বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৭:৪০ অপরাহ্ন

শিরোনাম
পটুয়াখালীতে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এর জন্মদিন পালিত লাঠির সঙ্গে পতাকা নিয়ে এলে খবর আছে: বিএনপিকে কাদের গাজীপুর সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রীর ৭৬ তম জন্মদিন উপলক্ষে দোয়া অনুষ্ঠিত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন আজ দুমকিতে বাল্য বিয়ে প্রতিরোধ বিষয়ক সমন্বয় সভা সুন্দরগঞ্জে বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার ৭৬ তম জন্মবার্ষিকী পালিত বাধ্য না হলে র‌্যাব গুলি ছোড়ে না: বিদায়ী ডিজি ময়মনসিংহের ভালুকায় সুতার কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, ২৫ লাখ টাকার ক্ষয়-ক্ষতি কল ড্রপ হলেই ক্ষতিপূরণ পাবেন গ্রাহক সাকিব-মোস্তাফিজ-সোহানের পর দল পেলেন তাসকিন

চাঞ্চল্যকর এমপি লিটন হত্যাকান্ডে মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত আসামী চন্দন গ্রেফতার

সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি :: গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় সাবেক এমপি মঞ্জুরুল ইসলাম লিটনের চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলায় মৃত্যুদন্ড প্রাপ্ত পলাতক আসামি চন্দন কুমার রায়কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। গত রোববার রাতে সাতক্ষীরার ভোমরা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

এমপি লিটন হত্যাকান্ডের প্রধান সমন্বয়কারী ছিলেন চন্দন কুমার রায়। হত্যাকান্ডের পর থেকেই তিনি পলাতক ছিলেন। লিটন হত্যা মামলার রায়ে আসামি হিসাবে তাকে মৃত্যুদন্ড করেন আদালত। পলাতক থাকায় তার বিরুদ্ধে ইন্টারপোলের রেড নোটিশও জারি করা হয়েছিল। উল্লেখ্য সুন্দরগঞ্জ উপজেলার সর্বানন্দ ইউনিয়নের মধ্য সাহাবাজ গ্রামের মাস্টার পাড়ার নিজ বাড়িতে ২০১৬ সালের ৩১ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় ঘাতকের গুলিতে নিহত হন এমপি মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন। তিনি ওই সময় ২৯, গাইবান্ধা-১, সুন্দরগঞ্জ আসনের সরকার দলীয় সংসদ সদস্য ছিলেন।

২০১৯ সালের ২৮ নভেম্বর চাঞ্চল্যকর এ হত্যা মামলার রায় ঘোষণা করেন গাইবান্ধা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক দিলীপ কুমার ভৌমিক। এ মামলায় গ্রেফতার ৭ আসামির মধ্যে একজন কারাগারে অসুস্থ হয়ে মারা যায়। চন্দন কুমার রায় বরাবরেই পলাতক ছিলেন। রায় ঘোষণার সময় ছয় জন আদালতে উপস্থিত ছিলেন। আসামি চন্দন কুমারের অনুপস্থিতিতেই রায় ঘোষণা করা হয়। দীর্ঘদিন পলাতক থাকার পর অবশেষে সীমান্ত জেলা সাতক্ষীরার ভোমরা এলাকায় র‌্যাবের হাতে ধরা পড়েন এই মৃত্যুদন্ড প্রাপ্ত আসামি।

এ বিষয়ে সুন্দরগঞ্জ থানার ওসি সরকার ইফতেখারুল মোকাদ্দেম র‌্যাবের বরাত দিয়ে জানান চন্দন র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার হয়েছে। এদিকে চন্দন গ্রেফতার হওয়ার সংবাদে সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় আওয়ামীলীগ দলীয় নেতা কর্মী ও সাধারণ মানুষের মাঝে স্বস্তির নিশ্বাস ফিরে আসে। মামলার বাদী লিটনের বড় বোন ফাহমিদা কাকলী জানান, আমরা খুব খুশি। চন্দনকে ফাঁসির কাস্টে ঝুলালে লিটনের আত্মা শান্তি পাবে। এব্যাপারে দ্রুত ফাঁসি কার্যকর করার জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি জোর দাবি জানাই।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি