শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৪৭ পূর্বাহ্ন

হাসিবুর রহমান স্বপনের মৃত্যুতে সংসদে শোক প্রস্তাব গৃহীত

নিউজ ডেস্ক :: একাদশ জাতীয় সংসদের সিরাজগঞ্জ-৬ (শাহজাদপুর) আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মো. হাসিবুর রহমান স্বপনের মৃত্যুতে আজ জাতীয় সংসদে সর্বসম্মতিক্রমে শোক প্রস্তাব গৃহীত হয়েছে।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী সংসদের আজকের বৈঠকের শুরুতে সম্পূরক কার্যসূচি হিসাবে এ শোক প্রস্তাব উত্থাপন করেন।

উল্লেখ্য, আলহাজ্ব মো. হাসিবুর রহমান স্বপন এমপি আজ বৃহস্পতিবার ভোররাতে তুরস্কের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তার বয়স হয়েছিল ৬৭ বছর ৩ মাস ১৫ দিন।

মো. হাসিবুর রহমান স্বপন ১৬ মে, ১৯৫৪ সিরাজগঞ্জ জেলায় এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম আতাউর রহমান এবং মাতার নাম হালিমা খাতুন।

তিনি ১৯৯৬ সালের সপ্তম, ২০১৪ সালের দশম এবং ২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়নে তিন বার সংসদ-সদস্য নির্বাচিত হন। সপ্তম জাতীয় সংসদে তিনি শিল্প উপমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। একাদশ জাতীয় সংসদে তিনি সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি শাহজাদপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন।

মরহুম স্বপন ১৯৬৯ সালের গণ অভ্যুত্থান, ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেন।

তিনি শাহজাদপুর মহিলা ডিগ্রী কলেজ, মাওলানা সাইফুদ্দিন এহিয়া ডিগ্রী কলেজ, ইব্রাহিম মডেল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি রুপপুর বেসরকারী প্রাথামিক বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি। তিনি শাহজাদপুর মটর মালিক সমিতির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি। তিনি শাহজাদপুর রিকশা ও তাঁত শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, শাহজাদপুর খানা কমান্ড, সিরাজগঞ্জের সদস্য ছিলেন।

শোক প্রস্তাবে তার মৃত্যুতে জাতীয় সংসদ থেকে গভীর শোক প্রকাশ করে তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানানো হয়। এরপর রেওয়াজ অনুযায়ি শোক প্রস্তাবের ওপর আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শোক প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় অংশ নেন।

অন্যান্যের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন, হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ কাদের, সরকারি দলের আ স ম ফিরোজ, শামসুল হক টুকু, আবদুল আজিজ এবং বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ মশিউর রহমান রাঙ্গা।

শোক প্রস্তাবের ওপর আলোচনা শেষে মরহুমের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালনের পর তার আত্মার মাগফিরাত কামনা করে মোনাজাত করা হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান।

এরপর সংসদের রেওয়াজ অনুযায়ী চলমান সংসদের সদস্য মরহুম হাসিবুর রহমান স্বপনের প্রতি শ্রদ্ধা প্র্রদর্শন করে দিনের অন্যান্য কার্যসূচি স্থগিত করে অধিবেশন মুলতববি করা হয়।
এসএ/

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি