রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৩:৩১ অপরাহ্ন

সফরের প্রস্তুতি নিতে বলেছে বিসিবি

নিউজ ডেস্ক : শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড (এসএলসি) থেকে প্রয়োজনীয় বার্তা চলে এসেছে বিসিবিতে! দেশটির জাতীয় দৈনিক সিলন টুডে লিখেছে, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে বায়োসিকিউর বাবল সংশোধন করে দিয়েছে এসএলসিকে। লঙ্কান বোর্ড সেটা ই-মেইলে পাঠিয়েছে বিসিবিকে। যদিও বিসিবির প্রধান নির্বাহী (সিইও) নিজামউদ্দিন চৌধুরী জানান, এসএলসির মেইল গতকাল পর্যন্ত পাননি তারা। একই কথা বলেন ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান আকরাম খান।

তবে ভেতরের খবর অন্য, ক্রিকেটার ও টিম ম্যানেজমেন্টের সদস্যদের চূড়ান্ত প্রস্তুতি নিতে বলা হয়েছে লঙ্কা সফরের জন্য।

বিশেষ উড়ানে মুমিনুলদের কলম্বো যাওয়ার কথা ২৭ সেপ্টেম্বর। জানা গেছে, সেখানে কিছুটা পরিবর্তন আনা হতে পারে। অক্টোবরের শুরুতে যেতে পারে দল। আরেকটি বিকল্পের কথাও প্রচার আছে ক্রিকেটপাড়ায়, ডিসেম্বরে পিছিয়ে দেওয়া হবে সফরটি। কারণ নভেম্বরে সবকিছু স্বাভাবিক করার পরিকল্পনা নিয়েছে শ্রীলঙ্কা সরকার। সেটা হলে ডিসেম্বরে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনের বাধ্যবাধকতা থাকবে না। বায়ো-বাবলের ভেতরে অনুশীলন করতে পারবে টাইগাররা।

ডিসেম্বরের ওই সময়ে লঙ্কা সফরে আসার কথা ছিল দক্ষিণ আফ্রিকা দলের। সিরিজটি বাতিল হওয়ায় সেখানে বাংলাদেশকে নেওয়া হতে পারে বলে আলোচনা রয়েছে। ক্রিকেটাররাও এই গুঞ্জন শোনার পর লঙ্কা সফর নিয়ে ভীষণ অস্বস্তিতে পড়েছেন।

ক্রিকেটাররা হোটেলে উঠেছেন ২০ সেপ্টেম্বর। বায়োসিকিউর বাবলের একঘেয়ে কর্মকাণ্ডে এ ক’দিনেই হাঁপিয়ে উঠেছেন খেলোয়াড়রা। সেখানে ঢাকায় আরও বেশি দিন আইসোলেশন ক্যাম্প করতে হলে মানসিক যন্ত্রণা বাড়বে বলে মনে করছেন ক্রিকেটাররা। বায়োসিকিউর বাবলের নিয়মে নির্ধারিত গণ্ডির বাইরে যেতে পারেন না টিম বাংলাদেশের সদস্যরা। হোটেলের ভেতরেও স্বাধীনভাবে ঘোরাফেরার সুযোগ নেই। সময় কাটাতে হয় ক্যারম ও টেবিল টেনিস খেলে। গত দু’দিনে ক্যারম ও টেবিল টেনিস বোর্ড কিনে দিয়েছে বিসিবি। বিকল্প বিনোদন খোঁজা হচ্ছে বলে জানান দলের একজন সদস্য। এর কারণ হলো, হোটেলে বেশি দিন থাকতে হলে খেলোয়াড় ও সাপোর্ট স্টাফরা যেন মানসিকভাবে ভেঙে না পড়েন। তবে এ মুহূর্তে ক্রিকেটারদের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে ডাম্বুলার কোয়ারেন্টাইনের সময়।

নাম গোপন রাখার শর্তে একজন ক্রিকেটার বলেন, ‘এখানে ১০ দিন হোটেলে থাকার পর ওখানে গিয়ে ১৪ দিন বন্দি থাকা সম্ভব হবে না। অনুশীলনের সুবিধা থাকলেও কাজটা কঠিন হয়ে যাবে। কারণ দিনে অনুশীলন থাকে তিন থেকে চার ঘণ্টা। বাকি সময় কীভাবে কাটবে বুঝতে পারছি না।’

সে যাই হোক, এসএলসি বায়ো-বাবল প্ল্যান পাঠালেও কলম্বোর বিমান ধরতে এক-দু’দিন দেরি হওয়ার যথেষ্ট কারণ আছে। গতকাল পর্যন্ত বাংলাদেশ দলের ভিসা করা হয়নি। টিম স্পন্সর ঘোষণা না করায় টেস্টের জার্সি বানাতে পারেনি। টুকটাক আরও কিছু জিনিস বাকি রয়েছে। এগুলোর সমাধান করে, একেবারে গুছিয়ে যেতে হবে শ্রীলঙ্কা। কারণ দেশটিতে বিমান চলাচল স্বাভাবিক না হওয়ায় পরে কিছু পাঠাতে পারবে না বিসিবি।

এদিকে, একাডেমি ভবন ও বাসায় থাকা ১১ ক্রিকেটার কভিড টেস্টের নমুনা দিয়েছেন গতকাল। নেগেটিভ হলে আজ মুমিনুলদের সঙ্গে হোটেলে উঠবেন তারা।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি