মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ০১:২৮ অপরাহ্ন

শিরোনাম
চাটখিলে ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকনকে অব্যাহতি দেয়ায় আনন্দ মিছিল  চৌদ্দগ্রামে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে গৃহবধূর মৃত্যু ট্রেনে পায়ের আঙুল কাটা পড়েছে অধ্যাপক আনু মুহাম্মদের ঈদে ১৪ টি মিউজিক ভিডিও মুক্তি পেয়েছে প্রিন্স খানের চাটখিলে পৈত্রিক সম্পত্তি জবরদখলে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তপ্তদেহ শীতল করতো গাছের নিচে বসেই, গাছ না থাকায় এত গরম সরকার হজযাত্রীদের সর্বোত্তম সেবা দিতে বদ্ধপরিকর-ধর্মমন্ত্রী দেশের স্বার্থ বিরোধী কাজের সাথে যারাই জড়িত, তারাই মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী – আনু মুহাম্মদ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে  প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে হবে- সুবর্ণচর উপজেলা আ.লীগ হাতিয়ার উন্নয়নে সরকারের স্মার্ট বাংলাদেশ কর্মসূচিকে কাজে লাগানো হবে – মোহাম্মদ আলী এমপি

কোয়ালিফায়ারে হায়দরাবাদ, বিদায় কোহলিদের

নিউজ ডেস্ক :: প্লে-অফ ম্যাচে রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুকে ৬ উইকেটে হারিয়ে কোয়ালিফায়ারে জায়গা করে নিয়েছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। আর ম্যাচ হেরে মরুর বুকের আইপিএল থেকে বিদায় নিল বিরাট কোহলিরা। আর ফাইনালে যাওয়ার লড়াইয়ে রোববার দিল্লি ক্যাপিটালসের মুখোমুখি হবে ডেভিড ওয়ার্নারের দল।

শুক্রবার আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে টসে জিতে ব্যাঙ্গালুরুকেই প্রথমে ব্যাট করতে পাঠায় হায়দরাবাদ অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার। ৭ উইকেটে ১৩১ রান সংগ্রহ করে বেঙ্গালুরু। তবে লো স্কোরিং এই ম্যাচও জমিয়ে তোলে বেঙ্গালুরুর বোলাররা। এই রান তুলতে হায়দরাবাদকে শেষ ওভার পর্যন্ত যেতে বাধ্য করে তারা।

এদিন দেবদূত পাডিক্কেলের সঙ্গে ওপেন করতে নেমে চমক দেখান বিরাট। কিন্তু এদিনও ব্যাট হাতে ব্যর্থ হন তিনি। ৭ বলে মাত্র ৬ রান করে জেসন হোল্ডারের বলে আউট হয়ে যান। ব্যর্থ হলেন দেবদূতও। ১ রানেই প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি। অ্যারন ফিঞ্চ, এবি ডেভিলিয়ার্স এবং মহম্মদ সিরাজ ছাড়া আর কেউই দুই অঙ্কের কোটা ছুঁতে পারেনি।

অ্যারন ফিঞ্চ ৩২ রানে আউট হয়ে গেলেও অসাধারণ ব্যাটিং করেন এবিডি। ৪৩ বলে ৫৬ রান করেন তিনি। আর ১০টি রান আসে মোহাম্মদ সিরাজের ব্যাট থেকে। শেষমেশ ১৩১ রানের সংগ্রহ দাঁড় করায় ব্যাঙ্গালুরু।

হায়দরাবাদের হয়ে ৪ ওভার বল করে ২৫ রান দিয়ে ৩ উইকেট তুলে নেন জেসন হোল্ডার। এছাড়া নটরাজন ২টি এবং শাহবাজ নাদিম একটি করে উইকেট তুলে নেন।

জয়ের লক্ষ্যে নেমেই গোস্বামীর উইকেট হারিয়ে ফেলে হায়দরাবাদ। মনিশ পান্ডে এবং ডেভিড ওয়ার্নার ম্যাচ ধরার চেষ্টা করলেও সেরকম গতিতে খেলতে পারছিলেন না। কারণ ব্যাঙ্গালুরুরের বোলাররা চেপেই ধরে রেখেছিলেন তাদের। এক পর্যায়ে ৬৭ রান তুলতেই ৪ উইকেট হারিয়ে বসে হায়দরাবাদ।

২১ বলে ২৪ রান করে মনিশ আউট হয়ে যান। ওয়ার্নার ১৭ বলে ১৭ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন। তারপরই ম্যাচের হাল ধরেন কেন উইলিয়ামসন। তাকে সাহায্য করলেন জেসন হোল্ডার। তারা দুজন পঞ্চম উইকেটে ৬৫ রানের জুটি গড়ে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন।

উইলিয়ামসন ৪৪ বলে ২ চার ও ২ ছক্কায় অপরাজিত ৫৫ রান করেন। এটা ছিল আইপিএলে তার চতুর্দশ হাফ সেঞ্চুরি। আর হোল্ডার ২০ বলে ২৪ রান করে যোগ্য সহায়তা দেন উইলিয়ামসনকে। ১৯ ওভার ৪ বলে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৩২ রান তুলে কোয়ালিফায়ার নিশ্চিত করে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ।

ব্যাঙ্গালুরুর হয়ে মহম্মদ সিরাজ ২টি এবং অ্যাডাম জাম্পা ও যুজবেন্দ্র চাহল একটি করে উইকেট তুলে নেন।

ম্যান অফ দ্য ম্যাচ নির্বাচিত হন কেন উইলিয়ামসন।

ইতিমধ্যে ফাইনালে যেয়ে বসে আছে মুম্বাই। বৃহস্পতিবার প্রথম কোয়ালিফায়ার ম্যাচে দিল্লি ক্যাপিটালসকে ৫৭ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়ে ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে রোহিতরা।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগিতায়: