শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৯:৫৪ অপরাহ্ন

সেন্ট্রাল প্লাজা দোকান কর্মচারী, দারোয়ান, সেবকদের মাঝে সিটি মেয়রের ত্রাণ উপহার

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি : চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ.জ.ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, করোনা আতঙ্কে স্তব্ধ হয়ে পড়েছে পুরো দেশ। এমন পরিস্থিতিতে সবচেয়ে বেশি সমস্যায় পড়েছে খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষ। দীর্ঘ ছুটির কারণে দিনে এনে দিনে খাওয়া মানুষরাই বেশি সংকটে পড়েছে। কাজ করতে না পারলে বন্ধ হচ্ছে তাদের রুটি রুজি। তাই সরকার ছুটিকালীন সময়ে জীবিকা রক্ষা বিবেচনায় লকডাউনে শিথিলতা এনেছেন। কিন্তু স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক সামাজিক দূরত্ব রক্ষাসহ যেসব বিধি-বিধান মেনে চলার জন্য বাধ্যবাধকতা দিয়েছেন তা অবশ্যই মেনে চলতে হবে।

মেয়র গতকাল (৭ মে বৃহষ্পতিবার) নগরীর জি.ই.সি মোড়স্থ সেন্ট্রাল প্লাজা দোকান কর্মচারী, দারোয়ান ও সেবকদের মাঝে তাঁর ব্যক্তিগত তহবিল হতে ১শত ৫০ জনকে ভোগ্যপণ্য উপহার সামগ্রী প্রদানকালে এসব কথা বলেন।

গতকাল বিকেলে টাইগারপাস্থ নগর ভবনে বাংলাদেশ নির্মাণ শ্রমিক ফেডারেশন রেজি:বি-২২০৫ এর নেতৃবৃন্দ চট্টগ্রাম সিটি কপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান প্রদানকালে মেয়র এসব কথা বলেন। স্বারকলিপিতে বাংলাদেশ নির্মাণ শ্রমিক ফেডারেশন নেতৃবৃন্দ উল্লেখ করেন যে, বর্তমান লকডাউন চলাকালীন শ্রমিকদের কাজ কমে এসেছে। ফলে তারা কাজের খোঁজে বিভিন্ন জায়গায় যেতে হয়। তাই নানাভাবে অহেতুক হয়রানীর শিকার হতে হয়।

এই হয়রানী হতে রক্ষা পাওয়ার জন্য নির্মাণ শ্রমিক হিসেবে পরিচয়পত্র হাতে থাকলে পরিত্রাণ পাওয়া সম্ভব। তাই এই ব্যাপারে সিটি মেয়রের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

এছাড়া সরকার প্রদত্ত ন্যায্যমূল্যে চাউল ও খাদ্যসামগ্রী পাওয়ার জন্য নগরীতে যেসব কার্ড বিতরণ হচ্ছে তা প্রাপ্তিতে মেয়রের সহযোগিতা কামনা করেন। মেয়র তাদের বক্তব্য ধৈর্য সহকারে শুনেন এবং এই বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের সাথে আলাপ আলোচনা করে সমাধানের আশ্বাস দেন।

স্মারকলিপি প্রদান কালে বাংলাদেশ নির্মাণ শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি সৈয়দ কুদরত-ই-খোদা, সাধারণ সম্পাদক কে এম শহিদুল্লাহ, পরিবহন শ্রমিক লীগের সভাপতি উজ্জ্বল বিশ্বাস, চাঁন্দগা থানা নির্মাণ শ্রমিকলীগের সভাপতি সালাউদ্দিন প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি