারাবিশ্বে মহামারি করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে ছয় মাস পেরিয়ে গেল। এ মহামারিতে আক্রান্ত হয়েছে এক কোটির বেশি মানুষ, কেড়ে নিয়ে পাঁচ লাখেরও বেশি প্রাণ। এরই মধ্যে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) প্রধান টেটেড্রোস আধানম গেব্রেয়েসুস হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, করোনা সংক্রমণের ভয়াবহ পরিস্থিতি দেখা এখনো বাকি।

সোমবার জেনেভা থেকে এক ভার্চ্যুয়াল ব্রিফিংয়ে তিনি বলেন, ‘সরকারগুলো সঠিক পদক্ষেপ না নিলে বিশ্বের আরও অনেক মানুষ করোনাভাইরাসের শিকার হবে।’ খবর বিবিসির।

ডব্লিউএইচওর মহাপরিচালক আরও বলেন, ‘আমরা চাই এ মহামারির অবসান হোক। আমরা সবাই বেঁচে থাকতে চাই। তবে কঠিন বাস্তবতা হচ্ছে পরিস্থিতি কাটছে না। করোনা মোকাবেলায় অনেক দেশ কিছু কিছু উন্নতি করেছে, কিন্তু প্রকৃতপক্ষে বিশ্বজুড়ে ভাইরাসটি দ্রুতগতিতে ছড়াচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘করোনায় মারা যাওয়া ব্যক্তিদের অর্ধেকের বেশি যুক্তরাষ্ট্রে ও ইউরোপের। বর্তমানে আমেরিকান অঞ্চলগুলোতে ভাইরাসটি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে। এছাড়া দক্ষিণ এশিয়া এবং আফ্রিকাও ছড়িয়ে পড়েছে, যেসব দেশে জুলাই মাসের শেষের আগে সংক্রমণের চূড়ায় পৌঁছানোর আশা করা যায় না।’

টেড্রোস বলেন, ‘এক কোটি আক্রান্ত আর পাঁচ লাখ মানুষের মৃত্যু সত্ত্বেও ডব্লিউএইচও একটি সমস্যা দেখতে পাচ্ছে, সেটি হচ্ছে, জাতীয় ঐক্য ও বৈশ্বিক সংহতির অভাব। একইসঙ্গে করোনার বিস্তার রোধে সহায়তা না করে বিশ্ব বিভক্ত হয়ে পড়েছে। দুঃখের সঙ্গে বলতে হচ্ছে এমন অবস্থায়, আমরা আরও ভয়াবহতার ভয় পাচ্ছি।

ব্রিফিংয়ে তিনি করোনা মোকাবেলায় সফল হিসেবে জার্মানি, দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানের নাম উল্লেখ করেন। অন্যান্য দেশকে তাদের নীতি অনুসরণ করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ”সব দেশের সরকারকে সঠিক পদক্ষেপ বাস্তবায়ন শুরু করতে হবে। করোনা ঠেকাতে সেই আগের বার্তাই উপযুক্ত, সেটি হচ্ছে, ‘পরীক্ষা, শনাক্ত, আইসোলেশন ও কোয়ারেন্টাইন।’ পরীক্ষা ও শনাক্ত কঠিন বলে অনেক দেশ খোড়া অজুহাত দেখাচ্ছে।”


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগিতায়: