শুক্রবার, ১৮ Jun ২০২১, ০৯:৪৫ পূর্বাহ্ন

মস্তিষ্কে সফল অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হলো মোহাম্মদ নাসিমের

নিউজ ডেস্ক : কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিমের মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচার সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। তাকে এখন নিবিড় পর্যবেক্ষণে(আইসিউ) রাখা হয়েছে।

আজ শুক্রবার দুপুরে আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টর বিপ্লব বড়ুয়া এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, সকালে নাসিম ভাই-এর মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ হলে তাকে অপারেশন থিয়েটারে নেয়া হয়। তার রোগমুক্তির জন্য আমরা সকলের দোয়া কামনা করছি। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা, নাসিম ভাই-এর পুত্র তানভির শাকিল জয় এবং অধ্যাপক ডাঃ রাজিউল হক-এর সাথে টেলিফোন এ যোগাযোগ করেছেন।

মোহাম্মদ নাসিমের ছেলে তানভীর শাকিল জয় বলেন, “সব ঠিক হয়ে গিয়েছিল, আব্বুর অবস্থা ভালোর দিকে ছিল। আজ সকালে হঠাৎ করে ব্রেইন স্ট্রোক করেন তিনি। বাবার সুস্থতার জন্য সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন জয়। তিনি বলেন, আব্বুর অপারেশন সাকসেসফুল হয়েছে। আপনারা সবাই দোয়া করবেন।”

এছাড়া মোহাম্মদ নাসিমের ব্যক্তিগত সহকারী মীর মোশাররফ হোসেন জানিয়েছেন, মোহাম্মদ নাসিম শুক্রবার ভোরে হাসপাতালের আইসিইউতে ব্রেইন স্ট্রোক করেন। পরে তাকে দ্রুত ঢাকা সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) স্থানান্তরের উদ্যোগ নেওয়া হয়। সিএমএইচের অ্যাম্বুলেন্স এলেও তার শারীরিক অবস্থা খারাপ হওয়ায় তাকে নেওয়া যায়নি। এই অবস্থায় শুক্রবার সকাল থেকে বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালে অপারেশন শুরু হয়। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিউরোসার্জারি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. রাজিউল হকের নেতৃত্বে অপারেশন করা হয়।

এর আগে জ্বর-কাশিসহ করোনাভাইরাসের লক্ষণ নিয়ে গত ১ জুন দুপুরে ঢাকার শ্যামলীর বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালে ভর্তি হন নাসিম। সেখানেই করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়। রাতে ওই পরীক্ষার ফল ‘পজিটিভ’ আসে। তার পরের তিন দিন পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হলেও শুক্রবার সকালে নতুন ধরনের জটিলতা তৈরি হয়।

করোনা সংকট শুরুর পর থেকেই কর্মহীন মানুষের মধ্যে ত্রাণ কার্যক্রম চালিয়ে আসছিলেন মোহাম্মদ নাসিম। ১৪ দলের পক্ষ থেকে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় কর্মহীন মানুষকে সহায়তা দিয়েছেন তিনি। সিরাজগঞ্জের নিজ নির্বাচনী এলাকায়ও ত্রাণ কার্যক্রম চালিয়েছেন আওয়ামী লীগ থেকে নির্বাচিত প্রবীণ এই সংসদ সদস্য।

তিনি চিকিৎসক-নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের মধ্যে স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রীও বিতরণ করেন। দিন পাঁচেক আগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) প্রথম দফা করোনা পরীক্ষা করা হয়েছিল। সে সময় তার পরীক্ষার রিপোর্টে করোনা নেগেটিভ আসে।

১৯৭৫ সালের ৩ নভেম্বর কারাগারে নিহত জাতীয় চার নেতার একজন শহীদ এম মনসুর আলীর ছেলে মোহাম্মদ নাসিম আওয়ামী লীগের ১৯৯৬-২০০১ সরকারে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন।

২০০৮ সালের নির্বাচনে জয়ী হয়ে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর মন্ত্রিসভায় না থাকলেও পরের মেয়াদে তাকে স্বাস্থ্যমন্ত্রী করেন শেখ হাসিনা।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি