শুক্রবার, ২৫ Jun ২০২১, ০৩:০০ অপরাহ্ন

শিরোনাম
হাতীবান্ধায় মধ্যরাতে গোয়াল ঘরে আগুন, গরু বাঁচাতে গিয়ে ২জন অগ্নিদগ্ধ গ্রাম হচ্ছে শহর প্রাণভোমরা ডিজিটাল সেন্টার – পরীক্ষিৎ চৌধূরী সুইজারল্যান্ডে এমপি হয়ে ইতিহাস গড়লেন বাংলাদেশি নারী জেনারেল র‌্যাংক ব্যাজ পরানো হলো নতুন সেনাপ্রধানকে ‘ওভারনাইট বান্দরবান পাঠিয়ে দেব’ বিজ্ঞাপন বন্ধের নির্দেশ করোনা চিকিৎসার ব্যবস্থাপনা ও প্রস্তুতি জানতে ঢাকা মেডিকেলে জাসদ নেতৃবৃন্দ ব্যাটারি চালিত রিক্সা-ভ্যান বন্ধের প্রতিবাদে সিরাজগঞ্জে মানববন্ধন যোগচর্চার উৎপত্তি ভারত না নেপাল নৌপরিবহন অধিদফতরে এইচএসসি পাসে চাকরি গায়েবি মামলায় হয়রানি ঠেকাতে হাইকোর্টের ৫ দফা নির্দেশনা

কুমার বিশ্বজিৎ-এর জন্মদিন আজ

নিউজ ডেস্ক :: ‘তোরে পুতুলের মত করে সাজিয়ে’, ‘তুমি রোজ বিকেলে’ কিংবা ‘যেখানে সীমান্ত তোমার’ এর মতো গান দিয়ে এখনও শ্রোতাদের হৃদয়ে চির সবুজ হয়ে আছেন কুমার বিশ্বজিৎ। আজ ১ জুন, জনপ্রিয় এই সঙ্গীতশিল্পীর জন্মদিন।

নিজের জন্মদিন নিয়ে কুমার বিশ্বজিৎ বলেন, ‘আরো একটি বছর চলে গেলো। মানুষ আমাকে নি:স্বার্থভাবে এতো ভালোবাসে, অথচ আমার এই সময়ে এসে মনে হচ্ছে, কিছুই করতে পারিনি। বারবার মনে হচ্ছে, সৃষ্টিশীল মানুষদের তিন জনমের সমান সময় প্রয়োজন এই ধরনীর বুকে। কারণ শৈশব, তারপর বেড়ে উঠা, জীবন সাজানো, ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য ভাবনা এবং সর্বোপরি জীবনের অনেকটা সময় ঘুমে চলে যাবার কারণে সৃষ্টিশীল কাজ করার সুযোগ তেমন হয়ে উঠে না। তবে আমার আত্মতৃপ্তি এখানেই যে, আমি কখনো প্রথাগত স্রোতে গা ভাসাইনি। সঙ্গীত অনেক শ্রদ্ধার, অনেক সাধনার। এই কাজ করতে গিয়ে অনেক সময় না খেয়েও থাকতে হয়েছে আমাকে, বাসা ভাড়াও দিতে পারিনি আমি। আমি ধৈর্য্য হারা হইনি। নতুন প্রজন্মের প্রতি আহবান থাকবে, তারা যেন ধৈর্য্য হারা না হয়। করোনায় আমরা অনেককেই হারিয়েছি, তাদের আত্মার শান্তি কামনা করছি। আবার করোনা’তে অনেক শিল্পী, মিউজিসিয়ান দুর্বিষহ জীবন কাটাচ্ছেন। এই অবস্থা থেকে যেন সবাই দ্রুত পরিত্রাণ পান এই কামনা থাকবে আমার। আর আমার স্বর্গী মায়ের জন্য আশীর্বাদ চাই।’

উল্লেখ্য, ১৯৬৩ সালের আজকের এই দিনে জন্মগ্রহণ করেছিলেন কুমার বিশ্বজিৎ। তার শৈশব কেটেছে চট্টগ্রাম জেলায়। বাংলা আধুনিক কিংবা চলচ্চিত্রের গানে দীর্ঘ চার দশক ধরে কণ্ঠ দিচ্ছেন কুমার বিশ্বজিৎ। তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জয় করেছেন। এখনও নিয়মিত গান গেয়ে যাচ্ছেন তিনি।

গানের প্রতি ছিল তার অগাধ টান। হিন্দু ধর্মালম্বী পরিবারে বেড়ে ওঠায় কীর্তন ও শ্যামা সংগীত শোনার সুযোগ ছিল। তার বিশ্ব সঙ্গীতের উৎস ছিল রেডিও। এভাবে গান শুনতে শুনতে একসময় শেখার প্রতিও আগ্রহ জন্মে কুমার বিশ্বজিতের। সঙ্গীতের ব্যাকরণ শিখতে তেজেন বাবু নামে এক সঙ্গীতজ্ঞের শরণাপন্ন হন তিনি। সেই থেকে তার সংগীতের পথচলা শুরু।

ধ্রুপদী, আধুনিক সমসাময়িক, লোকসঙ্গীত ও জীবনমুখী গান নিয়ে নানান পরীক্ষানিরীক্ষা চালিয়েছেন কুমার বিশ্বজিৎ। ‘তোরে পুতুলের মতো করে সাজিয়ে’ ‘তুমি রোজ বিকেলে’, ‘যেখানে সীমান্ত তোমার’, ‘শিকারি’, ‘ও ডাক্তার’, ‘ইতিহাস’, ‘জ্বালাইয়া প্রেমের বাত্তি’, ‘অন্তর জ্বলে’, ‘একটা চাঁদ ছাড়া রাত’, ‘প্রেমের মানুষ’সহ অসংখ্য জনপ্রিয় গান রয়েছে কুমার বিশ্বজিতের।

এদিকে এ মাসে ‘মেঘদূত’ শিরোনামের নতুন একটি গানের মিউজিক ভিডিওর শুটিং-এ অংশ নিবেন তিনি। গানটি লিখেছেন এবং সুর করেছেন রাজীব। এছাড়াও আসিফ ইকবালের লেখা এবং কিশোর সুর সঙ্গীতে ‘ঐশ্বর্য’ অ্যালবামের জন্য আরো দুটি গান গেয়েছেন।
এসএ/

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি