বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ০১:১৯ অপরাহ্ন

শিরোনাম
সুবর্ণচরে ঘূর্ণিঝড় রিমেলের রাতে অসহায় ব্যবসায়ীর দোকান লুট ও উচ্ছেদের অভিযোগ রাজশাহী নগরীতে ৬৬ হাজার ৫১৩ জন শিশুকে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে নগরীতে পুলিশের অভিযানে সাজাপ্রাপ্ত গ্রেপ্তার ময়নার শেষ কথা” চলচ্চিত্র নিয়ে আসছে ইরা শিকদার চৌদ্দগ্রাম উপজেলা নির্বাচন উপলক্ষ্যে আ’লীগের নেতা কর্মিদের মত বিনিময় সভা সুবর্ণচরে সরকারি কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগ সাবেক ইউপি সদস্য মাহে আলমের বিরুদ্ধে মানিকগঞ্জের শ্রেষ্ঠ ওসি নির্বাচিত হলেন শিবালয় থানা অফিসার ইনচার্জ রউফ সরকার শহীদ আহ্সান উল্লাহ মাস্টারের শাহাদাৎ বার্ষিকী পালন বাবুর শপথ – মোবারক হোসেন দেলোয়ার চৌদ্দগ্রামে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে যাত্রীবাহী বাস খাদে নিহত-৫, আহত-১৫

চিত্রনায়ক রিয়াজ এর এবার কোরবানি দেওয়া হয়নি

নিউজ ডেস্ক : করোনার কারণে এবারের ঈদটাও ঘরবন্দী কাটাচ্ছি। কারও সঙ্গে দেখা করার সুযোগ হয়নি। আর সবচেয়ে বড় বিষয় হচ্ছে, এবার কোরবানি দেওয়া হয়নি। প্রতি বছর খুব আনন্দের সঙ্গে কোরবানি দিয়ে থাকি। এ বছর করোনার কারণে অনেকেই অসহায় হয়ে পড়েছে। শুরু থেকেই চেষ্টা করে আসছি, তাদের পাশে দাঁড়াতে। এবারের কোরবানির অর্থ সেসব মানুষের সেবায় ব্যয় করেছি।

ঈদের আনন্দটাও ফিঁকে হয়ে গেছে। ঈদের মতো বিশেষ দিনেও ঘরে সাদামাটা করে কাটাতে হচ্ছে। গত রোজার ঈদ যেমন কাটিয়েছি, এবারও সেভাবেই কাটছে। ঈদের টিভি অনুষ্ঠানগুলো দেখছি। পরিবারের সঙ্গে আনন্দ করছি, এই তো। এর বেশি কিছু তো হচ্ছে না। অথচ আগের ঈদগুলো কতই না আনন্দের ছিল।

ঈদে কোলাকুলি আর মুসাফাহা না করলে ঈদ, ঈদই মনে হয় না। সকালে ঈদের জামাতে নামাজ আদায় করার দিনগুলো খুব মিস করছি। এতদিন শৈশবের স্মৃতিগুলো খুব মিস করতাম। এখন স্বাভাবিক সময়টাকে খুব মিস করছি। স্বপ্নের মতো সেই দিনগুলো চোখের সামনে বারবার ভেসে উঠছে। বাসায় থাকতে থাকতে বোর হয়ে যাচ্ছি। কিন্তু কি করার, উপায়ও তো নেই। তাই বাধ্য হয়ে ও পরিবারের কথা চিন্তা করে বাসায়ই অবস্থান করছি।

সারা বছরের ব্যস্ততা ভুলে ঈদের সময়গুলোতেই আত্মীয়-স্বজনরা সবাই মিলে এক হতাম। সবার সঙ্গে দেখা, বাসায় যাওয়া-আসা, আনন্দ ফুর্তি করে ঈদের দিনগুলো কাটানো হতো। কিন্তু এবারও যে যার মতো বাসায়। ফোনে কথা হচ্ছে, কিন্তু তাতে কি আর সেই আনন্দ এনে দিতে পারে। এখন শুধু অপেক্ষা, কবে আবার সব কিছু স্বাভাবিক হবে। আবার আমরা স্বাধীন ভাবে চলাফেরা করব। সেই দিনগুলোর স্বপ্নই এখন দেখছি।


© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগিতায়: