বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ০১:৪২ অপরাহ্ন

শিরোনাম
সুবর্ণচরে ঘূর্ণিঝড় রিমেলের রাতে অসহায় ব্যবসায়ীর দোকান লুট ও উচ্ছেদের অভিযোগ রাজশাহী নগরীতে ৬৬ হাজার ৫১৩ জন শিশুকে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে নগরীতে পুলিশের অভিযানে সাজাপ্রাপ্ত গ্রেপ্তার ময়নার শেষ কথা” চলচ্চিত্র নিয়ে আসছে ইরা শিকদার চৌদ্দগ্রাম উপজেলা নির্বাচন উপলক্ষ্যে আ’লীগের নেতা কর্মিদের মত বিনিময় সভা সুবর্ণচরে সরকারি কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগ সাবেক ইউপি সদস্য মাহে আলমের বিরুদ্ধে মানিকগঞ্জের শ্রেষ্ঠ ওসি নির্বাচিত হলেন শিবালয় থানা অফিসার ইনচার্জ রউফ সরকার শহীদ আহ্সান উল্লাহ মাস্টারের শাহাদাৎ বার্ষিকী পালন বাবুর শপথ – মোবারক হোসেন দেলোয়ার চৌদ্দগ্রামে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে যাত্রীবাহী বাস খাদে নিহত-৫, আহত-১৫

প্রথম জয় তামিমের ব্যাটে বরিশালের

নিউজ ডেস্ক :: বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে প্রথম জয় পেল বরিশাল। বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের পর অধিনায়ক তামিম ইকবালের অনবদ্য ফিফটিতে রাজশাহীকে হারিয়েছে ফরচুন বরিশাল। ফলে এই প্রথম হারের স্বাদ পেল রাজশাহী।

মিরপুর শের-ই-বাংলায় শনিবার আগে ব্যাট করে রাজশাহী ৯ উইকেটে ১৩২ রান সংগ্রহ করে। জবাবে এক ওভার হাতে রেখে জয়ের বন্দরে নোঙর ফেলে বরিশাল। তবে শেষদিকে কিছুটা উত্তেজনা ছড়ায় ম্যাচ। দুই ওভারে দুই ছক্কা হাঁকিয়ে অধিনায়ক তামিম সে উত্তেজনা থামিয়ে দিলেন।

রান তাড়া করতে নেমে শুরুটা অবশ্য ভাল হয়নি বরিশালের। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে মেহেদি হাসান মিরাজ ফিরে যান ৫ বলে ১ রান করে। এরপর তামিমের সঙ্গে জুটি বাঁধেন পারভেজ ইমন। দুজন মিলে ৪৫ বলে তুলেন ৬১ রান। ইনিংসের নবম ওভারে ফিরে যান পারভেজ ইমন। তার আগে ৩ চার ও ১ ছয়ে ১৭ বলে ২৩ রান করে যান।

তৌহিদ হৃদয়ের ব্যাট থেকে ২৪ বলে আসে ১৭ রান। তৌহিদ আউট হওয়ার পর খানিক চাপে পড়ে বরিশাল। রানের খাতা খোলার আগেই ফিরে যান আফিফ, ইরফান শুক্কুর রানআউট হন ১ রান করে।

সতীর্থদের আসা-যাওয়ার মিছিলে তামিম ছিলেন টিকে। তবে দৃঢ় মনোবলে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন বাঁহাতি ওপেনার তামিম ইকবাল। ৬১ বলে খেলেন ৭৭ রানের ইনিংস। ১০ চার ও ২ ছক্কায় সাজান নিজের ম্যাচজয়ী ইনিংসটি।

এর আগে টস হেরে ব্যাটিং করতে নেমে ভালো শুরুর পর হঠাৎ ছন্দপতন ঘটে রাজশাহী শিবিরে। নাজমুল হোসেন শান্ত ২৪ রানে আবু জায়েদ রাহীর বলে তামিমের হাতে ক্যাচ দেন। এরপর রনি তালুকদার (৬) মিরাজের ঘূর্ণিতে পরাস্ত হয়ে বোল্ড হন।

সতীর্থ ইমনের ডাকে সাড়া দিতে গিয়ে আশরাফুল রান আউট হন ৬ রানে। ভালো করতে পারেননি কাজী নুরুল হাসান সোহানও (০)। দল ৩৯ থেকে ৬৩ রানে যেতেই ৫ ব্যাটসম্যান হারায় রাজশাহী।

সেখান থেকে দলের হাল ধরেন ফজলে মাহমুদ ও মেহেদী হাসান। প্রতি আক্রমণে দুই ব্যাটসম্যান দলের রান বাড়ান দ্রুত গতিতে। তাদের ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে আসে ৬৫ রান। মেহেদী হাসান ২৩ বলে ৩ ছক্কায় করেন ৩৪ রান। ফজলে মাহমুদ ৩২ বলে ৩ বাউন্ডারিতে করেন ৩১ রান। শেষ দিকে আর কেউ দলের রান বাড়াতে পারেননি।

বরিশালের হয়ে কামরুল ইসলাম রাব্বী ৪ ওভারে ২১ রানে নেন ৪ উইকেট। মিরাজ পেয়েছেন ২টি। দুই পেসার তাসকিন ও রাহীর পকেটে গেছে ১টি করে উইকেট।

এএইচ/


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগিতায়: