মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ০৫:৪৬ অপরাহ্ন

পূজামণ্ডপে নাচলেন নায়ক সঙ্গে হাজার দর্শক

নিউজ ডেস্ক :: নারায়ণগঞ্জকে নিজের প্রাণের শহর দাবি করে অতীত স্মৃতি রোমন্থন করেছেন চিত্রনায়ক ফেরদৌস। মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) রাতে পূজামণ্ডপ পরিদর্শনের সময় নৃত্যশিল্পীদের সঙ্গে নেচে তাদের উৎসাহ দিয়েছেন তিনি। তার নাচ ও বক্তব্য উপস্থিত দর্শনার্থীদের মধ্যে ব্যপক সাড়া ফেলে। এসময় তার সহপাঠী ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়াও তার নাচ উপভোগ করেন।

এ সময় ফেরদৌস বলেন, এখানে এসেই আমি খুব ইমোশনাল হয়ে পড়েছি। আমার সেই ছোট বেলার স্মৃতিতে চলে গিয়েছিলাম। বিশ্বাসই হচ্ছিল না আমি আজকে নারায়ণগঞ্জ আসবো। আমার বন্ধু ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়াকে ধন্যবাদ। আসলে ও মাঝে মাঝে এমন সব কাজ করে আমি বিস্মিত হয়ে যাই। যেমন আজকে বলল তোকে একটা পূজায় নিয়ে যাবো। আমাকে বলেনি কোথায়। বিকাল থেকেই সে প্রচন্ড ব্যস্ত নির্বাচন নিয়ে।

তিনি আরও বলেন, আমার ছোট বেলার শহর। অত্যন্ত প্রাণের শহর। আমার বেড়ে ওঠার সঙ্গে আজকে আমি ফেরদৌস হওয়ার পেছনে বড় ভূমিকা রেখেছে এই শহর। কারণ শিল্প সংস্কৃতির দিক দিয়ে নারায়ণগঞ্জ অনেক ধনী। নারায়ণগঞ্জের মানুষ ভীষষ সংস্কৃতমনা। আমি নিজেও ছোটবেলায় বুঝতাম না হিন্দু, মুসলমানের কী তফাৎ। ঈদে আমার হিন্দু বন্ধুরা আমাদের বাড়িতে আসত পূজায় আমরা তাদের বাড়িতে যেতাম। আমরা বিশ্বাস করি ধর্ম যার যার উৎসব সবার।

এদিকে করোনাকালেও অভিনয়ে নিয়মিত ফেরদৌস। বর্তমানে এ অভিনেতার হাতে আটটি সিনেমা রয়েছে। পর্যায়ক্রমে তিনটি সিনেমার কাজ শেষ করেছেন তিনি। সিনেমাগুলো হলো- জি এম ফারুকের ‘যদি আরেকটু সময় পেতাম’, মাহমুদ দিদারের ‘বিউটি সার্কাস’ এবং এখলাস আবেদিনের ‘হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি’।

অন্যদিকে হৃদি হকের পরিচালনায় ‘১৯৭১ সেইসব দিন’ আফজাল হোসেনের ‘মানিকের লাল কাঁকড়া’ এবং নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামুলের ‘গাঙচিল’ ও ‘জ্যাম’ ও নুর আলমের ‘রাসেলের জন্য অপেক্ষা’ সিনেমার শুটিং করছেন তিনি।

কেইউ

 

নিউজটি শেয়ার করুন

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত © ২০২০ বাঙলার জাগরণ
কারিগরি সহযোগীতায় :বাংলা থিমস| ক্রিয়েটিভ জোন আইটি